আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শিশু চামচে খেলে মুটিয়ে যায়!

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী ২০১৫
শিশু চামচে খেলে  মুটিয়ে যায়!

মা-বাবা সাধারণত শিশুকে হাত দিয়ে খাইয়ে দেন। আবার অনেকে শিশুকে খাওয়ানোর জন্য চামচের সাহায্য নেন। তবে শিশুদের চামচে করে খাওয়ানোকে নেতিবাচকভাবেই দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের অভিমত, এতে বাচ্চাদের মুটিয়ে যাওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়। পেডিয়াট্রিক ওবেসিটি সাময়িকীতে প্রকাশিত একটি গবেষণা প্রতিবেদনে যুক্তরাজ্যের বিশেষজ্ঞরা শিশুদের খাওয়ানোর ধরনের ওপর নতুন এ তথ্য জানান। ২৯৮টি শিশুকে দুটি পর্যায়ে পর্যবেক্ষণ ও তথ্য বিশ্লেষণ শেষে তাঁরা শিশুদের খাওয়ানোর পদ্ধতির ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেন।

বিশেষজ্ঞরা প্রথমে শিশুদের ছয় মাস থেকে এক বছর বয়স পর্যন্ত পর্যবেক্ষণ করেন। এ সময় শিশুদের নতুন খাবারের সঙ্গে কিভাবে অভ্যস্ত করানো হচ্ছে, সেটা খতিয়ে দেখা হয়। এরপর দেড় থেকে দুই বছর বয়সে ওই সব শিশুর ওজন ও খাদ্যাভ্যাস বিশ্লেষণ করা হয়। এতে দেখা যায়, মায়ের দুধ ছাড়ানোর সময়টায় যেসব শিশুর মধ্যে নিজে নিজে খাওয়ার অভ্যাস তৈরি করা হয়েছে, তাদের ওজন অতিরিক্ত বাড়েনি। কিন্তু যেসব শিশুর ক্ষেত্রে মা-বা অন্য কারোর মাধ্যমে চামচে করে খাইয়ে দেয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা হয়েছে, তাদের ওজন একটু বেশিই বেড়েছে।

এর কারণ ব্যাখ্যায় যুক্তরাজ্যের সোয়ানসি ইউনিভার্সিটির ড. এমি ব্রাউন জানান, বাড়ন্ত বয়সে শিশুদের নিজের পছন্দে এবং নিজ হাতে খেতে দিলে তারা নিজেদের খাবারের চাহিদা বুঝতে শেখে এবং পেট ভরে গেলে খাওয়া বন্ধ করে দেয়। পাশাপাশি নতুন নতুন খাবারের প্রতিও তাদের আকর্ষণ তৈরি হয়। এটা শিশুর জন্য স্বাস্থ্যকর। কিন্তু শিশুকে সব সময় সব খাবার একসঙ্গে মেখে অন্য কেউ চামচে তুলে খাইয়ে দিলে তার মধ্যে এ ধরনের অভ্যাস গড়ে ওঠে না। এমনটা চলতে থাকলে শিশুর ওজন প্রয়োজনের চেয়ে বেড়ে যায়, যা শিশুস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তাই শিশুকে জোর করে বেশি বেশি না খাওয়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

সায়েন্স ডেইলি অবলম্বনে

ইব্রাহিম নোমান

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী ২০১৫

১৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: