মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কন্ডিশনের সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নেয়ার পালা শুরু

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০১৫
কন্ডিশনের সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নেয়ার পালা শুরু
  • অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট একাদশের বিপক্ষে রবি ও মঙ্গলবার দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের মিশন শুরু হতে আরও ২১ দিন বাকি। কিন্তু দুই সপ্তাহ আগেই অস্ট্রেলিয়ায় চলে গেছে দল। লক্ষ্য একটিই, কন্ডিশনের সঙ্গে যত দ্রুত পারা যায় নিজেদের মানিয়ে নেয়া। খেলতে নামার আগে কন্ডিশন জয় করা। সেই কন্ডিশন জয়ের মিশনই শুরু করে দিয়েছে মাশরাফিবাহিনী। মঙ্গলবার থেকে পুরোদমে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে। ব্রিসবেনের এ্যালান বোর্ডার মাঠে অনুশীলন করেছে।

অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে শনিবার দেশ ছাড়ে বাংলাদেশ দল। রবিবার রাতে গিয়ে ব্রিসবেনে পৌঁছে দল। সোমবারই অনুশীলনের কথা ছিল। কিন্তু দীর্ঘ ভ্রমণ ক্লান্তিতে একদিন বিশ্রাম পেয়েছেন দলের ক্রিকেটাররা। সোমবার বিশ্রাম শেষে মঙ্গলবারই অনুশীলন শুরু করে দিয়েছেন মাশরাফি, মুশফিকরা। তবে সোমবার অনুশীলন না হলেও ‘টিম মিটিং’ ঠিকই হয়েছে। যেখানে ক্রিকেটারদের দায়িত্ব সম্পর্কে ভালভাবে জানিয়ে দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে জিম আর পুল সেশনে কাটিয়েছেন দলের ক্রিকেটাররা। এরপর দুপুরে ব্যাটিং-বোলিংয়ের অনুশীলন হয়েছে। তামিম ইকবাল চিকিৎসার জন্য মেলবোর্নে থাকায় বাংলাদেশ ওপেনার ছাড়া বাকি সবাই দলের সঙ্গে আছেন। অনুশীলনেও যোগ দিয়েছেন। অনুশীলনে স্বাভাবিকভাবেই যা হয় সবাইকে একত্রে দাঁড় করিয়ে কোচ শিষ্যদের বুঝিয়ে দেন কিভাবে অনুশীলন পর্বটি চলবে। তাই হয়েছে ব্রিসবেনে অনুশীলনের প্রথম দিনে। কোচ চন্দ্রিকা হাতুরাসিংহে সবাইকে শুরুতেই বুঝিয়ে দিলেন কখন, কোন অনুশীলন পর্বটি হবে। এরপর এক এক করে ক্রিকেটাররা অনুশীলন করতে শুরু করে দেন।

শুরুতেই রানিং করে শরীরটাকে একটু চাঙ্গা করে নেন ক্রিকেটাররা। এরপর ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং শুরু হয়ে যায়। বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক পেসারদের নিয়ে আলাদা সেশনে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। যেখানে মাশরাফি, তাসকিন, রুবেল, আল আমিনরা নিজেদের ঝালিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন। স্পিনাররাও নিজেদের দক্ষতা ভালভাবে বুঝে নেন। বাংলাদেশের উইকেটে ঘাস ছড়িয়ে দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার উইকেটের আবহ তৈরি করে বোলিং অনুশীলন করানো হয়েছে। ব্রিসবেনে গিয়ে সেই রকম উইকেটই মিলেছে। এ উইকেটে নিজেদের কিভাবে সামলে নিয়ে বোলিং করা যায় তাই দেখেছেন বোলাররা। আর দলের ব্যাটসম্যান মুমিনুল হক, নাসির হোসেনরা পেসার, স্পিনারদের বল খেলে গেছেন। এমন উইকেটে ব্যাটিংটা কিভাবে করলে ভাল হবে তা দেখে নিয়েছেন।

কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার সঙ্গে উইকেটের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার পর্ব শনিবার পর্যন্ত চালিয়ে যাবে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। এরপর রবি ও মঙ্গলবার অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট একাদশের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ দল। এ প্রস্তুতি ম্যাচ দুটি শেষে দুই একদিন ব্রিসবেনেই কাটাতে হবে। ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আইসিসি নিয়ন্ত্রণে চলে যাবে দল।

এর আগেই সিডনিতে চলে যাবেন মাশরাফিরা। সিডনিতে এক-দুইদিন অনুশীলন শেষেই ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে পাকিস্তানের বিপক্ষে আইসিসি নির্ধারিত প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। শুরু হয়ে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেটারদের বিশ্বকাপ উত্তাপ। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার পর ১২ ফেব্রুয়ারি আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আরেকটি প্রস্তুতি ম্যাচ রয়েছে বাংলাদেশের। এ ম্যাচটি শেষেই বিশ্বকাপের মূল পর্বে নামার জন্য প্রস্তুতি শুরু হয়ে যাবে। সিডনি পর্ব শেষ হয়ে যাবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচটি শেষ হতেই। দল চলে যাবে ক্যানবেরায়। যেখানে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১৮ ফেব্রুয়ারি বিশ্বকাপের মূল পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। শুরু হয়ে যাবে বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার মিশনও।

এ মিশনে সফল হতেই দুই সপ্তাহ আগেই বাংলাদেশ দল অস্ট্রেলিয়া যাত্রা করেছে। যেন কন্ডিশন ও উইকেট সম্পর্কে ভালভাবে জেনে নিতে পারে। এ মিশন জয় করার চেষ্টার শুরু হয়ে গেছে। ব্যাটিং-বোলিং সব ধরনের অনুশীলনই শুরু হয়ে গেছে।

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০১৫

২৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: