মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ঢাকার ওপর চাপ কমাতে মুন্সীগঞ্জে গার্মেন্টস শিল্পপার্ক হচ্ছে

প্রকাশিত : ২৫ জানুয়ারী ২০১৫
  • আজ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে জরুরী বৈঠক

এম শাহজাহান ॥ ঢাকার ওপর চাপ কমাতে মুন্সীগঞ্জে গড়ে তোলা হচ্ছে গার্মেন্টস শিল্পপার্ক। এই শিল্পপার্ক তৈরি হওয়ার পর সেখানে স্থানান্তরিত হবে প্রায় ১ হাজার পোশাক কারখানা। শতভাগ কমপ্লায়েন্স কারখানা গড়ে তোলা হবে এই শিল্পপার্কে। তৈরি হবে বিশ্বমানের পোশাক। বিদেশী ক্রেতারা বড় বড় অর্ডার নিয়ে ছুটে আসবেন এখানে। এ কারণে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার বাউশিয়ার দিকে নজর এখন গার্মেন্টস শিল্পমালিকদের। রফতানিতে শীর্ষে থাকা এ শিল্পখাতটি যাতে আরও দ্রুত বাজার সম্প্রসারণে সক্ষম হয় সেজন্য সরকারের পক্ষ থেকেও সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে উদ্যোক্তাদের। আগামী বছরের মধ্যে প্রকল্পটি চালু করার চেষ্টা করছে সরকার। এজন্য পোশাক রফতানিকারকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ প্রস্তুত রয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে আগামী জুন মাসের মধ্যে পুরো টাকা পরিশোধ করবে বিজিএমইএ। খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

জানা গেছে, ঢাকা থেকে ৩৭ কিলোমিটার দূরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়ার উপজেলার বাউশিয়া, পোরোর চর, কাইচখালী চৌদ্দকাছমিয়া, মৌজার ৪৯২ একর জমির ওপর গার্মেন্টস শিল্পপার্ক স্থাপন করার লক্ষ্যে জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে বিজিএমইএ’র নিকট হস্তান্তরের অপেক্ষায় আছে। পার্কটি উন্নয়নের জন্য গত বছরের ১৪ জুন প্রধানমন্ত্রীর চীন সফরের সময় তার উপস্থিতিতে চীনের একটি স্বনামধন্য কোম্পানি ওরিয়েন্ট ইন্টারন্যাশনাল হোল্ডিংস লিমিটেড (ওআইসি) ও বিজিএমইএ’র মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। ওই সমঝোতার ভিত্তিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ওআইসিকে ডেভেলপার হিসেবে নিয়োগ প্রদানের জন্য অনাপত্তিপত্র প্রদান করা হয়। এছাড়া সমঝোতা চুক্তির ভিত্তিতে গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর একটি ফ্রেমওয়ার্ক এগ্রিমেন্ট স্বাক্ষরিত হয়। ফ্রেমওয়ার্ক এগ্রিমেন্টের শর্তানুযায়ী প্রকল্পটির সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ চলছে এবং ওআইসি-বিজিএমইএ-জেভি কোম্পানির মাধ্যমে ওআইসি আগামী ১৫ জুনের মধ্যে ভূমি অধিগ্রহণের পুরো অর্থ পরিশোধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে, গার্মেন্টস শিল্পপার্ক প্রকল্পটি দ্রুত বাস্তবায়নসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয় আলোচনার জন্য আজ রবিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এক জরুরী বৈঠক আহ্বান করেছে। বাণিজ্য সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে গার্মেন্টস খাতের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিরা এতে অংশগ্রহণ করবেন।

এ প্রসঙ্গে ইতোমধ্যে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ জনকণ্ঠকে জানিয়েছেন, ঢাকার ওপর চাপ কমাতে মুন্সীগঞ্জের বাউশিয়ায় একটি গার্মেন্ট শিল্পপার্ক করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এভাবে পর্যায়ক্রমে আরও কয়েকটি শিল্পপার্ক করা হবে। তিনি বলেন, তৈরি পোশাক রফতানিতে বাংলাদেশ এক নম্বর হওয়ার দ্বারপ্রান্তে রয়েছে। কিন্তু নিরাপদ কর্মপরিবেশ ও কমপ্লায়েন্ট কারখানা নিয়ে এখনও ক্রেতাদের চাপ রয়েছে। কিন্তু এ ধরনের শিল্পপার্ক তৈরি করা গেলে শতভাগ কমপ্লায়েন্ট কারখানা তৈরি হবে। দেশের পোশাক রফতানি বাড়বে। এজন্য এ ধরনের শিল্পপার্ক আরও তৈরি করবে সরকার।

জানা গেছে, প্রস্তাবিত গার্মেন্টস শিল্পপার্কে ৯৭৬টি প্লট হবে। আর এখানে পোশাক কারখানাগুলো স্থানান্তরের জন্য ৮০০ কোটি টাকা ব্যয় হবে। যদিও ইতোমধ্যে প্রকল্প ব্যয় অনেক বেড়ে গেছে। গত ২০০১ সালে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে গার্মেন্টস শিল্পপার্ক প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়। এরপর পার্কটি কোথায় করা হবে তা নিয়ে মতভেদ দেখা দেয় সরকার ও উদ্যোক্তাদের মধ্যে। এরপর ২০০৬ সালে মুন্সীগঞ্জের বাউশিয়ায় গার্মেন্টস শিল্পপার্ক স্থাপনের জন্য স্থান নির্ধারণ করা হয়। সেখানকার জমিগুলোকে ১, ৩ ও ৫ বিঘার প্লটে ভাগ করা হয়েছে। ৩০ শতাংশ জমি অবকাঠামোগত উন্নয়নে ব্যবহার হওয়ার কথা রয়েছে প্রস্তাবনায়।

বিজিএমইএর দেয়া তথ্যমতে, বর্তমানে তাদের আওতাভুক্ত চালু কারখানার সংখ্যা ৩ হাজার ২০০। এর মধ্যে ইউডিসহ সমিতির অন্যান্য সুবিধা নেন ২ হাজার ২০০ সদস্য। তাঁদের ৭৫ শতাংশই অর্থাৎ প্রায় ১ হাজার ৬৫০ সদস্যই অংশীদারী বা ভাড়াকৃত ভবনে কারখানা করেছেন। আর প্লটের জন্য এখন পর্যন্ত আবেদন করেছেন ৮শ’ সদস্য।

জানা গেছে, এ প্রকল্পে ডায়িং, ওয়াশিং ও ফিনিশিং শিল্পের জন্য শিল্প প্লট থাকবে। এছাড়া সিইটিপি, ডাম্পিং ইয়ার্ডসহ আধুনিক ও পরিবেশবান্ধব শিল্পপার্কের অন্যান্য সুবিধা নিশ্চিত করা হবে।

জানা গেছে, বাউশিয়ার শিল্পপার্কে স্থানান্তরিত হলে সেখানে প্রায় ৩ লাখ লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে, যার প্রায় ৮০ শতাংশই হবে নারী। এছাড়া কারখানা স্থানান্তরের ফলে রাজধানীর পরিবেশের ওপরও তা ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

প্রকাশিত : ২৫ জানুয়ারী ২০১৫

২৫/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: