আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিং বরখাস্ত

প্রকাশিত : ৩০ জানুয়ারী ২০১৫

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ৩ দিনের ভারত সফর শেষ হওয়ার একদিন পরে মোদি সরকার বুধবার আকস্মিকভাবে পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিংয়ের কার্যকালের মেয়াদ হ্রাসের কথা ঘোষণা করেছে। এই সিদ্ধান্ত ‘অবিলম্বে কার্যকর’ হবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যুক্তরাষ্ট্রে ভারতের রাষ্ট্রদূত সুব্রামানিয়াম জয়শঙ্করকে নতুন পররাষ্ট্র সচিব নিয়োগ করেছে। সুজাতা সিংয়ের দু’বছরের মেয়াদ আগামী আগস্টে শেষ হওয়ার কথা ছিল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়োগ কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার পর এই অপ্রত্যাশিত ঘোষণা আসে। সুজাতার অবসর গ্রহণের নির্দিষ্ট সময়ের ৮ মাস আগে তাঁকে বরখাস্ত করা হচ্ছে একথা বলার এটি খুব মার্জিত ভঙ্গি নয়। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া, এক্সপ্রেস ট্রিবিউন ও এনডিটিভির।

নতুন পররাষ্ট্র সচিব জয়শঙ্ককর চাকরিতে সুজাতার চেয়ে এক বছরের জুনিয়র। ২৮ বছর আগে রাজীব গান্ধী এপি ভেংকটশরনকে অপসারণ করার পর সুজাতাকে প্রথম পররাষ্ট্র সচিব থেকে সৌজন্যহীনভাবে সরিয়ে দেয়া হলে জানা যায, প্রধানমন্ত্রী মোদি সুজাতার ব্যাপারেও তাঁর কাজে অসন্তুষ্ট ছিলেন এবং বিগত মাসগুলোতে তিনি তা গোপন রাখেন। কিছুদিন ধরে পররাষ্ট্র সচিব পদে পরিবর্তনের কথা শোনা যচ্ছিল। তবে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ সুজাতাকে রেখে দিতে চেয়েছিলেন।

জয়শঙ্করের নিয়োগ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ব্যাপক রদবদলের আভাস দেয়। গত ৬ মাসে সরকার কোন নতুন রাষ্ট্রদূত নিয়োগের বিষয়ে ছাড়পত্র দেয়নি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে সুপারিশ পাঠালেও প্রধানমন্ত্রীর দফতর অনুমতি দেয়নি। এর আংশিক কারণ প্রধানমন্ত্রী প্রথমে শীর্ষ পর্যায়ে পরিবর্তন আনতে চেয়েছিলেন। নতুন পররাষ্ট্র সচিব ড. জয়শঙ্কর (৬০) ভারতের শীর্ষস্থানীয় কৌশলগত বিশ্লেষক কে সুব্রামানিয়ামের পুত্র। ২০০৮-এ যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণু চুক্তি সম্পাদনে প্রতিনিধিদলে তিনি একজন মুখ্য সদস্য ছিলেন।

এদিকে, বিরোধী কংগ্রেস দল নতুন পররাষ্ট্র সচিব নিয়োগের সময় নির্বাসনে এবং মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার ৮ মাস আগেই তার পূর্বসূরি সুজাতার অপসারণের বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কংগ্রেস নেতা। মনীষ তেওয়ারি বৃহস্পতিবার সকালে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যদি পররাষ্ট্র সচিবের কাছে অসুখী হন তবে তিনি ৯ মাস আগেই কেন তাকে চলে যেতে বলেননি? এই সময় নির্বাচন প্রশ্নসাপেক্ষ। প্রেসিডেন্টের (ওবামা) সফরের জন্য কেন অপেক্ষা করা হয়েছে? এই সফরের সময় কী কিছু একটা ঘটেছে? প্রধানমন্ত্রীকে এর ব্যাখ্যা দিতে হবে। দায়িত্ব গ্রহণ করে নতুন পররাষ্ট্র সচিব বলেছেন, ‘এই বিরাট দায়িত্ব পেয়ে আমি সত্যিকারভাবে সম্মানিত বোধ করছি। আমার সর্বাগ্রে বিবেচিত বিষয় সরকারের বিবেচিত বিষয়ের অনুরূপ।’

প্রকাশিত : ৩০ জানুয়ারী ২০১৫

৩০/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: