মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ব্রিসবেনে অনুশীলনে সব ক্রিকেটার

প্রকাশিত : ২৯ জানুয়ারী ২০১৫
  • দ্বিতীয় দিনে যোগ দিলেন তামিম ইকবাল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপের উদ্দেশে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল অনুশীলন শুরু করেছে ১২ জানুয়ারি। দেশের মাটিতে সেই থেকেই দলের সবাইকে একসঙ্গে পাননি বাংলাদেশ দলের কোচ চন্দ্রিকা হাতুরাসিংহে।

দল যখন ব্রিসবেনে গেছে তখনও সব ক্রিকেটার একসঙ্গে ছিলেন না। যখন মঙ্গলবার দল অস্ট্রেলিয়ায় প্রথমদিনের অনুশীলন করল, তখনও সবাইকে মিলল না। বিগব্যাশ খেলে সাকিব দলের সঙ্গে যোগ দিলেও বাংলাদেশ ওপেনার তামিম ইকবাল যে যোগ দেননি। অবশেষে বুধবার তামিম দলের সঙ্গে যোগ দেয়ার মধ্য দিয়ে ব্রিসবেনে সব ক্রিকেটার একসঙ্গে হলেন।

বিশ্বকাপ খেলতে এখন বাংলাদেশ দল আছে ব্রিসবেনে। সেখানেই এ্যালান বর্ডার মাঠে চলছে অনুশীলন। বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো অনুশীলন করলেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। শনিবার ব্রিসবেনের উদ্দেশে দেশ ছেড়ে রবিবার রাতে পৌঁছে বাংলাদেশ দল। সোমবার বিশ্রাম নিয়ে মঙ্গলবার থেকে অনুশীলন শুরু করে দেয়। সেই অনুশীলনে সাকিব আল হাসান থাকলেও ছিলেন না তামিম। মেলবোর্নে তখন চিকিৎসা নিচ্ছিলেন এ ব্যাটসম্যান। অবশেষে বুধবার দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন।

ব্রিসবেনে দলের ব্যাটসম্যানরা যেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল জনসন, হ্যাজলউডদের পেয়েছেন। যখন নেট অনুশীলন হয়, তখন ব্যাটিংয়ে যে ব্যাটসম্যান থাকেন তার সামনে ভিডিওতে দেখানো হয় দৌড়ে বল করতে আসছেন জনসন কিংবা হ্যাজলউড। যেই বল ছুড়েন জনসন তখনই বোলিং মেশিন থেকে বল ব্যাটসম্যানের দিকে ছুড়ে যায়। ব্রিসবেনে ব্যাটসম্যানদের জন্য এমন আবহই তৈরি করা হয়। যেন দ্রুতগতি, বাউন্সি বল ছুড়ছেন জনসনরা এ অভ্যেস আগে থেকেই তৈরি হয়ে যায়।

দুই সপ্তাহ আগেই বাংলাদেশ দল অস্ট্রেলিয়ায় চলে যায়। উদ্দেশ্য, কন্ডিশনের সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নেয়া। সেই মানিয়ে নিতে যত খরচ হচ্ছে তা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকেই (বিসিবি) বহন করতে হচ্ছে। ৭ ফেব্রুয়ারির আগ পর্যন্ত বিসিবিকেই দলের সব খরচ বহন করতে হবে। তাই করছে বিসিবি। ব্রিসবেনে দল অবশ্য সুবিধাও পাচ্ছে। অর্থের বিনিময়ে জনসন, হ্যাজলউডদের মতো বোলারদের দিয়ে বল করানোর মতো আবহ তৈরি করার সুবিধা পাচ্ছে। যা ব্যাটসম্যানদের জন্য কাজেও দেবে।

এমনভাবেই দল ব্যাটিং-বোলিং করে যাবে। শনিবার পর্যন্ত চলবে এমন অনুশীলন। রবিবার দল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া একাদশের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। এরপর একই দলের বিপক্ষে মঙ্গলবার দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে অংশ নেবে। ৬ ফেব্রুয়ারি দল ব্রিসবেন থেকে সিডনিতে চলে যাবে। সেখানে গিয়ে আইসিসি তত্ত্বাবধানে থাকা শুরু হয়ে যাবে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের। সিডনিতে বাংলাদেশ দল দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। ৯ ও ১২ ফেব্রুয়ারি যথাক্রমে পাকিস্তান ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে অংশ নেবে দল। এরপর শুরু হয়ে যাবে বিশ্বকাপের মূল পর্বে নামার প্রস্তুতি মিশন। দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে দল চলে যাবে ক্যানবেরায়। যেখানে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ রয়েছে। ১২ ফেব্রুয়ারি প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ক্যানবেরায় নিজেদের ঝালাই করে নেয়ার সুযোগ পাবে বাংলাদেশ। ১৮ ফেব্রুয়ারিতেই আফগানদের বিপক্ষে বিশ্বকাপের লড়াইয়ে নেমে যেতে হবে। সেই সঙ্গে বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন পূরণ করার মিশনও শুরু হয়ে যাবে।

এ মিশনে ভালভাবেই থাকছেন তামিম ইকবাল। মেলবোর্নে ড. ডেভিড ইয়াংকে অস্ত্রোপচার করা হাঁটুর সর্বশেষ অবস্থা দেখিয়েছেন তামিম। একটি ইনজেকশন দেয়া বাকি ছিল। সেটিও নিয়েছেন। তামিমের হাঁটুর অবস্থার উন্নতিতেও নাকি সন্তুষ্ট ইয়াং।

দলের সঙ্গে তামিম পুরোদমে অনুশীলনও করবেন। ব্রিসবেনে প্রস্তুতি ম্যাচে না খেললেও সিডনিতে আইসিসির নির্ধারিত দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে খেলতে পারেন তামিম।

প্রকাশিত : ২৯ জানুয়ারী ২০১৫

২৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: