মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সরস্বতী পুজো আজ

প্রকাশিত : ২৫ জানুয়ারী ২০১৫

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ আজ সরস্বতী পুজো, বাণী অর্চনার আরাধ্য দিন। শুক্লা পঞ্চমীতে আজ রবিবার শ্বেতশুভ্র কল্যাণময়ী বিদ্যাদেবীর আবাহন হবে। ঢোল-কাঁসি আর শঙ্খনিনাদে মুখরিত হয়ে উঠবে দেশের পুজোম-প। ভোর থেকেই মঙ্গলালোকে উদ্ভাসিত ধূপ-ধুনোর গন্ধে মাতোয়াড়া ধরনিতে বেজে উঠবে শান্তির মোহনীয় সুর।

সনাতন ধর্মানুসারে সরস্বতী দেবী বিদ্যা ও জ্ঞানের দেবী বলে আজ অধিকাংশ স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে বাড়িতে অনুষ্ঠিত হবে বিদ্যাদেবীর পুজো। শিশুসন্তানরা পুজোর পর দেবীর সামনে হাতেখড়ি দিয়ে প্রবেশ করবেন শিক্ষা জীবনে। শিক্ষার্থীরা উপোস করে সরস্বতী দেবীর চরণে পুষ্পাঞ্জলি দিয়ে তাঁর আশীর্বাদ নেবেন।

সরস্বতী বিদ্যার ও ললিতকলার অধিষ্ঠাত্রী দেবী হিসেবে পূজিত হবেন। ঐশ্বর্যদায়িনী, বুদ্ধিদায়িনী, জ্ঞানদায়িনী, সিদ্ধিদায়িনী, মোক্ষদায়িনী এবং শক্তির আধার হিসেবে সরস্বতী দেবীর আরাধনা করা হয়।

সরস্বতী দেবী শ্বেতশুভ্র বসনা। তাঁর এক হাতে বেদ, অন্য হাতে বীণা। এজন্য তাঁকে বীণাপাণিও বলা হয়। কুসংস্কার, গোঁড়ামি, অন্ধবিশ্বাস এবং ধর্মীয় সঙ্কীর্ণতার অবসান ঘটিয়ে জ্ঞানচক্ষুর উন্মিলনের মাধ্যমে সুন্দরের পথে মানবকুলকে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যাশায় হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ প্রতিবছর শ্রী পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী পুজো করে থাকেন।

আজ সকাল হতে উপবাস থেকে মন্ত্র উচ্চারণের মাধ্যমে ভক্তরা প্রার্থনা জানাবেন বিদ্যাধিষ্ঠাত্রীর। হিন্দু সম্প্রদায়ের কাছে সরস্বতী জ্যোতির্ময়ী অধিষ্ঠাত্রী দেবী। তিনি বাগদেবী। সরস্বতী নদীর তীরে দেবীর স্তোত্র ও আরাধনার মাধ্যমে বেদধ্বনি হতো বলে এই নদী বাগদেবীর বাসস্থান বলে অভিহিত। নদী অর্থে তিনি পবিত্র তোয়া সঙ্গীতময় ও সুন্দর স্তোত্রের উদ্বোধনকারী। বাগদেবী অর্থে তিনি মানবহৃদয়কে পবিত্র করেন। তিনি সুন্দর ও মর্ত্যবাক্যের প্রেরয়িত্রী। তিনি মহাসমুদ্রের মতো পরমাত্মার প্রকাশ করেন। তিনি সমুদয় মানব-মানবীর হৃদয়ে জ্যোতি সঞ্চারিত করেন। পরমাত্মার মুখ থেকে তাঁর আবির্ভাব।

দেবী সরস্বতী শুক্লবর্ণ, বাণীধারী ও চন্দ্রের শোভাযুক্ত। তিনি শ্রুতি ও শাস্ত্রের মধ্যে শ্রেষ্ঠ, কবিদের ঈষ্ট- এ জন্য তাঁর নাম সরস্বতী। মাঘ মাসের শুকা¬ পঞ্চমী দিন অর্থাৎ আজ রবিবার তাঁর আরাধনার শুভ দিন।

সনাতন ধর্মানুসারে সরস্বতী দেবী বিদ্যা ও জ্ঞানের দেবী বলে আজ দেশের অধিকাংশ স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিদ্যার্থীদের বাড়িতে বাড়িতে, ম-প-মন্দিরে ভক্তিভরে অনুষ্ঠিত হবে সরস্বতী পুজো। সনাতন ধর্মাবলম্বীরা মেতে উঠবেন সরস্বতী পুজোর আনন্দে। প্রতিবছরের মতো এবারও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে সরস্বতীর পুজোর মহাআয়োজন চলছে। চারুকলা বিভাগ এবারও হলের পুকুরের মাঝখানে দৃষ্টিনন্দন ভাসমান ম-প গড়ে তুলেছে।

দেশের ইতিহাসে এবারই প্রথম জাতীয় সংসদও আয়োজন করেছে সরস্বতী পুজোর। সংসদের মেডিক্যাল সেন্টারের সামনে এ পুজো অনুষ্ঠানের কথা থাকলেও আইন-শৃঙ্খলার কথা ভেবে সংসদ ভবন থেকে সরিয়ে রাজধানী স্কুল মাঠে জাতীয় সংসদের পক্ষ থেকে এ পুজো অনুষ্ঠিত হবে। এক মাস ধরে জাতীয় সংসদেই পুজোর প্রস্তুতি, আমন্ত্রণপত্র বিলি এবং পুজোম-প স্থাপনের পরও কেন হঠাৎ স্থান পরিবর্তন করা হলো এমন প্রশ্নে সংসদ সচিবালয়ের একাধিক কর্মকর্তা জানান, আইন-শৃঙ্খলার কথা বিবেচনা করেই শেষ পর্যন্ত সংসদ ভবনের অভ্যন্তরে সরস্বতী পুজো বাতিল করা হয়েছে। পুজোর সুযোগ নিয়ে সংসদ ভবনে যাতে কেউ প্রবেশ করে নাশকতা চালাতে না পারে সেজন্যই সংসদ ভবনের পরিবর্তে রাজধানীর স্কুল মাঠে এ পুজোর আয়োজন করা হয়েছে।

সরস্বতী পুজো উপলক্ষে হিন্দু সম্প্রদায়ের সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে প্রদত্ত বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ ঐতিহ্যগতভাবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ।

ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে আবহমানকাল ধরে এ দেশের সকল মানুষ মিলেমিশে বসবাস করে আসছেন। তিনি বলেন, দেবী সরস্বতী সত্য, ন্যায় ও জ্ঞানালোকের প্রতীক। বিদ্যা, বাণী ও সুরের অধিষ্ঠাত্রী। তিনি হিন্দু সম্প্রদায়ের সকলকে জ্ঞানার্জনে ব্রতী হয়ে দেশ গঠনে আত্মনিয়োগের আহ্বান জানান।

প্রকাশিত : ২৫ জানুয়ারী ২০১৫

২৫/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: