মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

হরতাল অবরোধেই দ্বিতীয় পর্বের এজতেমা শুরু আজ

প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারী ২০১৫
  • পথে পথে মুসল্লিদের দুর্ভোগ

মোস্তাফিজুর রহমান টিটু/নূরুল ইসলাম, টঙ্গী থেকে ॥ ২০ দলীয় তথা বিএনপি-জামায়াত জোটের অনির্দিষ্টকালের অবরোধ হরতালের মধ্যে প্রথম পর্বের বিশ্ব এজতেমা শেষে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব এজতেমাও অবরোধের মাঝেই শুরু হচ্ছে। আজ শুক্রবার থেকে তিন দিনব্যাপী বিশ্ব এজতেমার দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হবে টঙ্গীর বিশ্ব এজতেমা ময়দানে। রবিবার হবে আখেরি মোনাজাত। মুসল্লি ও সাধারণ মানুষের শত অনুরোধ সত্ত্বেও হরতাল অবরোধ প্রত্যাহার না করায় এক প্রকার অনিশ্চয়তার মাঝে মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে মুসল্লিরা দ্বিতীয় পর্বের এজতেমায় আসতে শুরু করেছেন। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা মুসল্লিরা ব্যাপক আতঙ্ক নিয়ে পথ পাড়ি দিয়েছেন বলে তবলীগ অনুসারী মুসল্লিরা জানিয়েছেন। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ বিশ্বের প্রায় শতাধিক দেশের লাখ লাখ মুসল্লি দ্বিতীয় পর্বের এজতেমায় যোগ দেবেন। দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব এজতেমা সম্পন্ন করতে তবলীগ অনুসারী মুসল্লিরা স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে এক বর্গকিলোমিটারের প্যান্ডেলটিকে মুসল্লিদের অবস্থানের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত করেছেন প্রথম পর্বের ৪ দিন বিরতির মাঝে। ইতোমধ্যে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও পায়ে হেঁটে মুসল্লিরা এজতেমা মঠে আসতে শুরু করেছেন।

এজতেমা উপলক্ষে জেলা প্রশাসকের প্রেস ব্রিফিং ॥ এদিকে গাজীপুর জেলা প্রশাসক বৃহস্পতিবার দুপুরে এজতেমা উপলক্ষে এক প্রেস ব্রিফিং-এ বলেন, জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুম স্থাপন, হোটেল-রেস্তরাঁয় পচা-বাসি খবার বিক্রি রোধকল্পে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, বিদেশী মেহমানদের আবাসস্থল নির্মাণে টিন সরবরাহ করা, মুসল্লিদের চলাচল নির্বিঘœ করার জন্য রাস্তা ও ফুটপাথ অবৈধ দখলমুক্ত রাখতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফুটপাথের দোকানপাট ও হকার উচ্ছেদ ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, ছিনতাই, পকেটমার রোধকল্পে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, ট্রাফিক ব্যবস্থা সমুন্নত রাখতে ফিটনেস ও কাগজপত্রবিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে, রাস্তার দু’পাশের বিলবোর্ড, ব্যানার, পোস্টার অপসারণে ক্র্যাশ প্রোগ্রাম পরিচালনা, ইজতেমা এলাকায় সিনেমা হল বন্ধসহ অশ্লীল পোস্টার অপসারণ, সুষ্ঠু পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য এজতেমা ময়দানে ১০ ড্রাম কেরোসিন, ৭৫ ড্রাম ব্লিচিং পাউডার সরবরাহ করা হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক মোঃ নূরুল ইসলাম। এজতেমার প্রথম পর্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালতে বিভিন্ন আইনে (বিশুদ্ধ খাদ্য আইন, মোটর ভ্যাহিকেল এ্যাক্ট, ভোক্তা অধিকার দন্ড বিধি ইত্যাদি আইনের আওতায় ৫৬টি মামলা রুজু করাসহ জরিমানা আদায় করা হয় ৮৫,৫০০ টাকা। বিশ্ব এজতেমার দ্বিতীয় পর্বেও এসব কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারী ২০১৫

১৬/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: