মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পাঁচ বছর পর ‘ইতিহাদ দুর্গ’ জয় আর্সেনালের

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দীর্ঘ পাঁচ বছর পর ‘ইতিহাদ দুর্গ’ জয় করতে সক্ষম হয়েছে আর্সেনাল। রবিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের ম্যাচে স্বাগতিক ম্যানচেস্টার সিটিকে তাদেরই মাঠে ২-০ গোলে পরাজিত করে অতিথি আর্সেনাল। গানার্সদের হয়ে মহামূল্যবান গোল দুটি করেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার সান্টি ক্যাজোরলা ও ফরাসী স্ট্রাইকার অলিভিয়ের জিরাউড।

পরশুর আরেক ম্যাচে হাল সিটিকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেড। দারুণ জয়ে শিরোপা রেসে নিজেদের ধরে রাখল আর্সেনাল। আর গত ১৫ ম্যাচের মধ্যে প্রথম হারে শিরোপা ধরে রাখার স্বপ্নে বড়সড় ধাক্কা খেল ম্যানসিটি। ২২ ম্যাচ শেষে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির দল। সমান ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে আর্সেনাল। ৫২ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে অবস্থান করছে চেলসি।

গত সপ্তাহে এভারটনের মাঠে ড্র করেছিল সিটি। নিজেদের মাঠে আর্সেনালের বিরুদ্ধে জয়ের লক্ষ্যেই মাঠে নেমেছিল চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু ঘরের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ভক্তদের হতাশ করেছে দলটি। ম্যাচের প্রথম ২৩ মিনিটে কোন আক্রমণই করতে পারেনি সিটি। ১৮ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত আর্সেনাল। কিন্তু ডি বক্সের মধ্যে থেকে অলিভিয়ের জিরাউডের হেড রক্ষণে বাধা পায়। ২৪ মিনিটে এগিয়ে যায় অতিথিরা। ডি বক্সে প্রতিপক্ষের স্প্যানিশ ডিফেন্ডার নাচো মনরিলকে স্বাগতিক অধিনায়ক ভিনসেন্ট কোম্পানি ফাউল করলে পেনাল্টি পায় আর্সেনাল। স্পট কিক থেকে গোল করে আর্সেনালকে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে নেন ক্যাজোরলা। প্রথমার্ধের বাকি সময়ে বল দখলে সিটি এগিয়ে গেলেও গোলের ভাল সুযোগ সৃষ্টি করতে ব্যর্থ হয়।

বিরতির পর শুরু থেকেই ম্যাচে ফিরতে আক্রমণাত্মক খেলতে থাকে ম্যানসিটি। শুরুর দিকে কয়েকটি ভাল আক্রমণ শানালেও স্ট্রাইকারদের ব্যর্থতায় ম্যাচে ফেরা হয়নি স্বাগতিকদের। উল্টো ৬৭ মিনিটে আর্সেনালের হয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করে দলের জয় একপ্রকার নিশ্চিত করে ফেলেন জিরাউড। এই গোলেও অবদান ছিল প্রথম গোলদাতা ক্যাজোরলার। তার করা ফ্রি কিকেই হেড করে বল জালে পাঠান ফরাসি স্ট্রাইকার। শেষ পর্যন্ত দুই গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্সেনাল।

এই জয়ে গানার্সদের একটি প্রতিশোধ মিশনও পূরণ হয়েছে। ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে সর্বশেষ এই মাঠে সিটির কাছে ৬-৩ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল আর্সেনাল। এবার তার মধুর প্রতিশোধ নিতে পেরেছে আর্সেনাল। এর ফলে আগামী ৩১ জানুয়ারি স্টামফোর্ড সফরে যাওয়ার আগে টেবিলের শীর্ষে থাকা চেলসির থেকে ম্যানসিটির এখন পয়েন্টের ব্যবধান বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ। গত ১৫ ম্যাচে এটি সিটির প্রথম পরাজয়। আর ২০১০ সালের অক্টোবরে ৩-০ গোলের সাফল্যের পরে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে আর্সেনালের প্রথম জয়। অর্থাৎ পাঁচ বছর পর ইতিহাদ স্টেডিয়ামে জয় পেল গানার্সরা। পাঁচ বছর আগে ওই পরাজয়টি ছিল লীগে ঘরের মাঠে কোন দলের দুই গোলের বেশি ব্যবধানে হার। এছাড়া ২০০২ সালের অক্টোবরের পর এই প্রথমবারের মতো ম্যানসিটি টানা তিনটি হোম লীগ ম্যাচে দু বা ততোধিক গোল হজম করল।

ম্যাচ শেষে ক্যাজোরলার পারফরমেন্সের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার। না করে যে উপায়ও নেই! গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটিতে এক গোল করার পাশাপাশি অপর গোলটিতেও অবদান রাখেন স্প্যানিশ তারকা। তাইতো ওয়েঙ্গার বলেন, ক্যাজোরলা অবিশ্বাস্য খেলেছে। সে মাঠজুড়ে খেলেছে। তার পারফরমেন্সই ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দেয়। তিনি আরও বলেন, তরুণ ফুটবলারদের জন্য সে দৃষ্টান্ত। আমার ধারণা সে এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারবে। ক্যাজোরলার প্রশংসায় মেতে ওঠেন সাবেক আর্সেনাল তারকা থিয়েরি অঁরিও। তিনি বলেন, কি অসাধারণ ম্যাচই না খেলল রবিবার ক্যাজোরলা। ম্যাচের আগে অ্যালেক্সিস সানচেজের দিকে দৃষ্টি ছিল সবার। কিন্তু ম্যাচ শেষে হিরো বনে গেছেন ক্যাজোরলা।

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারী ২০১৫

২০/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: