কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা দু’দলেরই লক্ষ্য জয়

প্রকাশিত : ২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা দু’দলেরই লক্ষ্য জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ’-এ বাংলা-লঙ্কার সেমিতে ওঠার দ্বৈরথ আজ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে সাফ অঞ্চলের এই দুই জাতীয় ফুটবল দল। রবিবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে দু’দল মুখোমুখি হয় সংবাদ মাধ্যমের। সেখানে বাংলাদেশের ডাচ্ কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফ বলেন, ‘মালয়েশিয়া খুব ভাল দল। তারুণ্যনির্ভর। ওদের কাছে আমরা ১-০ গোলে হেরেছি। তারপরও আমাদের সেমিতে খেলার সম্ভাবনা এখনও শেষ হয়ে যায়নি। সোমবারের ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সেমি খেলা নিশ্চিত করতে চাই।’

বাংলাদেশে অনেক প্রতিভাবান ফুটবলার আছে। তাদের ঠিকমতো প্রশিক্ষণ এবং অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দিতে পারলে তারা আরও উন্নতি করবে বলে মনে করেন ক্রুইফ।

তিনি আরও বলেন, ‘এটা একটি মর্যাদাপূর্ণ টুর্নামেন্ট। প্রথম ম্যাচে মালয়েশিয়ার বিরুদ্ধে খেলার সময় লক্ষ্য করেছি আমার ছেলেরা প্রথম ২০ মিনিট নার্ভাস ছিল। যদিও বল নিয়ন্ত্রণ তাদেরই বেশি ছিল। কিন্তু তারপরও ভাল খেলে ম্যাচটা আমরা জিততে পারিনি। ফুটবল হচ্ছে গোলের খেলা। সেই গোল দেয়ার কাজটিই করেছে মালয়েশিয়া। এই কাজটিই এখন আমরা করতে চাই লঙ্কানদের বিরুদ্ধে। শ্রীলঙ্কাও ভাল দল। চেনা প্রতিপক্ষ। সোমবারের ম্যাচে তারা আমাদের সমস্যায় ফেলতে সবকিছুই করার চেষ্টা করবে। আমাদের লক্ষ্য থাকবে সেই সমস্যাকে সমাধানে পরিণত করা।’

বাংলাদেশের অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম বলেন, ‘শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে জেতার জন্য আমাদের দল প্রস্তুত। সেটা শারীরিক-মানসিক উভয়ক্ষেত্রেই। ড্র নয়, আমরা জয়ের জন্য মাঠে খেলব। চাই পূর্ণ তিন পয়েন্ট। আমাদের সুবিধা হচ্ছে আমরা স্বাগতিক। ভাল খেলে জেতার চেয়ে খারাপ খেলে হারা অনেক ভাল। কাজেই যেভাবেই হোক, আমাদের জিততে হবেই।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘প্রথম ম্যাচে হারার পর দলের খেলোয়াড়দের মন একটু খারাপ ছিল। তবে এটা কোন সমস্যা নয়। আমাদের সবার লক্ষ্যÑ সেমিফাইনালে খেলা। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে এর আগেও খেলেছি। কয়েকমাস আগে দেশের মাটিতেই তাদের সঙ্গে ১ ম্যাচে ড্র, আরেক ম্যাচে জিতেছি। তবে সেটা ছিল ফিফা প্রীতি ম্যাচ। আর এটা হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। তারপরও বলব, ওদের চেয়ে সবকিছুতেই এগিয়ে আছি আমরা। দিনটা যেন আমাদেরই হয়, এটাই চেষ্টা থাকবে আমাদের।’

শ্রীলঙ্কার সার্বিয়ান কোচ নিকোলা কাভাজোভিক বলেন, ‘আমরা এই টুর্নামেন্ট নিয়ে আগ্রহী নই। আমরা প্রতিশোধ নিতে আসিনি। এখানে আমরা কোন নির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়েও আসিনি। এক বছরের পরিকল্পনা নিয়ে আমরা এগুচ্ছি।’ অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘শ্রীলঙ্কার মানুষ খুবই লড়াকু মনোভাবের। তারা কখনই হার মানে না। আমার দলের খেলোয়াড়দেরও এই মানসিকতা আছে। এ কারণে প্রথম ম্যাচের হারলেও এ ম্যাচের জন্য আমাদের অনুপ্রেরণা কমতি নেই।’

শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক সুজন পেরেরা বলেন অধিনায়ক সুজন পেরেরা, ‘বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচই আমাদের প্রথম লক্ষ্য। এ আসরের ম্যাচগুলো আমাদের জন্য বাছাই পর্বের প্রস্তুতি নিতে সহায়ক হবে।’

প্রকাশিত : ২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০২/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: