আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জ্বালাও পোড়াও খুনে জড়িত দল নিষিদ্ধ চান কূটনীতিকরা

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০১৫
  • সংবাদ সম্মেলনে জানালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চলমান অবরোধে সহিংসতায় জড়িত রাজনৈতিক দলগুলোকে নিষিদ্ধের আহ্বান জানিয়েছে বিদেশী কূটনীতিকরা। তারা বলেছে, যেসব রাজনৈতিক দল নিরীহ মানুষ হত্যা করে, গাড়িতে আগুন দেয়, সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি করছে, তাদের দ্রুত নিষিদ্ধ করা প্রয়োজন। অপরদিকে বিদেশী কূটনীতিকদের সামনে চলমান অবরোধে বিএনপি সহিংসতার চিত্রও তুলে ধরা হয়েছে। মঙ্গলবার বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে এক বৈঠকের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে এক বৈঠকে সরকারের পক্ষ থেকে বর্তমান অবস্থান তুলে ধরা হয়। মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সামনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী সরকারের অবস্থান তুলে ধরেন। এ সময় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হকও উপস্থিত ছিলেন। সেখানে সার্ক, আসিয়ান এবং ওআইসির সদস্য বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার এবং দূতাবাস প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী গত তিনদিনে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠকের আলোচনা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বিদেশী কূটনীতিকদের সঙ্গে নানা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তারা দেশের চলমান সহিংসতার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। যেসব রাজনৈতিক দল সহিংসতা সৃষ্টি করছে, তাদের নিষিদ্ধের আহ্বান জানিয়েছেন বিদেশী কূটনীতিকরা। তারা আরও বলেছেন সহিংস কর্মকা- চালিয়ে গণতন্ত্র শক্তিশালী করা যায় না। সহিংসতা কখনোই গণতন্ত্রের অংশ হতে পারে না বলেও জানান তাঁরা।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ওআইসির তৃতীয় বৃহত্তম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য দেশ। ওআইসি সব সময়ই বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে। সরকারের সঙ্গে বৈঠকে ওআইসির সদস্য দেশগুলোই বর্তমান সহিংসতায় যুক্ত রাজনৈতিক দলগুলোকে নিষিদ্ধের আহ্বান জানিয়েছে। তিনি আরও জানান, ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্টে বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা ও জামায়াতকে ত্যাগ করার জন্য বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে যে দুটি রেজ্যুলেশন নিয়ে এসেছিল সে দুটির পুনর্ব্যক্ত করা হয়েছে।

এক প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কোন বিশেষ রাজনৈতিক দলকে নিষিদ্ধের আহ্বান জানাননি বিদেশী কূটনীতিকরা। সহিংসতায় যেসব রাজনৈতিক দল জড়িত তাদেরই নিষিদ্ধের আহ্বান জানিয়েছেন তাঁরা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সহিংসতায় কারা জড়িত আপনারা সবাই জানেন। জামায়াত ও হেফাজত ইসলামের সন্ত্রাসী কর্মকা-ের বিষয়েও আপনারা নিশ্চয় অবহিত। হেফাজতে ইসলামতো নারীশিক্ষার বিরুদ্ধে কথা বলে। দেশকে মধ্যযুগে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে চায়।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের সংবাদ সম্মেলনের বিষয় তুলে ধরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সোমবার বিএনপি চেয়ারপার্সন সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন সারাদেশে সহিংসতা নাকি সরকার করছে। আমি বিদেশী কূটনীতিকদের খালেদা জিয়ার এই বক্তব্যটি তুলে ধরেছি। খালেদা জিয়ার একথা শুনে বিদেশী কূটনীতিকরা মুচকি মুচকি হেসেছেন বলেও তিনি জানান।

এক প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিদেশী কূটনীতিকরা নতুন করে নির্বাচনের কোন কথা বলেননি। তারা বলেছেন বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ সমস্যা, বাংলাদেশকেই সমাধান করতে হবে।

তিনি বলেন, একজন কূটনীতিকের গাড়িতে পেট্রোলবোমা মারা হয়েছে। আরেকজন কূটনীতিকের বাড়ির পাশে বোমা মারা হয়েছে বলে তারা আমাদের জানিয়েছেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য যুক্তরাজ্যকে চিঠি দেয়া হয়েছে। তবে এখনও যুক্তরাজ্য কোন উত্তর পাঠায়নি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বৈঠকে দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের অবস্থান তুলে ধরেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। তিনি জানান, আন্দোলনের নামে বিএনপি সারাদেশে অরাজকতা সৃষ্টি করছে। সাধারণ মানুষের চলাফেরার অধিকারও বিঘিœত করছে তাঁরা। দেশের অর্থনীতিরও ক্ষতি করছে বিএনপি। এ সময় তিনি সম্প্রতি বিএনপির সহিংসতার বিভিন্ন চিত্রও বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সামনে তুলে ধরেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিদেশী কূটনীতিকদের জানান, সরকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সচেষ্ট রয়েছে। দেশের শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলেও জানান তিনি। গত এক বছরে সরকারের কূটনৈতিক সাফল্য ও বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে বিদেশী কূটনীতিকদের সামনে তুলে ধরা হয়।

সম্প্রতি গণমাধ্যমে আসা বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের টেলিফোন আলাপ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের বিবৃতি নিয়ে কূটনীতিকরা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জানতে চাইলে আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, বিএনপির পক্ষ থেকে প্রচার করা হয়েছে, সম্প্রতি ভারতীয় জনতা পার্টির সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে টেলিফোনে বেগম খালেদা জিয়ার আলাপ হয়েছে। এছাড়া মার্কিন কংগ্রেসম্যানরা বিবৃতি দিয়েছেন বলেও প্রচারণা চালানো হয়েছে। তবে এই দুটি ঘটনায় পুরোপুরি মিথ্যা। এটা তাদের গোয়েবেলসীয় প্রচার বলেও জানান তিনি।

এর আগে সোমবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় অস্ট্রেলিয়া, চীন, জাপান, কানাডা, ব্রাজিল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, উত্তর কোরিয়াসহ বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের বৈঠক করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এছাড়া গত ১৪ জানুয়ারি ঢাকায় অবস্থানরত ইউরোপীয় দেশভুক্ত কূটনীতিক ও রাষ্ট্রদূতদের নিয়ে বৈঠক করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০১৫

২১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: