কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের বোলিংই ভাবাচ্ছে রাহুলকে

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দাজায় কড়া নাড়ছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ। দলগুলোর শক্তি-সামর্থ্য, সাম্প্রতিক পারফর্মেন্স নিয়ে হচ্ছে আলোচনা। অস্ট্রেলিয়া সফরে চার টেস্টে সিরিজে ২-০তে হারল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত। বোলিং দুর্বলাইতাই ভাবাচ্ছে দলটির সাবেক তারকা ও বর্তমান ব্যাটিং পরামর্শক রাহুল দ্রাবিড়কে। দু’দিন আগে ঠিক একই ধারণা পোষণ করেছিলেন সাবেক অধিনাক মোহাম্মদ আজহার উদ্দীন ও বর্তমান তারকা বিরাট কোহলি। ‘সামনে বিশ্বকাপ। অথচ অস্ট্রেলিয়া সফরে বোলিংই আমাদের বেশি করে ভাবাচ্ছে। ম্যাচে ভাল ফল চাইলে আপনার হাতে বিশ্বমানের পেসার ও স্পিনার থাকতে হবে, যারা যেকোন পরিস্থিতিতে, যেকোন কন্ডিশনে কার্যকর। ম্যাচ জেতাতে কোয়ালিটি বোলারের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ।’ বলেন রাহুল।

ভাবিত হলেও খুব বেশি হতাশ নন সাবেক এই ব্যাটসম্যান। তিনি আরও যোগ করেন, ‘র‌্যাঙ্কিংটাকে খুব বড় করে দেখি না। এবার এক ঝাঁক তরুণ ক্রিকেটার নিয়ে আমরা অস্ট্রেলিয়ায় এসেছি। কিন্তু সার্বিক ফল আগের চেয়ে ভাল। এরা যত অভিজ্ঞতা অর্জন করবে তত রেজাল্ট আসবে।’ এটা সত্য অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের ইতিহাস মোটেই ভাল নয়। আগের সফরেও চার টেস্টের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল তারা। এবার দুটি ম্যাচ হারলেও দারুণ লড়াই করেছে। বিশেষ করে ব্যাট হাতে বিরাট কোহলি, অজিঙ্কা রাহানে, মুরলি বিজয়দের পারফর্মেন্স ছিল প্রশংসনীয়।

ভারতকে একাধিক বিশ্বকাপে নেতৃত্ব দেয়া আজহার উদ্দীন ধোনির নেতৃত্বাধীন এবাবেরর স্কোয়াডকে ‘ভারসাম্যপূর্ণ’ বলেলও অস্ট্রেলিয়া-নিউজিলান্ডের কন্ডিশনে বোলিং নিয়ে কিছুটা চিন্তিত তিনি। তিনি আরও যোগ করেন, ‘দল যথেষ্টই ব্যালান্সড। তবে আমার একমাত্র দুশ্চিন্তা বোলিং নিয়ে। অস্ট্রেলিয়াতে এখনও পর্যন্ত আমাদের বোলিং ভাল হয়নি। ইশান্ত-শামিদের কিছুটা ক্লান্ত দেখাচ্ছে।’ তিনি আরও যোগ করেন, ‘ত্রিদেশীয় সিরিজের পরই আসলে বোঝা যাবে বোলারদের মধ্যে কে কতটা তৈরি, সেটাই আসল পরীক্ষা। তবে ওদের প্রচুর খাটতে হবে। মনে রাখতে হবে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড সম্পূর্ণই আলাদা জায়গা। ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ছাড়া ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত।

বোলিংয়ে সমস্যা দেখছেন বর্তমান তারকা কোহলিও। শেষ টেস্টে নেতৃত্ব দেয়া তুখোড় এই ব্যাটসম্যান বলেন, ‘এটা সত্যি যে বোলিং নিয়ে আমাদের অনেক বেশি মনোযোগ দিতে হবে। ব্যাটিংয়েও কিছু কিছু জায়গা নিয়ে ভাবার আছে। আমি বোলারদের বলেছি, ঠিক কোন জায়গায় উন্নতি দরকার। কারণ আমরা সেটা জানি।’ তবে সার্বিক চিত্রে উজ্জ্বল ভবিষ্যতই দেখছেন ভবিষ্যতের কর্ণধার। ‘সামনে খুব ভাল সময় অপেক্ষা করছে। লোকেশ রাহুল শুরতেই ইমপ্রেসিভ, বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে। মুরলি বিজয়-অজিঙ্কা রাহানেও ভাল ব্যাটিং করেছে। আমি নিজেও অভিজ্ঞতা অর্জন করছি।’ পুরো সিরিজে ব্যাট হাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন কোহলি। ৪ সেঞ্চুরি ১ হাফ সেঞ্চুরিতে সিরিজের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬৯২ রান তার। গড় ৮৭। একজন ভারতীয় হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে যা অবিশ্বাস্যই। বিশ্বকাপে ভারতের মূলশক্তি হবে ব্যাটিংই, যেখানে অগ্রভাগে থাকবেন কোহলি।

বোলিং নিয়ে টেনশন, শিরোপা ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ, সব মিলিয়ে বিশ্বকাপে চাপে থাকবে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল।

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০১৫

২১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: