আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ধর্মবিশ্বাসের অবমাননায় পাল্টা সহিংস আচরণ ঠিক নয়, ক্যামেরন

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারী ২০১৫

ধর্মীয় বিশ্বাসে আঘাতের সহিংস জবাব সঠিক কিনা তা নিয়ে পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করলেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। তিনি বলেন, আজকের মুক্ত সমাজে কারও ধর্মীয় বিশ্বাসে আঘাত করে মন্তব্য করার অধিকার যে কারও আছে। মার্কিন টিভি সিবিএসের সংবাদ অনুষ্ঠান ‘ফেস দ্য নোশন’-এ তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানটি রবিবার প্রচারিত হয়েছে। খবর গার্ডিয়ানের

ক্যামেরন অনুষ্ঠানে বলেছেন, কেউ আপনার ধর্মবিশ্বাসের অবমাননা করলে তার প্রতি প্রতিশোধমূলক আচরণ করাটা ভুল। এশিয়া সফররত পোপ ফ্রান্সিস বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কা থেকে ফিলিপিন্স যাওয়ার পথে বিমানে সাংবাদিকদের বলেন, অন্যের ধর্মবিশ্বাসকে অবমাননা করা বাড়াবাড়ি। মতপ্রকাশের স্বাধীনতারও একটা সীমা থাকা উচিত। মতপ্রকাশের স্বাধীনতার মানে কারও ভাবাবেগে আঘাত করা বা কারও ধর্ম নিয়ে ব্যঙ্গ করার স্বাধীনতা নয়। মহানবী (সাঃ)-এর কার্টুন প্রকাশের পর ফ্রান্সের শার্লি হেবদো পত্রিকায় হামলার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে পোপ বলেন, কেউ অন্যের ধর্মবিশ্বাসে আঘাত করে উস্কানি দিলে তার প্রতি সহিংসতা হতে পারে।

পোপের পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন তার সহকর্মী আলবার্তো গ্যাসপারি। পোপের নানা সফরের আয়োজন করেন তিনিই। তাঁকে দেখিয়ে পোপ ফ্রান্সিস বলেন, এই যে আমার বন্ধু গ্যাসপারি। যদি উনি আমার মায়ের নামে কোনও খারাপ কথা বলেন, তাহলে একটা ঘুষি অবশ্যই তার প্রাপ্য। সেটা স্বাভাবিক নয় কি! আপনি কাউকে উস্কানি দিতে বা অন্যের ধর্মের অবমাননা করতে পারেন না। অন্যের ধর্মবিশ্বাস নিয়ে উপহাস করতে পারেন না।

পোপের মন্তব্য নিয়ে ওই অনুষ্ঠানে ক্যামেরনকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমি মনে করি, মুক্ত সমাজে কারও ধর্মবিশ্বাসে আঘাত করে মন্তব্য করার অধিকার যে কারও আছে। আমি খ্রীস্টান, কেউ যদি যিশুকে নিয়ে কোনও বাজে মন্তব্য করে, তবে আমার মনে আঘাত লাগতে পারে। তবে একটি মুক্ত সমাজের মানুষ হিসেবে তার বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেয়ার অধিকার আমার নেই। আমাদের এটা মেনে নিতে হবে যে, সংবাদপত্র ও সাময়িকীগুলো এমন কিছু প্রকাশ করতেই পারে, যাতে কিছু মানুষ আহত হতে পারে।

প্রকাশিত : ২০ জানুয়ারী ২০১৫

২০/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: