কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ম্যানইউতে ভ্যান পার্সির ভবিষ্যত অনিশ্চিত!

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বড় স্বপ্ন নিয়েই আর্সেনাল ছেড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে নাম লেখান রবিন ভ্যান পার্সি। ওল্ডট্রাফোর্ডে এসে শুরুর দিকে ছিলেন দারুণ ছন্দে। কিন্তু গত মৌসুমের শেষ দিক থেকে পড়তি ফর্মের মধ্যে আছেন হল্যান্ডের এই তারকা স্ট্রাইকার। যে কারণে ক্লাবে তার অবস্থান নড়বড়ে হতে শুরু করেছে! ইতোমধ্যে তো ম্যানইউ কোচ লুইস ভ্যান গাল হরহামেশাই সমালোচনা করছেন ভ্যান পার্সির। এসব কারণে রেড ডেভিলসে তার ভবিষ্যত অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। মঙ্গলবার এক সাক্ষাতকারে স্বয়ং পার্সিই এই শঙ্কার কথা জানিয়েছেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে ২০১৬ সালের জুন পর্যন্ত চুক্তি আছে হল্যান্ড অধিনায়ক ভ্যান পার্সির। এর আগে ২০১৪ সালের নবেম্বরে চুক্তি নবায়নের ইঙ্গিত দিয়েছিল ম্যানইউ। কিন্তু এখন পর্যন্ত তা হয়নি। বর্তমান চুক্তি অনুযায়ী পার্সির সাপ্তাহিক বেতন ৩ লাখ ১৯ হাজার ইউরো। তবে চুক্তি নবায়ন হলে তা নেমে দাঁড়াবে ১ লাখ ২৭ হাজার ইউরোতে। এমনটিই জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। সাক্ষাতকারে পার্সি বলেন, ওল্ডট্রাফোর্ড ছাড়ার চিন্তা এখন নেই। চুক্তি অনুযায়ী আরও ১৮ মাস ম্যানইউর হয়ে খেলব। তার পরে কি হবে তা এ মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়। সময় এলেই সব বোঝা যাবে। তবে দীর্ঘমেয়াদে ম্যানইউর হয়ে খেলতে পারব কিনা তা নিশ্চিত নই। নিজের পারফর্মেন্সের মূল্যায়ন করে পার্সি বলেন, এটা অবশ্যই ঠিক যে আমি নিজের সেরা ফর্মে নেই। গোল পাচ্ছি না প্রয়োজনমত। তিনি আরও বলেন, সবাই সবার দায়িত্ব সম্পর্কে সজাগ বলেই আমি মনে করি। আমার ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম নই। এই বছরে আমি ২০ ম্যাচ খেলেছি গোল করেছি ৮টি। এতে আমি সুখী নই। আমি আরও গোল করতে চাই। ২০১২ সালে ২৪ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে আর্সেনাল ছেড়ে ম্যানইউতে পাড়ি জমান পার্সি। রেড ডেভিলসদের হয়ে এখন পর্যন্ত ৯৩ ম্যাচ খেলে ৫৬ গোল করেছেন ৩১ বছর বয়সী এ তারকা। ম্যানইউতে আসার পর আর্সেনালে থাকাকালীন ছন্দ ধরে রাখতে সক্ষম হন তিনি। যে কারণে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তারকা এই স্ট্রাইকার টানা দ্বিতীয়বারের মতো ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার ‘গোল্ডেন বুট’ জয় করেন। প্রিমিয়ার লীগের ২০১১-১২ মৌসুমের পর ২০১২-১৩ মৌসুমের সেরা গোলদাতাও হন ডাচ তারকা। ২০১২-১৩ মৌসুমে ম্যানইউর হয়ে ৩৮ ম্যাচে ২৬ গোল করেন পার্সি। দুটি হ্যাটট্রিকসহ গোলগুলো করেন সাবেক গানার্স তারকা। ভ্যান পার্সির হ্যাটট্রিকের সুবাদে ৩-০ গোলে এ্যাস্টন ভিলাকে হারিয়ে চার ম্যাচ হাতে রেখে ২০তম লীগ শিরোপা নিশ্চিত করেছিল ম্যানইউ। ওই ম্যাচে তার দুর্দান্ত ভলি থেকে করা গোলটি ম্যানইউর মৌসুমের সেরা গোলও নির্বাচিত হয়। এর আগের মৌসুমে আর্সেনালের হয়ে ৩০ গোল করে ‘গোল্ডেন বুট’ জিতেছিলেন পার্সি। মূলত পার্সির অনবদ্য নৈপুণ্যে ভর করেই রেকর্ড ২০তম লীগ শিরোপা জিতেছিল ম্যানইউ। এরপর থেকেই ছন্দপতন শুরু রেড ডেভিলসদের। দলের সঙ্গে ফর্ম হারিয়ে বসেন পার্সি নিজেও। যে কারণে দল ও নিজে সম্প্রতি ব্যর্থতার মধ্যে আছে। অথচ একটা সময় ছিল, প্রতি ম্যাচে গোল পাওয়া যেন অভ্যাসে পরিণত করেছিলেন ভ্যান পার্সি। আর্সেনাল ছেড়ে আরেক জায়ান্ট ম্যানইউতে যোগ দেয়ার পর আরও বেশি দুর্বার, দুরন্ত ছিলেন হল্যান্ডের এই স্ট্রাইকার। ওল্ডট্রাফোর্ডে আস্তানা গাড়ার পর মানিয়ে নিতে খুব বেশি সময় নেননি।

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০১৫

২৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: