কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

চেলসি-ম্যানসিটি মহারণ ফের অমীমাংসিত

প্রকাশিত : ২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ, ম্যানইউ ও লিভারপুলের সহজ জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ একতরফা খেলেও জিততে পারল না ম্যানচেস্টার সিটি। স্টামফোর্ড ব্রিজে স্বাগতিক চেলসির সঙ্গে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের ম্যাচে ১-১ গোলে ড্র করেছে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। শনিবার রাতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে স্বাগতিক চেলসির হয়ে গোল করেন ফরাসী স্ট্রাইকার লোইক রেমি। আর অতিথি সিটির হয়ে গোলটি পরিশোধ করেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ডেভিড সিলভা। চলমান ২০১৪-১৫ মৌসুমে দু’দলের প্রথম লেগের ম্যাচটিও ১-১ গোলে ড্র হয়েছিল। গত বছরের সেপ্টেম্বরে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছিল ম্যাচটি।

পরশু রাতের নিজ নিজ ম্যাচে সহজ জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও লিভারপুল। ঘরের মাঠ ওল্ডট্রাফোর্ডে ম্যানইউ ৩-১ গোলে হারায় লিচেস্টার সিটিকে। রেড ডেভিলসদের হয়ে গোলগুলো করেন রবিন ভ্যান পার্সি, রাদামেল ফ্যালকাও ও মরগান। নিজেদের মাঠ এ্যানফিল্ডে লিভারপুল ২-০ গোলে জয় পায় ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে। দ্য রেডসদের হয়ে গোল করেন রাহিম স্টার্লিং ও ড্যানিয়েল স্টারিজ। অন্য ম্যাচে নিউক্যাসল ইউনাইটেড ৩-০ গোলে হাল সিটিকে, এভারটন ১-০ গোলে ক্রিস্টাল প্যালেসকে, স্টোক সিটি ৩-১ গোলে কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্সকে, সান্ডারল্যান্ড ২-০ গোলে বার্নলিকে ও টটেনহ্যাম হটস্পার ৩-০ গোলে পরাজিত করে ওয়েস্টব্রুমউইচকে।

দুই সুপারস্টার চেস ফেব্রিগাস ও দিয়াগো কোস্তাকে ছাড়াই খেলতে নেমেছিল চেলসি। ড্র করেই তাই খুশি দ্য ব্লুজরা। এতে করে শীর্ষস্থান ধরে রাখাসহ দ্বিতীয় স্থানে থাকা ম্যানসিটির সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান আগের পাঁচই রাখতে সক্ষম হয়েছে তারা। বর্তমানে ২৩টি করে ম্যাচ শেষে চেলসির ভা-ারে জমা সর্বোচ্চ ৫৩ পয়েন্ট। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানসিটির পয়েন্ট ৪৮। ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে ম্যানইউ। ৪২ ও ৪০ পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে সাউদাম্পটন ও টটেনহ্যাম।

স্টামফোর্ড ব্রিজে ড্র করে টানা তিন ম্যাচ জয়হীন থাকল ম্যানসিটি। গত ১০ জানুয়ারি এভারটনের মাঠে ১-১ গোলে ড্র করার পর আর্সেনালের কাছে ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হেরে যায় তারা। সঙ্গতকারণেই হতাশা ব্যক্ত করেছেন চ্যাম্পিয়ন দলের কোচ ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনি। আধিপত্য বিস্তার করে খেলেও জয় না পাওয়ায় হতাশা ঝরেছে তার কণ্ঠে। চেলসির রক্ষণাত্মক খেলারও সমালোচনা করেন তিনি। ম্যাচ শেষে সিটি কোচ পেলেগ্রিনি বলেন, আমরা জয়ের জন্যই মাঠে নেমেছিলাম। কিন্তু প্রতিপক্ষের অতি রক্ষণাত্মক কৌশলের কারণেই গোলের সুযোগ কম তৈরি হয়েছে। তারা প্রথমে এগিয়ে গেলেও এরপর গোলপোস্টে মাত্র একটি শট নিতে পেরেছে। পুরো ম্যাচজুড়ে তারা নিজেদের রক্ষণ নিয়েই ব্যস্ত ছিল। ইতালিয়ান এই কোচ আরও বলেন, চেলসি মূলত ছোট দলগুলোর মতো কাউন্টার এ্যাটাক নির্ভর ফুটবল খেলেছে। আমরা খেলা শুরুর প্রথম মিনিট থেকে শেষ পর্যন্ত গোল দেয়ার চেষ্টা করেছি। তাদের ডিফেন্সিভ কৌশলেই সব পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। প্রথমার্ধে কয়েকটি পরিষ্কার সুযোগ মিস না করলে ফলাফলটা অন্যরকম হতে পারত। ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি চেলসির কোচ জোশে মরিনহোর। চেলসির সহকারী কোচ স্টিভ হল্যান্ডও ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে আসেননি। এর আগে গত শুক্রবার ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনও বাতিল করেন পর্তুগীজ লৌহমানব।

স্টামফোর্ড ব্রিজে শুরু থেকেই স্বাগতিকদের উপর আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে অতিথি ম্যানসিটি। কিন্তু ৪১ মিনিটে খেলার ধারার বিপরীতে গোল হজম করে চ্যাম্পিয়নরা। এ সময় সার্বিয়ার ডিফেন্ডার ব্রানিসøাভ ইভানোভিচের লম্বা পাস ধরে বাঁ দিক থেকে অসাধারণ ক্রস দেন ম্যাচে দারুণ খেলা ইডেন হ্যাজার্ড। বেলজিয়ামের এই মিডফিল্ডারের ক্রসে ডান পায়ের শটে ফাঁকা পোস্টে লক্ষ্যভেদ করেন স্বাগতিকদের ফরাসী স্ট্রাইকার লোইক রেমি। এগিয়ে যাওয়ার আনন্দ অবশ্য বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি চেলসি। তিন মিনিট পরেই সিটিকে সমতায় ফেরান ডেভিড সিলভা। সিটির সমতাসূচক গোলটি দারুণ গোছানো আক্রমণের ফসল। ডান দিক থেকে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার জেসুস নাভাসের ক্রস চেলসির গোলরক্ষক থিবাউট করটোয়া এক হাত দিয়ে ফিরিয়ে দিলেও বল পেয়ে যান সার্জিও এ্যাগুয়েরো। চলতি বলে ক্ষিপ্রগতির শট নেন তিনি। শেষ মুহূর্তে ওই শটে পা লাগিয়ে গোল করেন সিলভা।

বিরতির পর চেলসি আর একবারও আক্রমণ শাণাতে পারেনি। সিটি বেশ কয়েকটি সুযোগ পেলেও ব্যর্থ হয় গোল করতে। ফলে আরেকবার অমীমাংসিতভাবে শেষ হয় দুই পরাশক্তির লড়াই।

প্রকাশিত : ২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০২/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: