আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক স্থাপত্য সম্মেলন শুরু

প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মানুষ, প্রকৃতি ও পরিবেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে স্থাপত্যকলায় আধুনিকতার প্রতিফলন ঘটাতে স্থপতিদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানানোর মধ্য দিয়ে রাজধানীতে শুরু হলো তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক স্থাপত্য সম্মেলন। একইসঙ্গে ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য সুন্দর আবাসভূমি রেখে যাবার দায়িত্ব থেকেই নগর পরিকল্পনাবিদ, রাজনীতিবিদ ও ভবন মালিকদেরও পরিবেশবান্ধব হওয়ার আহ্বান জানানো হয় সম্মেলন মঞ্চ থেকে।

বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের আয়োজনে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হলো ‘এনগেজ ঢাকা ২০১৫’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক স্থাপত্য সম্মেলন। রাজধানীর শেরেবাংলা নগর সংলগ্ন বিজয় সরণির সামরিক জাদুঘরে অনুষ্ঠিত দেশের এ বৃহত্তম আন্তর্জাতিক স্থাপত্য সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেছেন বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ১৪ জন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন স্থাপত্যচিন্তাবিদ, ইতিহাসবিদ, তাত্ত্বিক, শিক্ষক ও পেশাজীবী স্থপতি। প্রথমবারের মতো আয়োজিত স্থাপত্য সম্মেলনকে উৎসর্গ করা হয়েছে বাংলাদেশে আধুনিক স্থাপত্যচর্চার পুরোধা মাজহারুল ইসলামকে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সম্মেলন উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এবং বিদ্যুত, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নাসরুল হামিদ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ইন্সটিটিউট অব আর্কিটেক্টের প্রেসিডেন্ট আবু সাইদ আহমেদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন এই স্থাপত্য সম্মেলনের পরিচালক স্থপতি কাশেফ মাহবুব চৌধুরী। সভাপতিত্ব করেন বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আবুল খায়ের। সঞ্চালনায় ছিলেন বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক লুভা নাহিদ চৌধুরী।

বক্তারা বলেন, দেশের সাংস্কৃতিক বিকাশে স্থাপত্য-ঐতিহ্যের তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। দেশের স্থাপত্যচর্চা এবং চিন্তায় প্রতিফলিত হয় জাতির রুচি ও মনন। কেবল ব্যবহারিক বিষয় হিসেবে জ্ঞান করলে স্থাপত্যের শিল্পমূল্য বিলীন হয়ে যায়। শিল্পকলার অন্য সব শাখার মতো, স্থাপত্য শিল্প চেতনাও দেশ-কাল-সমাজ-ইতিহাস দ্বারা প্রভাবিত ও বিবর্তিত হয়। পাঠ-পঠন, আধুনিক মনন এবং সমকালীন ভাবনার প্রেক্ষাপটে এই শিল্প চেতনা পরিশীলিত হয়। উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পর স্থপতি মাজহারুল ইসলামের ওপর এবং তাঁর স্থাপত্যশৈলী নিয়ে আলোচনা করেন স্থপতি শামসুল ওয়ারেস। পরে মাজহারুল ইসলামকে নিয়ে এনামুল করিম নির্ঝর নির্মিত ‘তিনি’ তথ্যচিত্রটি দেখানো হয়। এরপরে পর পর দুটি অধিবেশন হয়। প্রথমটিতে বক্তব্য রাখেন উইলিয়াম জে আর কার্টিজ। পরের অধিবেশনে শামসুল ওয়ারেস ও জে আর কার্টিজ দু’জনে আলোচনায় অংশ নেন।

আজ শুক্র ও কাল শনিবার প্রভাতকালীন অধিবেশন শুরু হবে সকাল ১০টায়। চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত। বক্তারা প্রায় ৫০ মিনিটি ধরে তাঁদের কাজ, স্থাপত্যচিন্তা ও দর্শন নিয়ে আলোচনা করবেন। প্রতিদিনের অধিবেশন শেষ হবে দিনের বক্তাদের নিয়ে একটি মুক্ত আলোচনার মধ্য দিয়ে।

প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারী ২০১৫

১৬/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: