মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে শিল্পী সমাজ’ গ্রন্থের প্রকাশনা

প্রকাশিত : ২৪ জানুয়ারী ২০১৫
‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে শিল্পী সমাজ’ গ্রন্থের প্রকাশনা
  • সংস্কৃতি সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাঙালীর রাষ্ট্র বাংলাদেশের জন্মের মহাকাব্যিক অধ্যায় মুক্তিযুদ্ধ। তাই তো বাঙালীর চিরস্থায়ী এক অহঙ্কার একাত্তরের মুক্তির সংগ্রাম। সেই সংগ্রামে নানা পেশার মানুষের সঙ্গে শিল্পীরাও যোগ দিয়েছিলেন প্রাণের তাগিদ থেকে। দেশমাতৃকার জন্য সুমহান অঙ্গীকারে উদ্বুদ্ধ হয়েছিল শিল্পীসমাজ। শুধু মুক্তিযুদ্ধ নয়, বায়ান্ন ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানসহ নানা আন্দোলন-সংগ্রামে অনন্য ভূমিকা রেখেছিলেন তাঁরা। আর বায়ান্ন থেকে একাত্তর পর্যন্ত দেশের মুক্তিসংগ্রামে শিল্পীদের সেই অবদানের ও ভূমিকা নিয়ে গ্রন্থ রচনা করেছেন খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী বীরেন সোম। ৫০ জন শিল্পীর আঁকা ৭৪টি চিত্রকর্মের সঙ্গে আন্দোলন-সংগ্রামে শিল্পীদের অংশগ্রহণের বর্ণনাযুক্ত বইটির শিরোনাম ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতাসংগ্রামে শিল্পীসমাজ’। ১৫২ পৃষ্ঠার সুদৃশ্য গ্রন্থটি প্রকাশ করেছে চন্দ্রাবতী একাডেমি।

একাত্তরের মুজিবনগর সরকারের প্রকাশনা ও প্রচার বিভাগের ডিজাইনার বীরেন সোম রচিত বইটির প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয় শুক্রবার বিকেলে। শাহবাগের বিসিএস প্রশাসন একাডেমি মিলনায়তনে প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি ছিলেন বরেণ্য দুই শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার ও রফিকুন নবী। অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন শিল্পী বীরেন সোম, গ্রন্থটির সম্পাদক সুবল কুমার বণিক, বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ-পরিচালক মাহফুজুর রহমান ও চন্দ্রাবতী একাডেমির প্রধান নির্বাহী কামরুজ্জামান কাজল। এছাড়াও আলোচনায় অংশ নেন ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মজিব উদ্দিন আহমেদ ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ ফায়েকুজ্জামান। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন শিশু সাহিত্যিক আলী ইমাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, পাঁচটি অধ্যায়ে রচিত গ্রন্থটিতে ভাষা আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত শিল্পীদের ভূমিকার কথা চমৎকারভাবে উপস্থাপিত হয়েছে। ৭৪টি চিত্রকর্মের সঙ্গে রয়েছে শিল্পীদের দেশের আন্দোলন-সংগ্রামের ভূমিকার সাবলীল বর্ণনা। শুধু ছবিগুলো দিয়ে এ্যালবাম প্রকাশ করতে পারতেন বীরেন সোম। তা না করে তিনি বর্ণনার মাধ্যমে একটি আকর্ষণীয় গ্রন্থ প্রকাশ করেছেন। এই বইটি এখন ইতিহাসের অংশে পরিণত হলো। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে শিল্পীদের যে সমহার ঘটেছে অন্য কোন দেশের মুক্তির সংগ্রামে তেমনটা হয়নি।

সভাপতির বক্তব্যে আনিসুজ্জামান বলেন, ভাবতেই ভাল লাগছে যে স্বাধীনতার তেতাল্লিশ বছর পর সেই আন্দোলন-সংগ্রামে শিল্পীসমাজের ভূমিকা নিয়ে একটি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। এ বিষয়ে চিত্রকর্মের সঙ্গে নানা তথ্যের সন্নিবেশে রচিত বইটি পরিণত হয়েছে মুক্তিযুদ্ধের উপযুক্ত স্মারকে। তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধের যেমন সব শ্রেণীর মানুষ অংশ নিয়েছে তেমনি বুদ্ধিজীবীরা সমান ভূমিকা রেখেছেন। কিছু বিরোধী ছাড়া সবাই মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছেÑ এটা আমাদের অনেক বড় অহঙ্কার ও গর্বের বিষয়। আর সর্বস্তরের মানুষের অংশগ্রহণ এত দ্রুত স্বাধীনতা অর্জন সম্ভব হতো না।

আপন অনুভূতি প্রকাশ করে বীরেন সোম বলেন, স্বাধীনতার পর অনেকা বছর পেরিয়ে গেলেও আজ পর্যন্ত সেই সংগ্রামে শিল্পীদের ভূমিকা নিয়ে নিয়ে কোন গ্রন্থ প্রকাশিত হয়নি। এ নিয়ে ইতিহাসের ঘাটতি রয়ে গেছে। আর সেই বিষয়টিকে তরুণ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে এই গ্রন্থ প্রকাশের উদ্যোগ নেই। বইটিতে তখনকার ইতিহাসের আলোকে বিভিন্নজনের চিত্রকর্ম এবং শিল্পীদের সংগ্রামী তৎপরতার কথা তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।

১৫২ পৃষ্ঠার সুদৃশ্য গ্রন্থটির মূল্য রাখা হয়েছে ৭০০ টাকা।

শাহাদৎ হোসেনের মৃৎশিল্প প্রদর্শনী

ধানম-ির গ্যালারি টোয়েন্টি ওয়ানে॥ শুক্রবার থেকে শুরু হলো কানাডা প্রবাসী শিল্পী শাহাদৎ হোসেনের মৃৎশিল্প প্রদর্শনী। বিকেলে ‘পারফেক্টলি ইমপারফেক্ট’ শীর্ষক এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য বিভাগের প্রধান অধ্যাপক শামসুল ওয়ারেস। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিশুসাহিত্যিক লুৎফুর রহমান রিটন।

প্রকাশিত : ২৪ জানুয়ারী ২০১৫

২৪/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: