আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সব সময় সংসারী হতে চেয়েছিলেন লি না!

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পুরো এশিয়ার নারীদের জন্য সত্যিকার একজন দৃষ্টান্ত। অন্তত খেলাধুলার জগতে যারা বিচরণ করতে চান সেসব নারীদের জন্য আদর্শ হিসেবে পরিগণিত হয়েছেন চাইনিজ টেনিস তারকা লি না। এশিয়ার নারীদের অনুপ্রেরণা হিসেবে তিনি সবার জন্য পথিকৃৎ বিবেচিত। যদিও এখন তিনি সাবেক হয়ে গেছেন। অব্যাহত ইনজুরির কারণে গত বছরই অবসর নিয়ে ফেলতে বাধ্য হন লি। তবে তিনি জানিয়েছেন টেনিস কোর্টে থাকা নয় বরং সবসময় ঘরে থেকে পুরোদস্তুর সংসারী হতে চেয়েছিলেন তিনি। এখন সেই স্বপ্নটা সফল হতে চলেছে তাঁর। গর্ভে সন্তান ধারণ করেছেন। এবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে টেনিস র‌্যাকেট হাতে না নামলেও তিনি মেলবোর্ন পার্কের মায়া ছাড়তে পারেননি। আর এ সময়ই নিজে জানালেন এ তথ্য।

মেলবোর্ন পার্কের কোর্টও যেন দারুণ পয়া লি নার জন্য। এখানকার দর্শকদের কাছেও জনপ্রিয়। গত বছর এখানে শিরোপা জিতেছিলেন আর ২০১১ ও ২০১৩ সালে খেলেছিলেন ফাইনাল। এবারও এসেছেন তবে শুধু সাধারণ দর্শক হয়ে। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সত্ত্বেও গত সেপ্টেম্বরে আচমকা অবসর নিয়ে ফেলেন টেনিস থেকে ইনজুরির কারণে। তাছাড়া সংসারে মনোযোগী হওয়ার কথাটাও বলেছিলেন সে সময়। বছর না পেরোতেই জানিয়ে দিলেন মা হতে চলেছেন তিনি। সোমবার অসি ওপেনের প্রথম দিন এসব কথা জানান লি। তিনি বলেন, ‘টেনিসকে বিদায় বলাটা আমার মনে হয় খুবই কঠিন একটা সিদ্ধান্ত ছিল আমার জন্য। কিন্তু আমার একমাত্র স্বপ্ন ছিল গৃহিণী হওয়ার। আমি মনে করি প্রতিটি শিশুই তাঁর পরিবার থেকে শিক্ষা নেয়। আমি আমার মায়ের কাছ থেকে শিক্ষা পেয়েছি। তাই আমার মনোভাব তেমন একজন মা হিসেবে গৃহিণী হয়ে ওঠার।’

সোমবার ‘গেস্ট অব অনার’ হিসেবে মেলবোর্ন পার্কের রড লেভার এ্যারেনায় উপস্থিত দর্শকদের আগ্রহের কেন্দ্রে ছিলেন লি না। উপস্থিত ১৫ হাজার উৎফুল্ল দর্শকদের সামনে নিজের গর্ভ ধারণের ঘোষণা দেন এ চাইনিজ ক্রীড়া পথিকৃৎ। ঘোষণায় লি কন্যা সন্তানের প্রত্যাশা করছেন বলে জানিয়েছেন। চীনকে টেনিস বিশ্বেও শক্তিশালী হিসেবে চিনিয়েছেন লি ক্যারিয়ারে মোট ৯টি শিরোপা জিতে। ২০০৮ সালে দেশের ক্রীড়া ব্যবস্থার বিরোধিতা করে কয়েকজনকে নিয়ে একটি বিরোধী গ্রুপ গড়েছিলেন তিনি। তাঁর সঙ্গে উদীয়মান অনেক তারকাও যোগ দিয়েছিলেন। লি না এবং ওইসব নারীদের দাবি ছিল নিজের কোচ নিজেই নিয়োগ দেয়ার জ্ঞান এবং যোগ্যতা তাঁদের আছে, তাই এ বিষয়টা সরকারের হস্তক্ষেপ প্রয়োজন নেই। তবে এত বিখ্যাত হওয়ার পরও লি না জানিয়েছেন তিনি কখনই নিজের মেয়েকে টেনিস কোর্টে নামতে দিতে চান না।

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০১৫

২১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: