মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

মেসির গোলে বার্সিলোনার স্বস্তির জয়

প্রকাশিত : ২৩ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আবারও নিজের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করলেন লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন তারকার করা একমাত্র গোলেই বুধবার স্প্যানিশ কোপা ডেল’রে ফুটবলের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগের ম্যাচে বার্সিলোনা ১-০ গোলে পরাজিত করে অতিথি এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে। ম্যাচ শেষের পাঁচ মিনিট আগে গোলটি করেন সাবেক রেকর্ড টানা চারবারের ফিফা সেরা ফুটবলার।

অবশ্য হিরো থেকে জিরো হওয়ারও সমূহ সম্ভাবনা ছিল মেসির! কেননা জয়সূচক গোলটি তিনি পেয়েছেন অনেকটা সৌভাগ্যপ্রসূত। ৮৫ মিনিটে পেনাল্টি পায় বার্সা। স্পট কিক নেন মেসি। কিন্তু তার নেয়া শট প্রতিহত করে দেন এ্যাটলেটিকোর গোলরক্ষক ইয়ান ওবলাক। তবে ফিরে আসা বল পেয়ে ফিরতি শটে সেøাভেনিয়ার গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ব্রাজিল বিশ্বকাপের সেরা ফুটবলার। তাতেই ঘরের মাঠ ন্যুক্যাম্পে স্বস্তির জয় পায় কাতালানরা। আরেকবার সমালোচনা থেকে রেহাই পান মেসিও! এই জয়ে সেমিফাইনালে খেলার পথে কিছুটা হলেও এগিয়ে থাকল বার্সিলোনা। শেষ আটের দ্বিতীয় লেগের ম্যাচ হবে আগামী ২৮ জানুয়ারি এ্যাটলেটিকোর মাঠ ভিসেন্টে ক্যালডেরনে। বার্সার মতো প্রথম লেগের ম্যাচ ১-০ গোলে জিতেছে ভিয়ারিয়ালও। গেটাফেকে হারায় তারা। মালাগা ও এ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের মধ্যকার ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়। ২৯ জানুয়ারি দলগুলো ফিরতি লেগের ম্যাচ খেলবে। এরপর নির্ধারণ হবে সেমিফাইনালের লাইনআপ। নিজেদের মাঠ ন্যুক্যাম্পে শক্তিশালী একাদশ নিয়ে মাঠে নামে বার্সা। তিন তারকা মেসি, নেইমার ও সুয়ারেজকে রেখেই দল সাজান কোচ লুইস এনরিকে। যে কারণে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে স্বাগতিকরা। কিন্তু একাধিক সুযোগ পেয়েও প্রথমার্ধে গোল পায়নি তারা। অন্যদিকে প্রথমার্ধে নিজেদের পোস্ট আগলে রেখে গুটিকয়েক আক্রমণ করলেও সাফল্য পায়নি এ্যাটলেটিকো। ম্যাচের পঞ্চম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত বার্সা। মেসি, আলভেস ও সুয়ারেজ হয়ে বল পান নেইমার। কিন্তু ব্রাজিল অধিনায়কের শট রুখে দেন অতিথি গোলরক্ষক। ১৬ মিনিটে মেসির প্রচেষ্টাও ব্যর্থ হয়। বার্সিলোনাকে প্রথমার্ধে বেশ চাপে রাখে দিয়াগো সিমিওনেল। পাল্টা আক্রমণ নির্ভর ফুটবল খেলে তার দল। প্রথমার্ধের শেষদিকে গোলের সুযোগও এসেছিল তাদের সামনে। কিন্তু গ্রিজম্যান, টোরেস, টুরান, গাবির এগিয়ে নিতে পারেননি এ্যাটলেটিকোকে। প্রথমার্ধে গোলের সেরা সুযোগটি নষ্ট করেন সুয়ারেজ। ৪০ মিনিটে রাকিটিচের ভলি পোস্টের খুব কাছাকাছি থাকা উরুগুয়েন তারকাকে খুঁজে নিয়েছিল। কিন্তু একটু লাফিয়ে ওঠা বলে ছয় গজ দূর থেকে তার নেয়া শট পোস্টের উপর দিয়ে যায়। বিরতির পরও বল দখলে এগিয়ে থেকে খেলতে থাকে স্বাগতিকরা। কিন্তু গোলের জন্য ভাল সুযোগ করতে পারছিলেন না মেসি, নেইমার, ইনিয়েস্তারা। অবশেষে ৮৫ মিনিটে হাসি ফোটে সমর্থকদের। এ সময় ডি বক্সের মধ্যে বল দখলের লড়াইয়ের এক পর্যায়ে এ্যাটলেটিকোর জুয়ানফ্রান বার্সিলোনার সার্জিও বসকুয়েটসকে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। শট নেন মেসি, প্রথমে তার শট গোলরক্ষক ফিরিয়ে দিলেও ফিরতি শটে লক্ষ্যভেদ করেন বার্সা ডায়মন্ড। ম্যাচের যোগ করা সময় মেসির ফ্রিকিক ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত এক গোলের জয় নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় কাতালানদের। ম্যাচ শেষে বার্সিলোনা মিডফিল্ডার আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার কণ্ঠে ঝরে স্বস্তি। তিনি বলেন, ভিসেন্টে ক্যালডেরনে বার্সার জন্য কঠিনতম ৯০ মিনিটই অপেক্ষা করে আছে। তবে এই জয়টা স্বস্তিদায়ক সন্দেহ নেই। এ্যাটলেটিকোর মতো দলের বিরুদ্ধে ১-০ গোলের জয় মোটেও খারাপ না। অন্যদিকে এ্যাটলেটিকো কোচ দিয়াগো সিমিওনে ঘরের মাঠে ভাল কিছুর স্বপ্ন দেখছেন। ম্যাচ শেষে এই আর্জেন্টাইন কোচ বলেন, ঘরের মাঠে এ্যাটলেটিকোর শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণিত। ক্যালডেরনে ভালই লড়াই হবে। আমাদের সুযোগ শেষ হয়ে যায়নি।

প্রকাশিত : ২৩ জানুয়ারী ২০১৫

২৩/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: