আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ফ্রান্স এখনও হুমকির মুখে

প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারী ২০১৫
  • ফরাসী প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি

ফ্রান্স এখনও প্যারিসের বন্দুকধারীদের সহযোগী এবং বিশ্বের সন্ত্রাসী নেটওয়ার্কগুলোর হামলার হুমকির মুখে রয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ম্যানুয়েল ভলজ মঙ্গলবার এ সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছেন। এসব বন্দুকধারী গত সপ্তাহে প্যারিসে হামলা চালিয়ে বেশকিছু ব্যক্তিকে হত্যা করেছিল। ফরাসী নেতারা আরও হামলা রোধের পদক্ষেপ নিয়েছেন এবং দেশটির লালিত মূল্যবোধ সমুন্নত রাখার সংকল্প ব্যক্ত করেছেন। গত সপ্তাহের হামলায় নিহতদের শেষকৃত্য অনুষ্ঠান মঙ্গলবার ইসরাইল ও ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত হয়। খবর গার্ডিয়ান, নিউইয়র্ক টাইমস ও ওয়াশিংটন পোস্টের

ভলজ নিহতদের স্মরণে আয়োজিত ফরাসী পার্লামেন্টের বিশেষ অধিবেশনে ভাষণ দেয়ার সময় তার দেশের জন্য খুবই বড় ও গুরুতর ঝুঁকি রয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেন। একই সময়ে গত সপ্তাহের হামলার মদদদাতাদের খুঁজে বের করতে তল্লাশি অভিযান আরও সম্প্রসারিত করা হয়েছে। খবর বেরিয়েছে, বন্দুকধারীদের একজনের সহযোগীকে কয়েক দিন আগে বুলগেরিয়াতে গ্রেফতার করা হয়। সে সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) জিহাদীদের সঙ্গে যোগ দিতে যাচ্ছিল।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার দেশের প্রতি বিশ্বের সন্ত্রাসীদের হুমকি এখনও বিদ্যমান। সম্ভাব্য সহযোগীদের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা, সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর সদস্যরা বা যারা নির্দেশ দেয় তাদের হামলার গুরুতর ও খুবই বড় ধরনের ঝুঁকি রয়েছে। তিনি ন্যাশনাল এ্যাসেম্বলিতে বলেন, আমি আপনাদের সত্য কথা বলতে বাধ্য। তাদের মোকাবেলা করতে সৈন্য ও পুলিশ নিয়োগ করা হয়েছে। তিনি অসাধারণ পদক্ষেপ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। মঙ্গলবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ ন্যাশনাল এ্যাসেম্বলিতে ইরাকে ইসলামী চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান সম্প্রসারিত করার প্রস্তাব ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে অনুমোদিত হয়। ফরাসী কর্তৃপক্ষ চরমপন্থী বন্দুকধারীদের সহযোগীদের খুঁজে বের করার প্রয়াস জোরদার করেছে। শুক্রবার পূর্ব প্যারিসের এক ইহুদী সুপার মার্কেটে এক বন্দুকধারীর লোকজনকে জিম্মি হিসেবে আটক করার ঘটনায় নিহত চার ইহুদীকে ইসরাইলে সমাহিত করা হয়। সেটি ছিল ইসলামী চরমপন্থীদের তিনদিনের হামলার শেষ দিন। প্যারিসে ওই হামলায় নিহত তিন পুলিশ অফিসারের কফিন সেন্ট্রাল পুলিশ স্টেশনে রাখা হয়। তখন প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ তাদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি বলেন, আমরা যাতে স্বাধীনতার মধ্যে বাঁচতে পারি, সেজন্য তাঁরা প্রাণ দিয়েছেন। অফিসারদের পরিবারগুলোর সদস্যদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমি আপনাদের আশ্বাস দিতে চাই, ফ্রান্সের সবাই আপনাদের বেদনার অংশীদার। ওলাঁদ বলেন, এমনকি হামলার মুখেও আমাদের মহান ও সুন্দর ফ্রান্স নতিস্বীকার করে না; সে মাথা উঁচু করে দাঁড়ায়। বুলগেরিয়ার কর্তৃপক্ষ বুধবার ব্যঙ্গ পত্রিকা শার্লি হেবদোর অফিসে হামলা চালানোর দায়ে সন্দেহভাজন দুই ভাইয়ের অন্যতম শেরিফ কুয়ামির সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত বলে কথিত এক ফরাসী নাগরিককে গ্রেফতার করেছে। কর্তৃপক্ষ মঙ্গলবার এ কথা নিশ্চিত করে।

শার্লি হেবদো পত্রিকার নতুন সংস্করণে মঙ্গলবার মহানবী মুহম্মদ (স.)-এর ছবি ছাপানো হলে ফ্রান্সে আরও সহিংসতা দেখা দেয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। ইসলামী কর্তৃপক্ষগুলো সর্বশেষ কার্টুনের নিন্দা করেছে। আর পত্রিকাটির অফিসে ইতোপূর্বে পরিচালিত হামলায় বেঁচে যাওয়া স্টাফ ওই ছবি ছাপানোর সিদ্ধান্তকে ক্ষমার প্রতীক হিসেবে সমর্থন করেছেন। ফরাসী পুলিশ কর্মকর্তারা মঙ্গলবার বলেন, হামলাকারীদের সেনাবাহিনীতে ব্যবহার্য অস্ত্রশস্ত্র ও বর্মসহ অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি থেকে বোঝা যায় যে, তারা ফ্রান্সের বাইরে থেকে অর্থ সহায়তা পেয়েছিল। তারা সম্ভবত ফ্রান্সের ভেতরে বসবাসরত অন্যদের কাছ থেকেও সহায়তা পেয়েছিল।

প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারী ২০১৫

১৫/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: