আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রোনাল্ডো-ইরিনার ছাড়াছাড়ি!

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী ২০১৫
রোনাল্ডো-ইরিনার ছাড়াছাড়ি!
  • বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রুশ মডেলের প্রতিনিধি, ৫ বছরের সম্পর্কের অবসান

১স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিষয়টি আঁচ করা গিয়েছিল গত ১২ জানুয়ারি। ওইদিন ফিফা ব্যালন ডি’অর অনুষ্ঠানে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর পাশে ছিলেন না বান্ধবী ইরিনা শায়াক। গুঞ্জনের শুরু তখনই। তাহলে কী ফাটল ধরেছে রোনাল্ডো-ইরিনার সম্পর্কে? তখন সি আর সেভেন আর শায়াক দু’জনই বিষয়টি উড়িয়ে দিয়েছিলেন।

কিন্তু মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে জানা গেল, ঘটনা সত্য। তার মানে যা রটে, তা বটেও। শনিবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম নিশ্চিত করেছে রোনাল্ডো ও ইরিনার মধ্যে বিচ্ছেদ হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে তাদের পাঁচ বছরের মধুর সম্পর্কেরও ইতি ঘটেছে। শুধু গত এক সপ্তাহই নয়, এই দুই তারকার মধ্যে নাকি গত কয়েক মাস ধরেই ভাল সম্পর্ক যাচ্ছিল না। বিষয়টি চূড়ান্ত রূপ ধারণ করে, সম্প্রতি রোনাল্ডোর মায়ের জন্মদিনে ইরিনা না যাওয়ায়। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে চূড়ান্ত সম্পর্কের অবনতি ঘটে। যে কারণে দু’জনের ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

আগেরবার ফিফা ব্যালন ডি’অর অনুষ্ঠানে মধ্যমণী ছিলেন ইরিনা। সেরা হিসেবে সি আর সেভেনের নাম উচ্চারিত হওয়ার পর পাশে বসা বান্ধবীর লাল গালে চুম্বন এঁকে দিয়েছিলেন রোনাল্ডো। এবারও এমন রোমান্টিক দৃশ্যের অপেক্ষায় ছিলেন সবাই। কিন্তু রাশিয়ান মডেল ইরিনা না আসায় সেটা হয়নি। গুঞ্জনের শুরু তখন থেকেই। সেই থেকে ইরিনা নাকি রোনাল্ডোকে টুইটারে অনুসরণ করাও বন্ধ করে দিয়েছেন। বোমাটা ফাটিয়েছে পর্তুগালের জনপ্রিয় ট্যাবলয়েড কুরিও ডি মানহানা। তারা জানিয়েছে, রোনাল্ডো-ইরিনার বিচ্ছেদ হয়েছে। একদিন পর নিউইয়র্ক পোস্টও ইরিনার প্রতিনিধির উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে, দু’জন এখন দুই মেরুতে। অর্থাৎ ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে ইরিনা ও রোনাল্ডোর মধ্যে। অবশ্য কিছু কিছু মাধ্যম এও জানাচ্ছে, তেমন কিছুই হয়নি; শুধু মনোমালিন্য দু’জনের মধ্যে। শীঘ্রই একসঙ্গে দেখা যাচ্ছে রোনাল্ডো ও ইরিনাকে!

পর্তুগীজ ট্যাবলয়েডটি জানিয়েছে, রোনাল্ডোর তার বান্ধবী ইরিনাকে নিয়ে বড়দিন কাটিয়েছিলেন দুবাইয়ে। এর কয়েক দিন পর ছিল পর্তুগাল অধিনায়কের মা ডোলোরেস আভেইরার ৬০তম জন্মদিন। রিয়াল মাদ্রিদ তারকা চেয়েছিলেন বান্ধবীসহ জন্মশহর পর্তুগালের মাদেইরা যেয়ে মাকে চমকে দেয়ার। মাকে জন্মদিনের উপহার এভাবেই দিতে চেয়েছিলেন ফিফা সেরা ফুটবলার। কিন্তু এতে রাজি হননি ইরিনা। তিনি কিছুতেই পর্তুগালে যেতে চাননি রোনাল্ডোর সঙ্গে। উপায় না পেয়ে একাই মায়ের কাছে ছুটে যান রোনাল্ডো। মায়ের জন্মদিন উদযাপনের পর ছেলেকে নিয়ে সেখানেই সি আর সেভেন উদযাপন করেন নতুন বছর ২০১৫ সাল।

ব্যাস, প্রেমিকের মায়ের জন্মদিনে না যাওয়াটাই নাকি বড় সমস্যা হিসেবে দেখা দেয়। এর কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, গত কয়েক মাস ধরেই রোনাল্ডোর জীবনসঙ্গিনীর সঙ্গে ঠা-া যুদ্ধ চলছে ডোলোরেসের! পত্রিকাটি জানিয়েছে, ইরিনা নাকি রোনাল্ডোর ছেলেকে তেমন দেখাশোনা করেন না। এটা নিয়ে চিন্তিত সি আর সেভেনের মা। তার ধারণা, ইরিনা তার সন্তান লালন-পালনের জন্য যথার্থ নারী নন। তিনি নাকি এমন নারী চাচ্ছেন, যে কিনা ক্রিশ্চিয়ানো জুনিয়রকে ঠিকমতো দেখভাল করতে পারবে। মায়ের কাছে তেমন থাকা হয়নি ক্রিশ্চিয়ানো জুনিয়রের। যে কারণে চার বছরের ছেলেটি থাকে তার দাদিমার কাছেই। এখন দেখা যাক শেষ পর্যন্ত বিষয়টি কতদূর গড়ায় বা আসলেও যা রটেছে তা ঠিক কিনা।

রোনাল্ডোকে খোঁচা দিয়েছেন আয়ারল্যান্ডের মহিলা ফুটবলার স্টেফানি রোচে। তিনি ব্যালন ডি’অর অনুষ্ঠানে সেরা গোলের পুসকাস এ্যাওয়ার্ডে দ্বিতীয় হন। জুরিখে ব্যালন ডি’অর অনুষ্ঠানে একটি ছবি দেখে অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে স্টেফানি হেঁটে যাচ্ছেন মঞ্চের দিকে আর মেসি-রোনাল্ডো মুগ্ধ হয়ে তাকিয়ে আছেন তার পায়ের দিকে। এনিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইরিশ ফুটবলার বলেন, রোনাল্ডোরা নিশ্চয়ই মেঝের দিকে তাকিয়ে। তিনি আরও বলেন, আমি জানি আমাকে এই ছবিটা নিয়ে প্রশ্ন করা হবে। আমার বন্ধুরা পর্যন্ত বলেছে, পুরস্কার পাওনি তো কি হয়েছে। বিশ্বের সেরা দুই ফুটবলারের নজর তো কেড়েছ! তবে আমার বয়ফ্রেন্ড এ নিয়ে চিন্তিত নয়। কারণ ও জানে আমি কোথাও যাচ্ছি না।

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী ২০১৫

১৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: