কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সা ধা র ণ গ ণি ত

প্রকাশিত : ২২ জানুয়ারী ২০১৫
  • অনুশীলনের বিকল্প নেই

সুপ্রিয় শিক্ষার্থীরা, এসএসসি পরীক্ষা খুবই সন্নিকটে। নিশ্চয়ই তোমরা এখন চূড়ান্ত প্রস্তুতিতে ব্যস্ত। প্রস্তুতির পাশাপাশি পরীক্ষায় ভাল করার জন্য কিছু কৌশল থাকা আবশ্যক।

সাধারণ গণিত বিষয়ে ২০১৫ সালের পরীক্ষায় সৃজনশীল পদ্ধতিতে পরীক্ষা হবে। প্রথমবারের মতো গণিত বিষয়টি সৃজনশীল হওয়ায় তোমাদের মাঝে বিভিন্ন জানার কৌতূহল থাকতে পারে। তাই তোমাদের জন্য কিছু দিকনির্দেশনামূলক পরামর্শ। গণিতের মোট ১০০ নম্বর পরীক্ষায় সৃজনশীল ৬০ ও বহুনির্বাচনীর জন্য রয়েছে ৪০ নম্বর। সৃজনশীল বা রচনামূলক মোট ৪টি বিভাগ থাকবে। এর মধ্যে ক বিভাগ থেকে ২টি, খ বিভাগ জ্যামিতি অংশ থেকে ২টি, গ বিভাগ ত্রিকোনোমিতি ও পরিমিতি থেকে ১টি এবং ঘ বিভাগ পরিসংখ্যান থেকে ১টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। গণিতের বিভিন্ন সূত্রগুলো ভাল করে আয়ত্ত করতে হবে। সূত্র সম্পর্কে ভাল ধারণা থাকলে এবং সূত্রের ব্যবহার জানলে প্রশ্নোত্তর খুব সহজ হয়। প্রতিটি প্রশ্নের তিনটি অংশ থাকে এবং প্রত্যেকটি অংশের সঙ্গে অন্য অংশগুলো সংযুক্ত থাকে। তাই অনুধাবন অংশ বুঝলে অন্য অংশগুলোর উত্তর করা সহজ হয়।

সাধারণত শিক্ষার্থীরা জ্যামিতি অংশে দুর্বল থাকে। কারণ আগে জ্যামিতি না বুঝেই মুখস্থ করত। কিন্তু বর্তমান সৃজনশীল পদ্ধতিতে উদ্দীপক বুঝে জ্যামিতির সমাধান করতে হয়। সুতরাং যে ক’দিন হাতে রয়েছে প্রত্যেকটি চিত্র সম্পর্কে ভাল করে ধারণা নিতে হবে এবং ব্যাখ্যা শিখতে হবে। ত্রিকোনোমিতি ও পরিসংখ্যান অংশ অপেক্ষাকৃত সহজ হয়। তাই এ অংশগুলোর বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে আরও অনুশীলন করে পূর্ণ নম্বর পাওয়ার ব্যাপারে প্রত্যয়ী হতে হবে। সর্বোপরি ত্রিকোনোমিতির ক্ষেত্রে ভূমি, লম্ব ও অতিভূজের অনুপাত সঠিকভাবে আঁকার অভ্যাস করবে। পরিমিতির অংশে ভাল করতে হলে সূত্রগুলো বারবার প্রাকটিস কর। বীজগণিতের অংশে ভাল করার জন্য অধ্যায়ভিত্তিক গুরুত্বপূর্ণ অঙ্কগুলোর অনুশীলন করতে হবে। উল্লেখ্য, প্রত্যেক অধ্যায় হতে অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ উদাহরণগুলো ভালভাবে অনুশীলন করবে।

এ কে এম আমান উল্ল্যাহ মিয়া

সহকারী প্রধান শিক্ষক

বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজ

পিলখানা, ঢাকা

প্রকাশিত : ২২ জানুয়ারী ২০১৫

২২/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: