কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পুড়িয়ে মানুষ হত্যার জন্য একদিন খালেদারও বিচার হবে ॥ নাসিম

প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারী ২০১৫
  • কোন খুনীর সঙ্গে সংলাপের প্রশ্নই উঠে না

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর ॥ আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, পেট্রোল বোমায় মানুষ হত্যাসহ সকল জ্বালাও-পোড়াও হত্যাকাণ্ডের অভিযোগে বেগম খালেদা জিয়াকেও একদিন বিচারের আওতায় আনা হবে। খালেদা জিয়া প্রতিহিংসার জ্বালায় নোংরা রাজনীতিতে মেতে উঠেছেন। এর ফল কখনই ভাল হবে না। ২০১৯ সালের আগে দেশে কোন নির্বাচন হবে না। আর কোন খুনীর সঙ্গে সংলাপেরও প্রশ্ন ওঠে না।

শনিবার বিকেলে রংপুরের মিঠাপুকুরে গত মঙ্গলবার অবরোধকারী সন্ত্রাসীদের নিক্ষিপ্ত পেট্টোল বোমায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে ৫ জন নিহত হওয়ার ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে স্থানীয় শাপলা চত্বরে ১৪ দল আহূত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, খালেদা জিয়াকে কেউ অবরোধ করে রাখেনি। খালেদা জিয়া নিজেই ঘরে অবরুদ্ধ হয়ে গুণ্ডা-পাণ্ডাদের লেলিয়ে দিয়ে জ্বালাও-পোড়াও, অগ্নিসংযোগ আর মানুষ হত্যার নির্দেশ দিচ্ছেন। পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করছেন। এসব আর বরদাশ্সত করা হবে না।

মিঠাপুকুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজাম্মেল হক মিন্টুর সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন রংপুর বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, কেন্দ্রীয় কোষাধ্যক্ষ এইচএন আশিকুর রহমান এমপি, জাসদ কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান এমপি, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত রাঙ্গা, ওয়ার্কার্স পাটির নজরুল ইসলাম হাক্কানী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজউদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রেজাউল করীম রাজু, কেন্দ্রীয় ছাত্র নেতা ফখরুল ইসলাম লিউ প্রমুখ।

অগ্নিদগ্ধ হয়ে নিহতের স্বজনদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে আপনাদের সমবেদনা জানাতে রংপুরে এসেছি। বিএনপি-জামায়াত জোট আজ মা, বোন, সন্তানকে হত্যা করেছে। এটা কোন্ রাজনীতির ভাষা? খালেদা জিয়াকে উদ্দেশে করে তিনি বলেন, দেশের কৃষক-শ্রমিক, মেহেনতি জনগণ সবাই আজ ভাল আছে। কিন্তু আপনি প্রতিহিংসার জ্বালায় দগ্ধ হয়ে এসব নোংরা রাজনীতিতে মেতে উঠেছেন। এর ফল কখনই ভাল হবে না।

গত ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় নির্বাচনের কথা উল্লেখ করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ওই সময় গাইবান্ধায় বিএনপি-জামায়াত জোট ৭ জনকে খুন করেছে। নির্বাচনের সময় আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেগম জিয়াকে ফোন করে বলেছিলেন, আসেন গণভবনে আলোচনায় বসেন, এক সঙ্গে চা খাই। দেশের সঙ্কট নিয়ে আলোচনা করি। কিন্তু খালেদা জিয়া ওই সময় সেই আহ্বানে সাড়া দেননি। তিনি জামায়াতের সঙ্গে হাত মিলিয়ে নির্বাচন বানচাল করতে চেয়েছিলেন। ওই সময় দেশে কেয়ামতের মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছিল তারা। তারা নির্বাচনে অংশ না নিয়ে প্রিসাইডিং অফিসার, পুলিশ বিজিবিসহ একের পর এক সাধারণ মানুষকে হত্যা করেছে। কিন্তু এত কিছু করেও খালেদা জিয়ারা নির্বাচন ঠেকাতে পারেননি।

তিনি বলেন, দেশে বর্তমানে বিদ্যুতের কোন সমস্যা নেই, কৃষকরা এখন ন্যায্যমূল্যে সার পায়। মানুষ এখন খেয়ে পড়ে ভাল আছে। জানুয়ারিতে কোটি কোটি বই বিতরণ করা হচ্ছে। দেশের রাস্তাঘাট সকল কিছুর উন্নয়ন করা হচ্ছে। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না থাকলে এগুলো হতো না। পাকিস্তানে জঙ্গীরা স্কুলছাত্রদের হত্যা করেছে। উত্তরাঞ্চলে বাংলা ভাই ও জঙ্গী ছিল। তাদের শেখ হাসিনা দমন করেছেন। একাত্তরের যুদ্ধাপরাধী, ’৭৫-এর খুনীদের বিচার করেছেন। খালেদা জিয়ার পুত্র কুলাঙ্গার-বেয়াদব তারেক রহমান ইংল্যান্ডে পালিয়ে থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে কটূক্তি করছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা আইয়ুব খানের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছি। কিন্তু মানুষ হত্যার নির্দেশ দেইনি। পুলিশ হত্যার নির্দেশ দেইনি। আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকেও আঘাত করিনি। শেখ হাসিনা কখনই এই নির্দেশ দেন না। অথচ খালেদা জিয়া এই কাজ করছেন। তারা এখন পেট্রোল বোমায় মানুষ খুন করছে। তিনি বলেন, ২০১৯ সালের আগে আর কোন নির্বাচন নয় এবং কোন খুনীর সঙ্গেও কোন সংলাপ বা আলোচনা নয়। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন ভারত থেকে সার্টিফিকেট আনার চেষ্টা করছেন। বিজেপি সভাপতির সঙ্গে কথা না বলে মিথ্যাচার করেছেন। এরশাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এরশাদ সাহেব আর ভুল করবেন না, সেই কারণেই তাঁকে আমরা সঙ্গে নিয়েছি। রংপুরের মানুষ এরশাদের প্রতি সহানুভূতিশীল। খালেদা জিয়া ফেরাউনের মতো জামায়াতকে সঙ্গে নিয়ে মিঠাপুকুরসহ সারাদেশে মানুষ হত্যা করছে, মা-বোন-শিশুদের হত্যা করছে, পুড়িয়ে মারছে। এর বিচার হবেই।

জামায়াতকে আঁস্তাকুড়ে নিক্ষেপ করতে হবে ॥ গাইবান্ধা থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মো. নাসিম বলেছেন, জামায়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলে এদের রাজনীতি থেকে আঁস্তাকুড়ে নিক্ষেপ করতে হবে। তিনি বলেন, ’৭১ সালে তারা যেভাবে মানুষ হত্যা করেছে একই কায়দায় তারা গাড়িতে আগুন দিয়ে মানুষ হত্যার রাজনীতি শুরু করছে।

অবরোধের নামে নাশকতা ও সহিংসতার প্রতিবাদে রংপুরে জনসভায় যোগ দিতে যাওয়ার পথে শনিবার বিকেলে রংপুর-বগুড়া মহাসড়কে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার চৌরঙ্গী মোড়ে অনির্ধারিত এক পথসভায় তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য গোবিন্দগঞ্জে জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ এমপি, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কাজী সাখাওয়াত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান বাবলু, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকারিয়া ইসলাম জুয়েল প্রমুখ। মন্ত্রী রংপুরের জনসভা সফল করতে সকল নেতাকর্মীদের জনসভায় যোগদানের আহ্বান জানান। পথসভা শেষে সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে অবরোধের প্রতিবাদে একটি বিশাল মিছিল গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারী ২০১৫

১৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: