মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

গাজীপুরে কারখানায় আগুন

প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারী ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ২৬ জানুয়ারি ॥ উদ্বোধনের মাসখানেকের মধ্যেই গাজীপুরের একটি কারখানায় সোমবার ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট প্রায় আড়াই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও বিকেল পর্যন্ত পুরোপুরি নেভাতে পারেনি। বিপুল পরিমাণ কাপড় ও সুতাসহ বিভিন্ন মালামাল আগুনে পুড়ে গেছে।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আক্তারুজ্জামান লিটন জানান, গাজীপুর সদর উপজেলার ভবানীপুর বানিয়ারচালা এলাকার ফরমোসা পলিকটন লিমিটেড (বিডি) কারখানায় সোমবার অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। কারখানাটিতে ফেব্রিকস তৈরি করা হয়। সোমবার দুপুর ১টার দিকে ওই কারখানার দোতলা ভবনের নিচতলার গোডাউনে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। আগুন গোডাউনে রাখা গ্রে-ফেব্রিক্স ও সুতাসহ বিভিন্ন মালামালে ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তেই তা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। খবর পেয়ে জয়দেবপুর ও শ্রীপুরের মাওনা ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিটসহ স্থানীয়রা প্রায় আড়াই ঘণ্টা চেষ্টার পর বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও পুরোপুরি নেভাতে পারেনি। আগ্নিকাণ্ডের প্রকৃত কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

কারখানা বন্ধ ঘোষণা ॥ এদিকে শ্রীপুরে শ্রমিক অসন্তোষের মুখে সোমবার হতে একটি কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। গাজীপুর শিল্প পুলিশের ইন্সপেক্টর শওকত কবির ও শ্রমিক সূত্রে জানা যায়, শ্রীপুর উপজেলার এমসি বাজার (মুলাইদ) এলাকার তামিশনা ফ্যাশনওয়্যার লিমিটেডের কয়েকজন শ্রমিক বাৎসরিক বোনাসের দাবিতে বৃহস্পতিবার কারখানার কোয়ালিটি ইনচার্জকে মারধর করে। এ ঘটনায় শনিবার কারখানার নিটিং অপারেটর বাদশা, রুস্তম, শাহীন, রহিম ও কামিলকে সাময়িক বরখাস্ত করে কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে শ্রমিকরা রবিবার দিনভর কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ করে। একপর্যায়ে শ্রমিক অসন্তোষের মুখে ওই কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে রাতে গেটে নোটিস টাঙিয়ে দেয় কারখানা কর্তৃপক্ষ। সোমবার শ্রমিকরা কারখানার গেটে এসে বন্ধের নোটিস দেখতে পেয়ে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। এ সময় তারা গেটের সামনে বিক্ষোভ শুরু করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সৈয়দপুর মার্কেটে অগ্নিকাণ্ড,

ক্ষতি ৬ কোটি টাকা

স্টাফ রিপোর্টার নীলফামারী থেকে জানান, নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের রেলওয়ে বাজার কাপড় মার্কেটে অর্ধশত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে গেছে। রবিবার রাত সোয়া দুইটার দিকে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। প্রায় ৪ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে নীলফামারী, সৈয়দপুর, পার্বতীপুর, ডোমারের ৪টি ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের কর্মীরা সোমবার ভোর ৬টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সৈয়দপুর সেনানিবাসের সেনাসদস্যরাও অংশ নেন। তবে পানির অভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্মীদের হিমশিম খেতে হয়েছে। আগুনে ৫১টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৬ কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কাপড় মার্কেটের জুবায়ের গার্মেন্টসের দোকান থেকে বিদ্যুতের শর্টসার্কিট হতে আগুনের সূত্রপাত। ঢেউটিনের চালায় কাপড়ের দোকান হওয়ায় আগুনের শিখা মার্কেটের অন্যান্য দোকানে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে কাপড় মার্কেটে আগুন লাগার কথা প্রচার করে তা নিয়ন্ত্রণে সকলের সহযোগিতা চাওয়া হয়। পাশাপাশি খবর দেয়া হয় নীলফামারী, সৈয়দপুর, পার্বতীপুর, ডোমারের ৪টি ফায়ার সার্ভিস ইউনিটকে। এ সময় কিছু লুটপটের ঘটনাও ঘটে বলে অভিযোগে উঠেছে। এদিকে এলাকাবাসী অভিযোগ করেন সৈয়দপুর শহরের জলাধারগুলো প্রভাবশালী কর্তৃক দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ করায় চরম পানি সঙ্কটের কারণে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খেতে হয়। সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিস দফতরের স্টেশন অফিসার ওয়াদুদ জানান, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) শফিউল ইসলাম জানান, ক্ষতিগ্রস্তদের সাথে কথা বলে হিসাব করে দেখা যায় আগুনে ৫১টি দোকানের ৫ কোটি ৭০ লাখ ৪০ হাজার টাকার কাপড় ও আসবাবপত্র ভস্মীভূত হয়েছে।

প্রকাশিত : ২৭ জানুয়ারী ২০১৫

২৭/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: