কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

নতুন ধারাবাহিকে চম্পা

প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারী ২০১৫
নতুন ধারাবাহিকে চম্পা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ টেলিভিশনের জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘উজান গাঙের নাইয়া’ নাটকের দ্বিতীয় সিরিজে অভিনয় করলেন বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেত্রী চম্পা। নতুন এই ধারাবাহিক নাটকে সুলতানার চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। জর্জিস বাশার পরিচালিত ‘উজান গাঙের নাইয়া’ নাটকে দেখা যাবে সুলতানা খুব ভাল মানুষ হলেও তার স্বামী খুবই লোভী। একসময় স্বামীর আচরণের প্রতিবাদ করে সুলতানা, যার ফলস্বরূপ সে তার ভুল বুঝতে পারে এবং নিজেকে সংশোধন করে। এর আগে আরও কয়েকটি বক্তব্যধর্মী নাটকে কাজ করলেও চিত্রনায়িকা চম্পা কাজ করেন খুব বেছে বেছে। বিবিসি মিডিয়া এ্যাকশন প্রযোজিত ‘উজান গাঙের নাইয়া’র বক্তব্যগুলোই সবচেয়ে বেশি আকর্ষণ করেছে অভিনেত্রী চম্পাকে।

নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে চম্পা বলেন, একজন শিল্পীর সামাজিক দায়বদ্ধতা অনেক। আর ‘উজান গাঙের নাইয়া’য় কাজ করে সেই দায়বদ্ধতা পালনের সুযোগ পেয়েছি। গুণী এই অভিনেত্রী বলেন, মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা মানুষকে সঠিক পথটি দেখাতে পারি। আর এক্ষেত্রে একজন শিল্পীর ভাবমূর্তি ও গ্রহণযোগ্যতাও বেশ বড় ভূমিকা রাখতে পারে। সাধারণ একজন মানুষের মুখ থেকে শোনার চেয়ে একজন প্রিয় শিল্পীর কাছ থেকে কিছু শুনলে মানুষ সেটিকে আরও বেশি বিশ্বাস করে। তিনি বলেন, এখানে শুধু কাজই নয়, শিল্পী থেকে শুরু করে অন্য কর্মীদের প্রতি যে দায়িত্বশীলতা সেটাও ছিল লক্ষণীয়। তিনি আরও বলেন, বিবিসির সঙ্গে কাজ করার আগ্রহ সবসময়ই ছিল। আর উজান গাঙের নাইয়া’য় কাজ করতে গিয়ে বিবিসির গোছালো কাজের ধরন খুব ভাল লেগেছে। এই ধারাবাহিকটিতে অল্প বয়সে বিয়ে ও মা হওয়ার নেতিবাচক দিক এবং সেই সঙ্গে একজন নারীর অর্থনৈতিক ও সামাজিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়ার প্রয়োজনীয়তার দিকগুলো তুলে ধরা হয়েছে। আমার নিজের বিশ্বাসের সঙ্গে সঙ্গে এই নাটকের বক্তব্যবের মিল খুঁজে পেয়েছি আমি। চম্পা আরও বলেন, এখানে শুধু কাজই নয়, শিল্পী থেকে শুরু করে অন্য কর্মীদের প্রতি যে দায়িত্বশীলতা সেটাও ছিল লক্ষণীয়। বিবিসির সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে গৌতম ঘোষ, বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত, সন্দীপ রায়ের মতো পরিচালকদের সঙ্গে কাজ করার কথা মনে পড়ে গেছে আমার। প্রসঙ্গত, স্বাস্থ্য সচেতনতা এবং উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষের জীবন মান সচেতনায় গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ থাকায় নাটকটি দর্শকদের কাছে জনপ্রিয় হয়। এ কারণে ধারাবাহিক ‘উজান গাঙের নাইয়া’ নাটকের প্রথম সিরিজের সাফল্যের পর ধারাবাহিকটির দ্বিতীয় সিরিজ নির্মিত হয়েছে। দ্বিতীয় সিরিজেও উঠে এসেছে উপকূলীয় অঞ্চলের জেলে পরিবারগুলোর জীবন সংগ্রামের গল্প। দ্বন্দ্ব, সংঘাত ও ভালবাসার এই গল্পের মধ্যেই মা ও শিশুর স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক বিভিন্ন বক্তব্য তুলে ধরা হয়েছে নাটকটিতে। ‘উজান গাঙের নাইয়া’ বিবিসি আগমনীর বিবিসি মিডিয়া এ্যাকশন, বাংলাদেশের হেলথ প্রজেক্টের একটি অংশ। নাটকটি নির্মিত হচ্ছে যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার আর্থিক সহায়তায়।

প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারী ২০১৫

১৫/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: