কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

খেলার সংক্ষিপ্ত সংবাদ

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী ২০১৫
  • ওয়ান্ডারার্সে ডি ভিলিয়ার্সের বিশ্ব রেকর্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইংরেজী ওয়ান্ডার মানে ‘বিস্ময়’, ওয়ান্ডারার্স ‘বিস্ময়ে’। জোহানেসবার্গের নিউ ওয়ান্ডারার্স স্টেডিয়াম যেন ক্রিকেটের সত্যিকারের এক বিস্ময়! যেটি আরও একবার দেখল বিশ্ববাসী। রবিবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে পাগলপাড়া হলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। ১৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি, ৩১ বলে সেঞ্চুরি- ওয়ানডেতে দু’ক্ষেত্রেই প্রেটিয়া সেনাপতি গড়লেন নতুন বিশ্ব রেকর্ড! মাত্র ৪৪ বলে ৯ চার ও ১৬ ছক্কায় ১৪৯ রানের ম্যারাথন ইনিংসের পথে ওলটপালট করে দিলেন এক দিবসীয় ক্রিকেটের আরও অনেক সমীকরণ।

৫০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৪৩৯ রানের পাহাড় গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। তার মানে দুই অপরাজিতসহ ব্যাট করেছেন চারজন, ডেভিড মিলার অপরাজিত ০, বাকি তিন ব্যাটসম্যানের তিনজনই হাঁকিয়েছেন সেঞ্চুরিÑ ডি ভিলিয়ার্স ১৪৯, রাইলি রোজাউ ১২৮ ও হাশিম আমলা অপরাজিত ১৫৩! ওয়ানডের ইতিহাসে এমন ঘটনাও এই প্রথম, যেখানে ‘বল ফেস’ করা প্রত্যেকে পেয়েছেন সেঞ্চুরি! কাল ওয়ান্ডারার্সে যা ঘটেছে তার বর্ণনা দিতে গেলে প্রতিটি বাক্যে আশ্চর্যবোধক চিহ্ন ব্যবহার করতে হবে। ১১তম ওয়ানডেতে রোজাউ প্রথম সেঞ্চুরি, আমলার ক্যারিয়ারসেরা। কিন্তু ব্যাট হাতে রেকর্ড গড়ে তাদের ম্লান করে দিয়েছেন ডি ভিলিয়ার্স। ১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন পাকিস্তানী তারকা শহীদ আফ্রিদি।

দ্রুততম সেঞ্চুরির সেই রেকর্ড টিকে ছিল ১৮ বছর। গত বছরের প্রথম দিন (২০১৪) সেটি ভেঙ্গে দিয়ে ৩৬ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন নিউজিল্যান্ডের কোরি এ্যান্ডারসন, কাকতালিয় এই ওয়েস্ট ইন্ডিজেরই বিপক্ষে। এবার মাত্র এক বছরের ব্যবধানে কোরিকে ম্লান করে দিয়ে নায়ক ডি ভিলিয়ার্স। ১৬ বলে ৩ চার ও ৫ ছক্কায় হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করা প্রিটোরিয়ান প্রতিভাবান উইলোবাজ রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরির মাইলস্টোনে পৌঁছান মাত্র ৩১ বলে, চার ৯ ও ছক্কা ১৬টি! বিস্ময়ে ঘোরলাগানিয়া ব্যাটিং বলতে যা বোঝায়। ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান নয়, মাঠের বাইরে গ্যালারির দর্শকদের ফিল্ডার বানিয়ে নেন ডি ভিলিয়ার্স। ১৭ বলে হাফ সেঞ্চুরির আগের রেকর্ডটি ছিল সাবেক শ্রীলঙ্কান তারকা সনাথ জয়সুরিয়ার, ১৯৯৬ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে।

১৬ ছক্কা রোহিত শর্মার সঙ্গে যৌথভাবে ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বাধিক ছক্কার রেডর্ক। সময়ের হিসেবে ১৯ মিনিটে হাফ সেঞ্চুরি হাঁকানো ডি ভিলিয়ার্স সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মাত্র ৪০ মিনিটে। তিন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিও ওয়ানডেতে নতুন রেকর্ড (দলীয় ইনিংসে)। ৪৩৯ ওয়ানডেতে দ্বিতীয় দলীয় সংগ্রহের নজির। ৯ উইকেটে ৪৪৩ রান করে এ তালিকায় সবার ওপরে শ্রীলঙ্কা, ২০০৬ সালে হল্যান্ডের বিপক্ষে। ওয়ানডেতে সবচেয়ে বেশি রান টপকে জয়ের রেকর্ড প্রোটিয়াদের দখলে, ৪৩৮/৯ (৪৯.৫ ওভার), অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে, ২০০৬ সালে। কোথায় জানেন? এই ওয়ান্ডারার্সেই!

অস্কার, কোস্তার নৈপুণ্যে চেলসির গোলবন্যা

জয়ে ফিরল ম্যানইউ, লিভারপুলের সহজ জয়,

চেলসি ৫-০ সোয়ানসি সিটি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ২-০ কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্স,

লিভারপুল ২-০ এ্যাস্টন ভিলা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে জয় পেয়েছে ফেবারিটরা। শনিবার অনুষ্ঠিত ম্যাচে চেলসি ৫-০ গোলে সোয়ানসি সিটিকে, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ২-০ গোলে কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্সকে ও লিভারপুল একই ব্যবধানে পরাজিত করে এ্যাস্টন ভিলাকে। সব দলই জয় পেয়েছে প্রতিপক্ষের মাঠে।

অন্য ম্যাচে ক্রিস্টাল প্যালেস ৩-২ গোলে বার্নলিকে, স্টোক সিটি ১-০ গোলে লিচেস্টার সিটিকে, টটেনহ্যাম হটস্পার ২-১ গোলে সান্ডারল্যান্ডকে ও সাউদাম্পটন একই ব্যবধানে পরাজিত করে নিউক্যাসল ইউনাইটেডকে।

সোয়ানসিকে গোলবন্যায় ভাসিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান মজবুত করেছে চেলসি। ২২ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে জোশে মরিনহোর দল। রবিবার রাতের ম্যাচের আগে ২১ ম্যাচে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থান বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। ৪২ পয়েন্ট নিয়ে সাউদাম্পটন তৃতীয় ও ৪০ পয়েন্ট নিয়ে ম্যানইউর অবস্থান চতুর্থ।

স্বাগতিক সোয়ানসির মাঠে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে অতিথি চেলসি। যার ফল হিসেবে প্রথম মিনিটেই এগিয়ে যায় দ্য ব্লুজরা। ম্যাচের ৪৯ সেকেন্ডে গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার অস্কার। গোলটিতে বড় ভুল ছিল আইসল্যান্ডের মিডফিন্ডার জিলফি সিগার্ডসনের। ডি বক্সের সামনে সতীর্থকে ব্যাক পাস দিতে গিয়েছিলেন সিগার্ডসন। কিন্তু তার দুর্বল পাস পেয়ে যান অস্কার। ডানদিক থেকে বল পায়ে খানিকটা এগিয়ে গিয়ে কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। পরের মিনিটেই ভুলের দায় মেটাতে পারতেন সিগার্ডসন, কিন্তু তার দুর্দান্ত শটটা বারে লেগে প্রতিহত হয়। ২০ মিনিটে দিয়াগো কোস্তার গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে চেলসি। ২৯ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান তারকা উইলিয়ানের জোরালো শট পোস্টে লাগলে হতাশ হয় চেলসি সমর্থকরা। তবে ৩৪ মিনিটে কোস্তা নিজের দ্বিতীয় ও দলের হয়ে তিন নম্বর গোল করেন। এর ফলে লীগের সর্বোচ্চ গোলদাতা কোস্তার গোলসংখ্যা দাঁড়াল ১৭। ১৪ গোল করে সেরা গোলদাতার তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছেন ম্যানচেস্টার সিটির সার্জিও এ্যাগুয়েরো। দুই মিনিট পর অস্কারের দুই নম্বরে সোয়ানসির জালে এক হালি গোল হওয়া নিশ্চিত হয়। চার গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় অতিথিরা। বিরতির পর ৭৯ মিনিটে গোললাইনের কাছ থেকে সার্বিয়ার ডিফেন্ডার ব্রানিসøাভ ইভানোভিচের বাড়ানো বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে চেলসির হয়ে পঞ্চম গোল করেন বদলি হিসেবে নামা জার্মানির স্ট্রাইকার আন্দ্রে শুরলে। ম্যাচ শেষে চেলসি কোচ জোশে মরিনহো আবারও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার প্রত্যয়ের কথা শোনান। তিন ম্যাচ পর জয়ে ফিরেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। গত বছরের শেষ সপ্তাহে টটেনহ্যাম হটস্পারের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করার পর নতুন বছরের প্রথম দিনেও স্টোক সিটির সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে রেড ডেভিলসরা। এরপর সাউদাম্পটনের কাছে নিজেদের কাছে ১-০ গোলে হারে ওয়েন রুনির দল। এই ধাক্কা কাটিয়ে পরশু জয়ের ধারায় ফিরেছে ইপিএলের সর্বোচ্চ ২০ বারের চ্যাম্পিয়নরা। স্বাগতিক কিউপিআর অবশ্য প্রথমার্ধে আটকেই রেখেছিল অতিথিদের। বিরতির পর দুই গোল করে আত্মবিশ্বাস ফেরানো জয় পায় লুইস ভ্যান গালের দল। ম্যাচের ৫৮ মিনিটে ইউনাইটেডকে এগিয়ে দেন মারোয়ান ফেলাইনি। ডানদিক থেকে ইকুয়েডরের মিডফিল্ডার এ্যান্টোনিও ভালেন্সিয়ার পাস পেয়ে গোলটি করেন বদলি হিসেবে নামা বেলজিয়ামের মিডফিল্ডার। ম্যাচের শেষ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বদলি হিসেবে নামা জেমস উইলসন। আর্র্জেন্টাইন মিডফিল্ডার এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার পাস থেকে গোলটি করেন ইংলিশ স্ট্রাইকার। স্বাগতিক এ্যাস্টন ভিলার বিরুদ্ধে সহজ জয় পায় লিভারপুল। ভিলা পার্কে দ্য রেডসদের হয়ে একটি করে গোল দেন ফ্যাবিও বোরিনি ও রিকি ল্যাম্বার্ট। ম্যাচের ২৪ মিনিটে প্রথম গোল পায় লিভারপুল। জর্ডান হেন্ডারসনের ক্রস থেকে পোস্টের খুব কাছাকাছি স্থানে থাকা বোরিনি গোলটি করেন। বিরতির পর ৭৯ মিনিটে দৃষ্টিনন্দন গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন লিভারপুলের ল্যাম্বার্ট। স্বাগতিকদের এক ফুটবলারের ভুল পাসে বল পেয়ে গিয়েছিলেন রাহিম স্টার্লিং। তার বাড়ানো বল এ্যাস্টন ভিলার জালে জড়িয়ে দেন ল্যাম্বার্ট।

প্রথম ওয়ানডেতে হার যুবাদের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শ্রীলঙ্কা অনুর্ধ-১৯ দলের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে হেরেছে বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৯ দল। ৭ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ যুবারা। ম্যাচে আগে ব্যাট করে নাজমুল হোসেন শান্তর ৭০ রানে ২০২ রান করে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৯ দল। অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ করেন ৪৮ রান। চারিথ আসালাক নেন ৪ উইকেট। জবাবে ৩ উইকেটে ২০৫ রান করে ম্যাচ জিতে যায় স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা অনুর্ধ-১৯ দল। শ্রীলঙ্কার হয়ে লাসিথ লাকসান সর্বোচ্চ ৬৯ রান করেন। চারিথের ব্যাট থেকে আসে ৬৫ রান। শাওন গাজী নেন ২ উইকেট। শ্রীলঙ্কা সফরটি হার দিয়েই শুরু করল অনুর্ধ-১৯ দল। শুক্রবার শ্রীলঙ্কায় গিয়ে রবিবারই ৫টি এক দিনের ম্যাচের সিরিজ খেলতে নামে যুবারা। ৫টি একদিনের ম্যাচের সিরিজ শেষে দুটি তিনদিনের ম্যাচও অনুষ্ঠিত হবে। পরের একদিনের ম্যাচগুলো হবে যথাক্রমে ২০, ২২, ২৪ ও ২৫ জানুয়ারি। ২৮ জানুয়ারি প্রথম তিনদিনের ম্যাচটি শুরু হবে। দ্বিতীয়টি শুরু হবে ফেব্রুয়ারি মাসের ২ তারিখে। এ সিরিজ নিয়ে আশাবাদি ছিলেন বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৯ দলের অধিনায়ক মিরাজ। বলেছিলেন, ‘আমাদের মূল টার্গেট সিরিজ জয় করা। সামনে আমাদের অনুর্ধ-১৯ বিশ্বকাপ। সেই লক্ষ্যে এখন প্রত্যেকটা ম্যাচই আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। কেননা, আমাদের মূল লক্ষ্য এখন থেকে বিশ্বকাপ ঘিরেই; বিশ্বকাপের আগে যে সিরিজগুলো খেলব সেগুলোতে ভাল পারফর্মেন্স প্রদর্শন করা। অধিনায়ক হিসেবে খেলোয়াড়দের পারফর্মেন্স করানোটা আমার দায়িত্বের মধ্যেই পড়ে। আমাদের দলের মধ্যে ভাল কম্বিনেশন আছে, এটাকে ধরে রাখতে হবে। ওখানে গিয়ে ভাল একটা রেজাল্ট পেলে আমাদের আত্মবিশ্বাস বেড়ে যাবে। যা বিশ্বকাপে কাজে দেবে। তবে ম্যাচ বাই ম্যাচ জিততে চাই। হোয়াইটওয়াশ করতে পারলে সেটা আরও ভাল হবে।’ হোয়াইটওয়াশের স্বপ্ন শেষ। এখন সিরিজ জেতাই মূল লক্ষ্য থাকছে যুবাদের।

রোনাল্ডোর জোড়া গোলে রিয়াল

মাদ্রিদের জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘আমরা নিশ্চিত করতে পারি, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর সঙ্গে ইরিনা শায়াক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে।’ নিউইয়র্ক পোস্ট রবিবার এমন বোমাফাটানো খবরই জানায়। এনিয়ে এখন ফুটবলবিশ্বে আলোচনার ঝড়। জীবনের এত বড় ঝড়ও রোনাল্ডোর মাঠের পারফর্মেন্সে প্রভাব ফেলতে পারেনি। তার প্রমাণ মিলেছে স্প্যানিশ লা লিগার ম্যাচে। রবিবার দুর্দান্ত নৈপুণ্য প্রদর্শন করেন টানা দুইবারের ফিফা সেরা ফুটবলার। করেন জোড়া গোল। সি আর সেভেনের দুই ও গ্যারেথ বেলের আরেক গোলে এ্যাওয়ে ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদ ৩-০ গোলে পরাজিত করে স্বাগতিক গেটাফেকে।

দ্বিতীয়ার্ধে মাত্র ১৬ মিনিটের ঝড়ে সাবলীল জয় পায় রিয়াল। এর আগে ম্যাচের প্রথমার্ধে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নদের রুখে দিয়েছিল স্বাগতিকরা। ৬৩ মিনিটে রিয়ালকে প্রথম গোল উপহার দেন সদ্যই বিবাহবিচ্ছেদ ঘটা রোনাল্ডো। চার মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ওয়েলস তারকা গ্যারেথ বেল। ৭৯ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় ও দলের তিন নম্বর গোল করেন রোনাল্ডো।

এই জয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান আরও মজবুত করেছে রিয়াল। ১৮ ম্যাচ শেষে সর্বোচ্চ ৪৫ পয়েন্ট ভা-ারে গ্যালাক্টিকোদের। সমান ম্যাচে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে বার্সিলোনা। সমান ৩৮ পয়েন্ট করে নিয়ে এর পরের দুই অবস্থান ভ্যালেন্সিয়া ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের।

শুরু থেকেই প্রতিপক্ষের উপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে রিয়াল। কিন্তু ভুল পাস আর মিসের কারণে প্রথমার্ধে গোল পায়নি কার্লো আনচেলত্তির দল। যে কারণে ম্যাচ শেষে সন্তুষ্ট হতে পারেননি ইতালিয়ান এই কোচ। তিনি বলেন, আমরা অনেক ভুল করেছি। আমার পাসিংয়ে ও বল নিয়ন্ত্রণে ভাল করতে পারিনি। এই বিষয়গুলো সামনের ম্যাচগুলোতে শুধরাতে হবে। তা না হলে খারাপ ফলাফলের জন্যও প্রস্তুত থাকতে হবে। গেটাফে কোচ কুইক সানচেজের জন্য ম্যাচটি ছিল আবেগের। কেননা একসময় তিনি রিয়াল মাদ্রিদের কোচ ছিলেন। তবে সেটা রিয়ালের যুব দলের।

মাশরাফি, সাকিবদের ছাড়াই এনসিএল শুরু ২৫ জানুয়ারি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জাতীয় ক্রিকেট লীগ (এনসিএল) শুরু হচ্ছে ২৫ জানুয়ারি। চারদিনের এ প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটের প্রথম দুই রাউন্ডের সিডিউল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। প্রথম রাউন্ডে মিরপুরে ঢাকা-বরিশাল, বিকেএসপি, রাজশাহী-ঢাকা মেট্রো, ফতুল্লায় রংপুর-চট্টগ্রাম, খুলনা-সিলেটে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। লীগের শুরুতে খেলতে পারবেন না জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। যখন লীগ শুরু হবে তখন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা বিশ্বকাপ খেলতে অস্ট্রেলিয়ায় থাকবেন। আট বিভাগে প্রতিটি দলে ১৮ জন করে ক্রিকেটার নেয়া হয়েছে। বরিশাল বিভাগে শাহরিয়ার নাফীস, ফজলে মাহমুদ, সালমান হোসেন, মোঃ সজীব, মোঃ নুরুজ্জামান, কামরুল ইসলাম, আবু সায়েম, মোঃ মানিক, ইসলামুল আহসান, ফরিদউদ্দিন মাসুদ, নাসুম আহমেদ, সোহাগ গাজী, অভিষেক মিত্র, আল আমিন, মোঃ শাহীন হোসেন, ফোরকান, শহীদুল, সাঈফ হাসান আছেন। রংপুর বিভাগে সোহরাওয়ার্দী শুভ, মাহমুদুল হাসান, লিটন কুমার, আরিফুল হক, নাঈম ইসলাম, ধীমান ঘোষ, তানভির হায়দার, সাজেদুল ইসলাম, শুভাশিস রায়, বিশ্বনাথ হালদার, নবিন ইসলাম, আব্দুর রহমান, জাহিদ জায়েদ, সাইমন আহমেদ, সাদ্দাম হোসেন, তারিক আহমেদ, আশিষ বাপ্পী, সন্দ্বীপ সাহা আছেন। চট্টগ্রাম বিভাগে নাফিস ইকবাল, নাজিমউদ্দিন চৌধুরী, মাহবুবুল করিম, ফয়সাল হোসেন, ইয়াসিন রাব্বি, ইরফান সুকুর, জসিমউদ্দিন, আলাউদ্দিন বাবু, নাঈম ইসলাম জুনিয়র, নুর হোসেন, সাজু দত্ত, আলী আকবর, সাইফুদ্দিন, মেহেদী হাসান, তানভির হোসেন, ইফতিখার সাজ্জাদ, আরিফুল হাসান, মনিরুজ্জামান আছেন। রাজশাহী বিভাগে ফরহাদ রেজা, ফরহাদ হোসেন, জহুরুল ইসলাম, জুনায়েদ সিদ্দিকী, যুবায়ের আহমেদ, সাকলায়েন সজিব, সানজামুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, হামিদুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন, মুক্তার আলী, তৌহিদুল তারেক, সাফাক আল জাবির, মাইশুকুর রহমান, নাজমুল হাসান, হাবিবুর রহমান, মাহিমিনুল চৌধুরী, শফিউল ইসলাম আছেন। ঢাকা মেট্রোতে সৈকত আলী, সাদমান ইসলাম, মেহেদী মারুফ, শামসুর রহমান, মার্শাল আইয়ুব, আসিফ আহমেদ, শরীফুল্লাহ, জাবিদ হোসেন, আসিফ হাসান, ইলিয়াস সানি, মোঃ শহীদ, আবু হায়দার রনি, সোহাগ রেজা, মেহরাব হোসেন, তাসামুল হক, করিম রনি, মাইনুল ইসলাম, আশিকুজ্জামান আছেন। খুলনা বিভাগে আব্দুর রাজ্জাক, ইমরুল কায়েস, মোঃ মিঠুন, তুষার ইমরান, নাজমুস সাদাত, জিয়াউর রহমান, রবিউল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুরাদ খান, অমিত মজুমদার, মুস্তাফিজুর রহমান, রবিউল ইসলাম, আবু বকর, ডলার মাহমুদ, মেহেদী হাসান, নাহিদুল ইসলাম, সৈয়দ রাসেল, নুরুল হাসান সোহান আছেন। ঢাকা বিভাগে মোহাম্মদ শরীফ, রকিবুল হাসান, শুভগত হোম, রনি তালুকদার, আব্দুল মজিদ, নাদিফ চৌধুরী, মোশাররফ হোসেন, শাহাদাত হোসেন, তায়েবুর রহমান, নাজমুল ইসলাম, মোসাদ্দেক হোসেন, দেওয়ান সাব্বির, নাসিরুদ্দিন ফারুক, জুবায়ের হোসেন, মোঃ মাসুম, রবিন মাহবুব, সাগীর হোসেন, জনি তালুকদার আছেন। সিলেট বিভাগে ইমতিয়াজ হোসেন, রুম্মন আহমেদ, অলক কাপালী, রাজিন সালেহ, ইজাজ আহমেদ, নাজমুল হোসেন মিলন, আবুল হাসান, নাজমুল হোসেন, আবু জায়েদ, এনামুল হক, নাবিল সামাদ, সায়েম আলম, সাদিকুর, রাহাতুল ফেরদৌস, জাকির হাসান, শাহনাজ আহমেদ, ইমরান, আনোয়ার রয়েছেন।

বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া উদ্বোধনী

ম্যাচ সিলেটে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী ২৯ জানুয়ারি ৬ দল নিয়ে শুরু হবে আন্তর্জাতিক ফুটবল আসর তৃতীয় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল আসর। উদ্বোধনী ম্যাচে মালয়েশিয়ার বিরুদ্ধে স্বাগতিক বাংলাদেশ দল মুখোমুখি হবে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে। সবমিলিয়ে এ স্টেডিয়ামে প্রথম তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ফাইনাল ও দুটি সেমিফাইনালসহ বাকি ম্যাচগুলো ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে হবে। দুই গ্রুপে তিনটি করে দল রয়েছে। গ্রুপ পর্বে পরস্পরের সঙ্গে একটি করে ম্যাচ শেষে শীর্ষে থাকা দুটি করে মোট চারটি দল সেমিফাইনালে উঠবে। ৮ ফেব্রুয়ারি ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। মোট ৯ ম্যাচ। সবই বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায় শুরু হবে। ‘এ’ গ্রুপে আছেÑ বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া ও শ্রীলঙ্কা এবং ‘বি’ গ্রুপে আছে বাহরাইন, সিঙ্গাপুর ও থাইল্যান্ড।

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবলের সময়সূচী

তারিখ ম্যাচ ভেন্যু সময়

২৯ জানুয়ারি বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া সিলেট স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

৩০ জানুয়ারি সিঙ্গাপুর-থাইল্যান্ড সিলেট স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

৩১ জানুয়ারি মালয়েশিয়া-শ্রীলঙ্কা সিলেট স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

১ ফেব্রুয়ারি বাহরাইন-সিঙ্গাপুর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

২ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

৩ ফেব্রুয়ারি থাইল্যান্ড-বাহরাইন বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

৫ ফেব্রুয়ারি প্রথম সেমিফাইনাল বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

৬ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় সেমিফাইনাল বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

৮ ফেব্রুয়ারি ফাইনাল বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম বিকেল ৫টা

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী ২০১৫

১৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: