মূলত রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের খোলা বাজার থেকে বিদ্যুত ক্রয় অনুমোদন

প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারী ২০১৫

বিডিনিউজ ॥ তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে ভারতের ‘খোলা বাজার’ থেকে ৫০ মেগাওয়াট পর্যন্ত বিদ্যুত কেনার একটি প্রস্তাবে সায় দিয়েছে সরকার। সরবরাহ ব্যবস্থায় ‘সিস্টেম লসের’ কারণে ভারত থেকে আমদানি করা বিদ্যুতের ঘাটতি মেটাতে প্রয়োজন অনুযায়ী দৈনিক ভিত্তিতে ৩০ থেকে ৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুত কিনতে সরকারের এই উদ্যোগ।

এই বিদ্যুত কেনার জন্য ‘এজেন্ট’ হিসেবে কাজ করবে ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি এনভিভিএন। ভারতের বিভিন্ন ছোট বিদ্যুত কেন্দ্র থেকে বিদ্যুত কিনে চাহিদা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশকে সরবরাহ করবে। প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের জন্য দামের বাইরে কমিশন হিসেবে তারা নেবে শূন্য দশমিক শূন্য চার নয় (০.০৪৯৬৩৬) টাকা। আর বিদ্যুতের দাম নির্ভর করবে ভারতীয় বাজারের ওপর। বুধবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে সরকারী ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় এ বিষয়ে অনুমোদন দেয়া হয়। সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্মসচিব মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, এজেন্টের মাধ্যমে দৈনিক ভিত্তিতে বিদ্যুত কেনার জন্য এক বছরের চুক্তি হবে। প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম কেমন পড়বে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এই দাম সব সময় ওঠানামা করে। তবে ২০১৪ সালে সর্বনিম্ন দাম ছিল ১ দশমিক ৭১ রুপী, আর সর্বোচ্চ ৪ দশমিক ১৮ রুপী।’ ২০১৩ সালের ৫ অক্টোবর থেকে ভারতের বহরমপুর থেকে বাংলাদেশের ভেড়ামারা গ্রিড উপকেন্দ্রে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত আমদানি করা হচ্ছে। কিন্তু বিতরণ লাইনের সিস্টেম লসের কারণে ৩০ থেকে ৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুত কম পাওয়া যাচ্ছে।

ওই ঘাটতি পূরণের জন্যই ভারতের খোলা বাজার থেকে বিদ্যুত কেনার এই সিদ্ধান্ত।

এছাড়া ক্রয় কমিটির সভায় শিকলবাহা পিকিং পাওয়ার প্ল্যান্টে ‘ডুয়েল ফুয়েল সিস্টেম’ সংযোজনের জন্য একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এজন্য ব্যয় হবে ২৬০ কোটি ৬৯ লাখ টাকা।

প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারী ২০১৫

১৫/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: