আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘নবধারার আসল বিএনপি’ নামে নতুন দল

প্রকাশিত : ১৭ জানুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ এবার খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নেতৃত্বাধীন বিএনপিকে অবৈধ দাবি করে ‘নবধারার আসল বিএনপি’ নামে একটি নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই নতুন দলের নাম ঘোষণা করে দলটির মুখপাত্র কামরুল হাসান নাসিম বলেন, এটি হচ্ছে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে গঠিত নবধারার আসল বিএনপি। তিনি নিজেকে আসল বিএনপির নেতা দাবি করে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে ২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে পদত্যাগ করার আল্টিমেটাম দিয়ে বলেন, অন্যথায় আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগরীর সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নিয়ে তাকে পদত্যাগে বাধ্য করা হবে। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া দেশে নগ্ন রাজনীতি করছেন। আর তারেক রহমান বিদেশে বসে তালেবানি কায়দায় দেশকে পাকিস্তান বানানোর চেষ্টা করছেন।

নিজেকে বিএনপির ক্রান্তিকালীন রাজনীতির মুখপাত্র দাবি করে কামরুল হাসান নাসিম বলেন, জিয়াউর রহমানের আদর্শ ও দলের গঠনতন্ত্র থেকে দূরে সরে গেছেন খালেদা জিয়া ও তাঁর ছেলে তারেক রহমান। তাই ২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে খালেদা জিয়া দলের আদর্শচ্যুত নেতাদের নিয়ে পদত্যাগ না করলে এবং সব কমিটি ভেঙ্গে না দিলে ৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগরের সকল পর্যায়ের এক হাজার ৭শ’ নেতাকর্মীকে নিয়ে তাকে পদত্যাগে বাধ্য করা হবে এবং জিয়ার বিএনপিকে পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করা হবে। এছাড়া ৩০ জানুয়ারি ঢাকায় তৃণমূল নেতাকর্মীদের নিয়ে একটি অর্থবহ সমাবেশ করবে নবযাত্রার বিএনপি। আর ৬ ফেব্রুয়ারি আরও একটি সংবাদ সম্মেলন করা হবে। এতে দলের উল্লেখযোগ্য তিনজন মুখপাত্র বক্তব্য রাখবেন। সংবাদ সম্মেলনে নিজেকে সাংবাদিক, গবেষক, টক শো উপস্থাপক ও রাজনীতিক বলে পরিচয় দেন কামরুল হাসান নাসিম। এর আগে তিনি ‘গড়বো বাংলাদেশ’ নামের একটি সংগঠনের মুখপাত্র ছিলেন। বিএনপির অঙ্গসংগঠন কৃষক দলেরও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তিনি। উল্লেখ্য, ৯ জানুয়ারি এক অনুষ্ঠানে তিনি নতুন বিএনপি গঠনের ঘোষণা দিয়েছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে কামরুল হাসান বলেন, তাঁরা জিয়াাউর রহমানের আদর্শের মূল ধারার বিএনপি পুনঃপ্রতিষ্ঠা করবেন। আগামী ১৫ থেকে ৪৫ দিনের মধ্যে গ্রহণযোগ্য সব নেতাকে ‘নবধারার বিএনপি’তে দেখা যাবে। এই বিএনপি ২০২৫ সালের মধ্যে দেশকে উচ্চ আয়ের রাষ্ট্র করার উদ্যোগ নেবে। এ দল আওয়ামী লীগের সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় অন্যায়েরও প্রতিবাদ করবে। তিনি বলেন, দলের প্রায় দেড় থেকে দুই কোটি সমর্থক যেভাবে আছেন সেভাবেই থাকবেন। আগামী ৬ মাসের মধ্যে দলের সব পর্যায়ের কাউন্সিলে নতুন নেতৃত্ব উঠে আসবে। কেন্দ্রীয় কাউন্সিলও জুনের মধ্যে সেরে ফেলা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে কামরুল হাসান বলেন, বিএনপির সব পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে নতুন বিএনপি গঠনের বিষয়ে তাঁর কথা হয়েছে। কৌশলগত কারণে এখন সবার নাম প্রকাশ করা হচ্ছে না। তিনি বলেন, বিএনপির অসুখ হয়েছে। বিএনপির অসুখ সারাতে তাঁকে ডেকেছে কি না বা তিনি অযাচিত কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি অযাচিত চিকিৎসক হব কেন? নতুন রাজনৈতিক দল পরিচালনায় আয়ের উৎস জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, আয়ের উৎস তিনি নির্বাচন কমিশনকে জানাবেন। নতুন বিএনপির প্রধান কার্যালয়ের ঠিকানা জানতে চাইলে অপকটে নাসিম বলেন, আমাদের কার্যালয় নয়া পল্টন ও গুলশানে। ওইখানে আমাকে পাওয়া যেতেই পারে। তবে এখন গুলশান কার্যালয় মহিলা দলের আয়ত্তে। তাহলে নয়া পল্টন যাচ্ছেন না কেন? জবাবে তিনি বলেন, ওখানে আমাকে পাওয়া যেতে পারে ‘ওয়েট এ্যান্ড সি’। সময় হলে নয়া পল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এবং গুলশান কার্যালয়েও সংবাদ সম্মেলনে করবে নবযাত্রার বিএনপি।

নাসিম বলেন, খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন বিএনপিতে গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি নেই। সব সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন দু’জন ব্যক্তি। খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মামলা থেকে অব্যাহতি পেতে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নাশকতার পথ নিতে বাধ্য করা হচ্ছে। আর সাম্রাজ্যবাদী শক্তিকে হাজির-নাজির করে এগোচ্ছে বিএনপি। খালেদা জিয়া নেতৃত্বাধীন বিএনপি দলকে জঙ্গীবাদ ও ধ্বংসাত্মক কর্মকা-ের দিকে ঠেলে দিচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ক্রান্তিলগ্নে দলের অসুস্থতাকে ঠিক করতে আমি চিকিৎসক মাত্র। বিএনপি আপনাকে ডাকবে কি? জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি আমাকে ডাকবে কেন? সকল পর্যায়ে কথা বলেই আমি সামনে এসেছি, আমি একা নই। আর কে সাধারণ থেকে অসাধারণ হবে তা সময় বলে দেবে। রাষ্ট্রযন্ত্র চালাতে পারব কিনা তখন সে ধারণা পাওয়া যবে। বিএনপির কোন পর্যায়ের নেতারা আপনার সঙ্গে আসবে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, যখন আর্মি ক্যু হয় তখন আসে মিড লেভেল থেকে, তবে আমি কোন ক্যু করিনি। যদিও অনেক সময় ক্যু জাতিকে এগিয়েও নিয়ে গেছে।

সংবাদ সম্মেলনে ১০ পৃষ্ঠার লিখিত বক্তব্য পাঠকালে এক পর্যায়ে সাংবাদিকদের অনুরোধে কামরুল হাসান এই বক্তব্যকে পঠিত বলে গণ্য করা হোক বলে প্রশ্নোত্তর পর্বে যান কামরুল হাসান। সরকার যদি মধ্যবর্তী নির্বাচন দেয় তাহলে কোন প্রতীকে নির্বাচন করবেন- জানতে চাইলে নাসিম বলেন, চেষ্টা করে যাব নেতৃত্ব সংস্কারের। সংস্কার হলে ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করব। তিনি বলেন, বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা জিয়াউর রহমানের বিএনপিতে আজ ব্যক্তিকেন্দ্রিক রাজনীতির চর্চা চলছে।

প্রকাশিত : ১৭ জানুয়ারী ২০১৫

১৭/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: