কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সেরেনা-শারাপোভাই ফেবারিট

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী ২০১৫
সেরেনা-শারাপোভাই ফেবারিট

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আজ থেকে শুরু হচ্ছে মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। মহিলা এককে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লি না এবার নেই। এই শিরোপা জিতেই গত মৌসুমে টেনিসকে বিদায় বলেন তিনি। তার আগের দুইবারের চ্যাম্পিয়ন ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কাও হারিয়ে খোঁজছেন নিজেকে। তাই গত এক দশকের পরিসংখ্যান বলে এবারের আসরের ফেবারিট তারকা সেরেনা উইলিয়ামস। ২০০৩ থেকে ২০১০ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে পাঁচবার ফাইনালে উঠে সবসময়ই শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছেন তিনি। যে কারণে এবারও শিরোপার দৌড়ে এগিয়ে শীর্ষ বাছাই যুক্তরাষ্ট্রের সেরেনা উইলিয়ামস। সেরেনার পাশাপাশি শিরোপার অন্যতম দাবিদার দ্বিতীয় বাছাই মারিয়া শারাপোভাও। তবে চমক দেখানোর সম্ভাবনা রয়েছে তৃতীয় বাছাই রোমানিয়ার সিমোনা হ্যালেপ ও চতুর্থ বাছাই চেক প্রজাতন্ত্রের পেত্রা কেভিতোভা, সার্বিয়ার আনা ইভানোভিচ-ডেনমার্কের ক্যারোলিন ওজনিয়াকির কিংবা এ্যাগ্নিয়েস্কা রাদওয়ানাস্কা এবং এ্যাঞ্জেলিক কারবার। আর নবীনদের মধ্যে সেরার তকমটা গায়ে মেখে কোর্টে নামবেন কানাডার ইউজেনি বাউচার্ড কিংবা সানিবে লিসিকিরা। ২০০৩ সালে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতেন সেরেনা উইলিয়ামস। এরপর পাঁচবার এই ইভেন্টে চ্যাম্পিয়ন হন তিনি। কিন্তু তারপরও অস্ট্রেলিয়ান শিরোপা জয়ের জন্য ক্ষুধাটা অনেক বেশিই তার কাছে। কারণ গত চার মৌসুমে এই শিরোপার স্পর্শ করা হয়নি তার। তাই শিরোপা নিয়ে চিন্তা-ভাবনাটা অনেক বেশিই তার কাছে। তবে গত কয়েক বছরের দুঃস্মৃতিটা মুছে ফেলে ২০১০ সালের পর আবারও শিরোপা জয়ের জন্য বদ্ধপরিকর সেরেনা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘গেল তিন মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন বাদে অন্য তিনটি গ্র্যান্ডসøামের শিরোপা জয় করা হয়েছে। একমাত্র এটিই ছোঁয়া হয়নি। তবে এবার এই শিরোপা স্পর্শ করতে আমি উদগ্রীব।’

শিরোপার পাশাপাশি র‌্যাঙ্কিং নিয়েও চিন্তার ভাজ আছে সেরেনার কপালে। হিসাব-নিকাশ বলছে, এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠতে সেরেনা ব্যর্থ হলেই র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানটি শারাপোভা, হালেপ ও কেভিতোভার আয়ত্তে চলে যেতে পারে। যদি এই তিন তারকার কেউ শিরোপা জিতে নিতে পারেন। তাই শিরোপার সঙ্গে র‌্যাঙ্কিং নিয়েও কথা বললেন সেরেনা, ‘র‌্যাঙ্কিং নিয়েও অনেক হিসাব-নিকাশ জানতে পেরেছি। শীর্ষস্থানে যে কোন খেলোয়াড়ই উঠতে চায়। তা করার জন্য কঠোর পরিশ্রম করতে প্রস্তুত। শীর্ষে উঠার সুযোগ আরও তিন খেলোয়াড়ের তৈরি হয়েছে। তবে আমিও জানি কিভাবে তা ধরে রাখতে হয়। এটিই করে দেখাব এই টুর্নামেন্টে।’ সেরেনার মতো শিরোপা জিততে না পারার কষ্ট রয়েছে শারাপোভারও। ২০০৮ সালে সর্বপ্রথম ও সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতেছিলেন তিনি। তাই শিরোপা জিতে অতীতের দুঃখগুলো ভুলে যেতে চান শারাপোভাও, ‘গেল ছয় বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে কিছুই অর্জন করতে পারিনি। ভাল খেলেও বিদায় নিতে হয়েছে। তবে আগের ভুলগুলো এবার আর করতে চাই না। শিরোপা জয়ের জন্যই খেলতে নামব। শিরোপা জিততে পারলে, র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠারও একটা দারুণ সুযোগ থাকবে।’

সেরেনা-শারাপোভার মতো তেমন ফেবারিট না হলেও, ফেবারিটদের তালিকায় রয়েছেন সিমোনা হ্যালেপ। গত বছর ও সাম্প্রতিক ফর্মের কারণে আলোচনায় রয়েছেন তিনি। দুর্দান্ত পারফর্মেন্সে উপহার দিয়েই বছরের শুরুতে শেনঝেনের শিরোপা জেতে এবারের আসরের তৃতীয় বাছাই হয়েছেন হ্যালেপ। তবে অতীতের রেকর্ড বলছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে ভাল ফল করতে পারেনি তিনি। গত আসরেই প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে সমর্থ হন হ্যালেপ। তবে এসব নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত নন তিনি। এবারের আসরে নতুনভাবে শুরু করে চমক দেখাতে চাইছেন হালেপ, ‘অতীত রেকর্ড ভাল না আমার। তবে সম্প্রতি ফর্ম আমাকে আত্মবিশ্বাসী করতে তুলেছে। আশা করছি ভাল পারফর্মেন্স দেখাতে পারব। শিরোপা নিয়ে এখনই ভাবছি না। লক্ষ্য শুরু থেকেই ভাল খেলে যাওয়া।’ হ্যালেপের মতো স্পট লাইটে আছেন পেত্রা কেভিতোভাও। তবে গত আসরের স্মৃতি এখনও পীড়া দেয় তাকে। কারণ ওই আসরের প্রথম পর্ব থেকেই বিদায় নেন কেভিতোভা। স্মৃতিটা টাটকা হলেও, এবারের আসরের ভাল করে তা দ্রুত ভুলতে চাইছেন তিনি, ‘খুব দ্রুতই গত আসরের পারফর্মেন্স ভুলতে চাইছি আমি। জানি এটি ভুলে যাওয়া সহজ কাজ নয়। তবে এবারের আসরে যদি ভাল কিছু করতে পারি, তবে ওই কষ্ট সহজেই মুছে যাবে। আমি কোর্টে নামার জন্য অস্থির হয়ে আছি। গ্র্যান্ডসøামের যে কোন টুর্নামেন্টে খেলতেই আমি খুব পছন্দ করি। এবারও এটি উপভোগ করতে চাই এবং ভাল কিছু করে দেখাতে চাই।’

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী ২০১৫

১৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: