রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

গোপনীয়তার নীতি থেকে সরে আসছে সুইস ব্যাংক

প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারী ২০১৫

কালোটাকাধারীদের প্রিয় ব্যাংক কোনটি এমন প্রশ্ন জিজ্ঞেস করা হলে উত্তর কি হবে? নিঃসন্দেহে সুইস ব্যাংক। সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলো গ্রাহকের গোপনীয়তা রক্ষা করার জন্য প্রশংসিত। সেই সুযোগে কালোটাকাওয়ালারা দেশের মানুষের টাকা মেরে, কর ফাঁকি দিয়ে টাকার পাহাড় জমাচ্ছে সুইস ব্যাংকে। ১৯৩০ এর দশক থেকে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলো গ্রাহকদের আর্থিক লেনদেনের কঠোর গোপনীয়তা রক্ষা করে আসছে। কিন্তু ২০০৮ সালের বিশ্বমন্দার পর থেকে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলো বিশ্বব্যাপী কঠোর সমালোচনার সম্মুখীন হয়। কর ফাঁকি ঠেকানোর জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশ সুইজারল্যান্ডের এই ব্যাংকিং প্রথাকে বাদ দেয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে। কিন্তু এতদিন পর্যন্ত সেই চাপকে উপেক্ষাই করে গেছে সুইজারল্যান্ড। কিন্তু এখন সুইজারল্যান্ড তাদের সেই অবস্থান থেকে সরে এসেছে।

সম্প্রতি দেশটির সরকার একটি খসড়া আইনের প্রস্তাব দিয়েছে, যা পার্লামেন্টে গৃহীত হলে দেশটির ব্যাংকিং খাতের বিদেশী এ্যাকাউন্টের তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিনিময় হয়ে যাবে। গত বছর দেশটি স্বয়ংক্রিয় তথ্য বিনিময় সংক্রান্ত এক আন্তর্জাতিক চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে। তাছাড়া কর সম্পর্কিত তথ্য আদান-প্রদানের এক আন্তর্জাতিক চুক্তিতে দেশটি স্বাক্ষর করে। এরই ধারাবাহিকতায় দেশটির এই উদ্যোগ। অবশ্যই প্রশংসনীয় উদ্যোগ।

বর্তমান নিয়মানুসারে, বিদেশী কোন কর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক অনুরোধ পেলে তবেই নিজ দেশে রক্ষিত ওই দেশের নাগরিকের ব্যাংক এ্যাকাউন্ট সম্পর্কে তথ্য প্রকাশ করে সুইজারল্যান্ড। এ প্রস্তাব অনুমোদিত হয়, তাহলে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই সুইস সরকার বিদেশী কর কর্তৃপক্ষগুলোর সঙ্গে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় তথ্য বিনিময় করবে। এসব তথ্যের মধ্যে থাকবে এ্যাকাউন্টহোল্ডারের নাম, ব্যাংক ব্যালান্স এবং সুদ ও লভ্যাংশ সম্পর্কিত তথ্য। এই খসড়া আইনটি আগামী ২১ এপ্রিল পর্যন্ত পর্র্যালোচনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পর্যালোচনা শেষে অনুমোদনের জন্য পার্লামেন্টে পাঠান হবে। এমনকি প্রয়োজনে গণভোটও হতে পারে। সুইজারল্যান্ডের এই উদ্যোগে বিভিন্ন দেশের রাজস্ব বিভাগ বেশ খুশি হলেও স্বাভাবিকভাবেই কালোটাকাধারীরা বেশ ভয়েই আছে।

অর্থনীতি ডেস্ক

প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারী ২০১৫

১৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: