মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চেলসি পরিবারে থাকতে চান দ্রগবা

প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারী ২০১৫
চেলসি পরিবারে থাকতে চান দ্রগবা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আন্তর্জাতিক ফুটবলকে গত বছরই বিদায় জানিয়েছেন। তবে ক্লাব ফুটবলের মজাটা এখনও ছাড়তে চাননি আইভোরি কোস্টের স্ট্রাইকার দিদিয়ের দ্রগবা। ৩৬ বছর বয়সী এ তারকা ফুটবলার আবারও ফিরেছেন ইংল্যান্ডে তার পুরনো ঠিকানা চেলসিতে। অবসরের ঘোষণা দেয়ার ঠিক এক মাস আগেই চেলসি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল ফ্রি ট্রান্সফারে তুরস্কের ক্লাব গালাতাসারে থেকে ১ বছরের চুক্তিতে আবার স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে যোগ দিচ্ছেন দ্রগবা। সম্প্রতিই তিনি পেয়েছেন ফুটবল রাইটার্স এ্যাসোসিয়েশনের সম্মানসূচক পুরস্কার পেয়েছেন। আর লন্ডনের একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত আয়োজনে দ্রগবা জানান তিনি মনেপ্রাণেই চেয়েছিলেন এবার চলমান ইংলিশ মৌসুমের শেষ পর্যন্ত চেলসি পরিবারের সদস্য হিসেবে থাকতে।

দীর্ঘ আট বছর চেলসির হয়ে খেলেছিলেন দ্রগবা। দলকে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জিতিয়েছিলেন ২০১২ সালে। এরপরই সবাইকে বিস্মিত করে ইংল্যান্ড ছেড়ে তিনি পাড়ি জমান চীনে, যোগ দেন সাংহাই শিনহুয়াতে। তবে চীনে অবস্থানটা সুখকর হয়নি তার জন্য। পরের বছর তুরস্কের ক্লাব গালাতাসারের হয়ে খেলেছেন। শেষ পর্যন্ত তারা ফ্রি ট্রান্সফারে সম্মত হয়েই চেলসির কাছে এবার ছেড়ে দিয়েছে দ্রগবাকে। গত বছর জুলাইয়ে নতুন মৌসুম শুরুর আগেই তিনি স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ফেরেন। এ বিষয়ে তখন তিনি বলেছিলেন, ‘এটা খুবই সহজ সিদ্ধান্ত ছিল আমার জন্য। আমি আবার জোশে মরিনহোর সঙ্গে কাজ করার সুযোগটা কোনভাবেই ফেলে দিতে পারিনি।’ মরিনহো নিজেও এ ট্রান্সফারে সন্তোষ জানিয়ে বলেন, ‘তিনি আবার আসছেন কারণ ইউরোপের সেরা স্ট্রাইকার তিনি। অবশ্যই নতুন কোন ইতিহাস গড়ার জন্যই আসছেন তিনি।’ ২০০৪ সালে চেলসিতে যোগ দেয়ার পরই তার গায়ে উঠেছিল ১৫ নম্বর জার্সি, আবারও সেটা পেয়েছেন দ্রগবা। মরিনহো প্রথমবার যখন চেলসির দায়িত্বে ছিলেন তিনি দ্রগবাকে ২৪ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে মার্শেই থেকে কিনে এনেছিলেন। তবে বর্তমান চুক্তির এক বছরের মেয়াদও শেষ হওয়ার পথে। এক বছরের চুক্তি শেষ হয়ে যাবে এবার মৌসুম শেষ হলেই। এ বিষয়ে চেলসি কর্তৃপক্ষও তেমন কিছু বলেনি। তবে দ্রগবা নিজেই জানিয়েছেন স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে তার থাকার ইচ্ছাটা।

বর্তমান মৌসুমের অভিযান শেষ হয়ে গেলেও তিনি থাকতে চান চেলসিতেই, সেটা খেলোয়াড় হিসেবে হোক কিংবা অন্য কোনভাবে। দ্রগবা বলেন, ‘যখন কেউ অনেক বেশি অর্জন করে এবং অনেক বেশি শিরোপা জয় করে, যেমনটা আমরা গত ১০ বছর ধরে করেছি। সেটা বিশেষ এক অনুভূতির সৃষ্টি করে।’ তবে এফএ কাপে তৃতীয় পর্যায়ের ক্লাব ব্র্র্যাডফোর্ড সিটির কাছে চেলসির ৪-২ গোলে পরাজয় ঠেকাতে পারেননি দ্রগবা। সেটি ছিল এফএ কাপ ইতিহাসের অন্যতম একটি অঘটন। তবে এসব নিয়ে চিন্তা করছেন না এ আইভোরিয়ান। তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি এবং ক্লাবও আমার মধ্যে একটা বিশ্বাসের জন্ম দিয়েছে যে আমি এই বিরাট পরিবারের একজন সদস্য। তাই আমরা সবাই মিলে সবচেয়ে ভাল উপায়ে ক্লাবের জন্য সবচেয়ে ভাল কাজটাই করতে উন্মুখ। যখন আমি এই ক্লাব ছেড়ে গিয়েছিলাম তখন বলেছিলাম আমার যতটুকু সম্ভব ছিল আর যতটা করতে চেয়েছি সবকিছুই করেছি। তবে এখন আমি চিন্তা করছি যে আসলে সবকিছু করা হয়নি, মনে হয় আরও অনেক কিছুই করার আছে। আমি এই ক্লাবকে ভালবাসি এবং এ ক্লাবের অংশ হিসেবে ভবিষ্যতেও থাকতে পারলে খুব আনন্দিত থাকব।’

প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারী ২০১৫

২৭/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: