কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

দুইদিন পর পুঁজিবাজারে সূচক বাড়ল

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ টানা দুইদিন সূচকের পতনের পর মঙ্গলবার পুুঁজিবাজারে দরবৃদ্ধি ঘটেছে। গত কিছুদিনের দরপতনের ফলে বেশিরভাগ কোম্পানির দর অনেক কমে যাওয়ায় অনেকে শেয়ারের ক্রয়াদেশ বাড়িয়েছেন। প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তি পর্যায়ের বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বাড়ার কারণেই প্রধান বাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জের সব ধরনের সূচকই বেড়েছে প্রায় ১ শতাংশের উপরে। সকালে পতনের মধ্যদিয়ে লেনদেন শুরু হলেও দিনশেষে সূচকের উর্ধগতি দেখা গেছে। একই সঙ্গে ডিএসইর লেনদেন আগের দিনের চেয়ে প্রায় ৫ শতাংশ বেড়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, আগের দিনের ধারাবাহিকতায় সকালে সূচকের নেতিবাচক প্রবণতা ছিল। একপর্যায়ে বেশিরভাগ কোম্পানির দর আরও কমতে থাকলে দিনশেষে ডিএসইর সার্বিক সূচক আগের দিনের চেয়ে ৪৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৭৫৭ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩০৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ২১৭টির, কমেছে ৫৮টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টি কোম্পানির শেয়ার দর। সেখানে লেনদেন হয়েছে ২১৫ কোটি ১৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। সোমবার ডিএসইর সার্বিক সূচকটির অবস্থান ছিল ৪ হাজার ৭০৮ পয়েন্টে। ওইদিন সেখানে লেনদেন হয়েছিল ২০৪ কোটি ৩৬ লাখ ৪৩ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। সেই হিসাবে মঙ্গলবার ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১০ কোটি ৮১ লাখ ২১ হাজার টাকা বা ৫.২৯ শতাংশ।

বিগত কয়েক দিন ধরে ক্রমাগত কমছে মূল্যসূচক ও টাকার অঙ্কে দৈনিক লেনদেনের পরিমাণ। এর ফলে অধিকাংশ শেয়ারের দর কমে গেছে। এমন পরিস্থিতিতে অনেকে কম দরে শেয়ার কেনার সুযোগ নিয়েছেন। এ সুযোগে বিক্রেতারা কিছুটা বেশি দর দাবি করেছেন। ফলে অধিকাংশ শেয়ার আগের দিনের চেয়ে কিছুটা বেশি দরে কিনতে হয়েছে ক্রেতাদের।

মঙ্গলবার ডিএসইর সেরা-২০ তালিকায় থাকা কোম্পানিগুলোর মোট ১০০ কোটি ৮৩ লাখ ৯৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ৪৬.৮৬ শতাংশ। এদিন ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি শেয়ার লেনদেন হয়েছে সিএ্যান্ডএ টেক্সটাইলের। দিনভর এ কোম্পানির ৫৫ লাখ ৮১ হাজার ৮২৫টি শেয়ার ১৩ কোটি ৬৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকায় লেনদেন হয়েছে, যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ৬.৩৪ শতাংশ।

এছাড়া জিএসপি ফাইন্যান্সের ৯ কোটি ৭ লাখ, গ্রামীণফোনের ৮ কোটি ৯৪ লাখ, সামিট এ্যালায়েন্স পোর্টের ৬ কোটি ২৯ লাখ, আইডিএলসির ৬ কোটি ৮ লাখ, সাইফ পাওয়ারটেকের ৫ কোটি ৬০ লাখ, লাফার্জ সুরমা সিমেন্টের ৪ কোটি ৭৪ লাখ, সিভিও পেট্রো কেমিক্যালের ৪ কোটি ৪৯ লাখ, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের ৪ কোটি ১৯ লাখ এবং অগ্নি সিস্টেমসের ৪ কোটি ১৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

দিনশেষে অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক ৭৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৮ হাজার ৮২১ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৩০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৫৩টির, কমেছে ৫৩টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টি কোম্পানির। সেখানে লেনদেন হয়েছে ২১ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ২০ কোটি ২৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। সে হিসাবে মঙ্গলবার সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১ কোটি ২৩ লাখ টাকা।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলোÑ সিএ্যান্ডএ টেক্সটাইল, জিএসপি ফাইন্যান্স, ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেড, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, সামিট এ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেড, অলটেক্স, বেক্সিমকো, সাইফ পাওয়ারটেক, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট ও সামিট পাওয়ার।

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০১৫

২৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: