কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এ সময়ের কয়েকটি বই

প্রকাশিত : ৩০ জানুয়ারী ২০১৫

ভ্রƒণ শস্যের আলপনা

‘ভ্রƒণ শস্যের আলপনা’ হাসান হাবিবের প্রথম কাব্যগ্রন্থ। প্রথম গ্রন্থ হলেও কবিতার চিন্তা-চেতনা, শব্দ প্রয়োগ, উপমার ব্যবহার ও প্রেক্ষাপট নির্বাচনে হাসান হাবিবকে অন্যদের থেকে আলাদা করে দেয়। কবি মাত্রই কবিতায় নিজের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, বিশ্বাস, উপলব্ধি ও অনুভবগুলো খুঁজে বেড়ান। হাসান হাবিব দেশ, মাটির কথা বলেন, তাঁর স্বপ্নের কথা বলেন। কবিকে আবৃষ্ট করে রাখে সবুজ মাঠ, নবান্ন, পতাকা।

মানব জীবন ও প্রকৃতির ক্ষিপ্ত-বিক্ষিপ্ত সৌন্দর্যবোধ, বেদনাসিক্ততা যখন মনে-মননে ভর করে তখন কবি শব্দের গাঁথুনীকে গড়ে তোলেন কবিতা। কবি আনন্দের কথা বলেন। কবি রহস্যের কথা বলেন। কবি তফাৎ করেন। তফাৎ ভাঙ্গেন। নারী আরাধ্য, অনাকাক্সিক্ষত, আকাক্সিক্ষত। এসবের দোলাচলেই কবিকে চলতে হয়। হাসান হাবিবও তার ব্যতিক্রম নন। ‘কবি এবং নারী’, ‘নারীর পাঠশালা’, ‘চিরকুট’, ‘কফিন’, ‘শূন্যতা’, ‘বিষ বৃক্ষের রাত’, ‘আয়নার স্বরলিপি’, ‘আদিম ছায়া’, ‘জলসিঁড়ি’, ‘এপিটাপ’, ‘বৃষ্টির ছবি’, ‘কবি’, ‘আস্তিকের ঈশ্বর বন্দনা’Ñকাব্য গ্রন্থটির উল্লেখযোগ্য কবিতা।

বইটিতে স্থান পেয়েছে ৫৬টি কবিতা। প্রকাশ করেছে ঐতিহ্য। প্রচ্ছদÑ ধ্রুব এষ্। মূল্যÑ একশ’ চল্লিশ টাকা।

জীবনবেলার বিকিকিনি

‘...নদীর পাড়ে শত শত শূন্য বাড়ি। কিছু কিছু শূন্য ভিটা উদম শিশু গমের সময় গ্রামের বাড়িতে যেভাবে উঠানে শুয়ে আকাশের দিকে তাকিয়ে থাকে সেভাবে তাকিয়ে আছে। ...মেঘনার ভাঙ্গনে হয়ত অনেকেই চলে গেছে দূর দেশে। কেউ বা রয়েছে বংশলতিকার টানে। ... মানুষের বাড়ির উপর এখন নদী। নদীর পানি কেটে তিরতির করে ছুটে চলছে নৌকা। সূর্যটা তার তেজকে ক্রমেই ম্লান করে ওপাড়ের চরে মুখ লুকাচ্ছে।’ Ñ মনসুর আজিজ : জীবনবেলার বিকিকিনি/ পৃষ্ঠাÑ৭৮।

নদী জীবনের মতোই বহমান স্রোতে ছুটে চলে। ছুটে চলাই জীবন আর নদীর ধর্ম। নদীর যেমন স্রোত, জোয়ার, ভাটা থাকে, তেমনি দুঃখ, কষ্ট, দারিদ্র্য, উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে ভেঙ্গে গড়েই এগিয়ে চলে মানুষের জীবন। সাম্প্রতিককালে প্রকাশিত মনসুর আজিজের ‘জীবনবেলার বিকিকিনি’কে নদীকেন্দ্রিক উপন্যাস বলা চলে না, তবে এও সত্য, এ উপন্যাসে নদী এবং নদী তীরবর্তী মানুষের জীবন ঘনিষ্ঠ যে বর্ণনা আছে তাও উল্লেখ করার মতো নয়। আলোচ্য উপন্যাসে আমরা দেখি ‘জীবনবেলার বিকিকিনি’ তিনি শুরু করেছেন ১৯৯৪ সালে আর শেষ করেছেন ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে। প্রায় দু’দশক সময়, এমন দীর্ঘ সময় নিয়ে ধৈর্যসহকারে কেউ কেউ যে লিখেন না তা বলছি না, তবে এমন পরিশ্রমী লেখকের সংখ্যা হাতেগোনা কয়েকজন মাত্র।

বইটি প্রকাশ করেছে মুক্তদেশ প্রকাশন। প্রচ্ছদ এঁকেছেন মোমিন উদ্দীন খালেদ। মূল্য ১৫০ টাকা।

মাঠের যোদ্ধা চাই

‘মানুষকে কেবলমাত্র মানুষ হিসেবেই দেখা হবে। ধর্ম আর মতবাদের নামে কেউ কারও ওপর ছড়ি ঘোরাবে না, জোর খাটাবে না’Ñ এমন উপলব্ধি আর চেতনায় উজ্জীবিত মননের প্রতিচ্ছবিই তছলিম হোসেন হাওলাদারের প্রবন্ধগ্রন্থ ‘মাঠের যোদ্ধা চাই’। তিনি মূলত নিভৃতচারী কবি ও গল্পকার হলেও এ বইয়ে ভিন্নরূপে, সমাজসচেতন শিল্পী হিসেবে আমরা তাঁকে আবিষ্কার করি।

‘একাত্তর, উদ্বেলিত সময়ের স্মারক’ প্রবন্ধে আমরা লেখকের ব্যক্তিগত স্মৃতিকাতরতার সঙ্গে বর্তমান সময়ের বিস্মৃতি দেখি। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি, স্বাধীনতা বিরোধীদের ষড়যন্ত্র দৃশ্যে পীড়িত লেখক নিজের দায়বোধও এড়াতে পারেন না। তিনি লিখেছেনÑ ‘স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তির আজকের উত্থান আমরা লক্ষ্য করছি এক অর্থে তার জন্য আমরাই দায়ী। দায়ী আমাদের দুঃখজনক আত্মবিস্মৃতি।’

আলোচ্য গ্রন্থে কেবলি রাজনীতি ও সমাজসচেতন প্রবন্ধ স্থান পায়নি, পাশাপাশি স্থান পেয়েছে ধর্ম ও সাহিত্য সম্পর্কিত কিছু বিশ্লেষণধর্মী রচনা।

বইটির প্রচ্ছদ করেছেন অনন্ত আকাশ। প্রকাশ করেছে মুক্তদেশ প্রকাশন। মূল্য ১২০ টাকা।

ভুটান দার্জিলিং ও অন্যান্য ভ্রমণ

ভ্রমণ সাহিত্যে লেখক যত পারঙ্গমতার সঙ্গে স্থান-কাল-প্রকৃতিকে তুলে ধরতে পারবেন, পাঠকের অনুভব ততই প্রবল ও কল্পনামুখী হবে; এবং এ কল্পনায় ভর করে পাঠক লেখকের সঙ্গে বর্ণিত স্থানের সফরসঙ্গী হবেন, পরোক্ষভাবে ভ্রমণের আনন্দ লাভ করবেন। গাজী মুনছুর আজিজ এমনই একজন লেখক। তাঁর সম্পর্কে বলতে গিয়ে ইনাম আল হক লিখেছেনÑ ‘তিনি সোজা সরল কথা বলেন, সহজ ভাষায় লিখেন। ... এ দেশের কোন কিছুই তিনি তুচ্ছ মানেন না; যা চোখে দেখেন সবই লিখে যান। এ দেশের কাদামাটি, কৃষক, কুমার, তাঁতি, ফসলের জমি, বন, বাঁদর, মাছ, পাখি, পোকামাকড়Ñ এ সবেরই খণ্ডচিত্র তার বইয়ে স্থান পায়।’

মুনছুর আজিজ যা দেখেছেন তা খুটিয়ে খুটিয়ে লিখেছেন। অনুভব থেকে লিখেছেন। তার এই খুটিয়ে খুটিয়ে বর্ণনা, আনন্দ-উচ্ছ্বাসের প্রকাশÑ গ্রন্থটিকে ভিন্ন মাত্রা দিয়েছে।

বইটির প্রচ্ছদ করছেন দেওয়ান আতিকুর রহমান। প্রকাশ করেছে প্রান্ত প্রকাশন। মূল্য ১৪০ টাকা।

মুহাম্মদ ফরিদ হাসান

প্রকাশিত : ৩০ জানুয়ারী ২০১৫

৩০/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: