আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এক মাস পর পুঁজিবাজারে ৪ শ’ কোটি টাকার লেনদেন

প্রকাশিত : ১৩ জানুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের পুঁজিবাজারে অবশেষে সূচকের সঙ্গে লেনদেন বাড়ল। বেশিরভাগ কোম্পানির দর কমলেও বড় মূলধনী কিছু কোম্পানির সঙ্গে বস্ত্র খাতের কোম্পানিগুলোর দর বাড়ার কারণে সব ধরনের সূচকই বেড়েছে। সাধারণ বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বাড়ার কারণে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের লেনদেন প্রায় ১ম মাস পরে চার শ’ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। গত দুই কার্যদিবসের মতো সোমবারেও ডিএসইতে লেনদেনে আধিপত্য বিস্তার করেছে বস্ত্র খাতটি। সার্বিকভাবে খাতটি ৬০ কোটি টাকার লেনদেন করে মোট ১৫ দশমিক ৪৮ ভাগ দখল করেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সোমবার দিনশেষে ডিএসইর সার্বিক সূচকটি আগের দিনের চেয়ে ১২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৯৫৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩১০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৩০টির, কমেছে ১৪৮টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টি কোম্পানির শেয়ার দর। সেখানে মোট লেনদেন হয়েছে ৪১৭ কোটি ১ লাখ ৯৩ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

রবিবার ডিএসইর এই সূচকটির মোট অবস্থান ছিল ৪ হাজার ৯৪৩ পয়েন্টে। দিনটিতে মোট লেনদেন হয়েছিল ৩০৮ কোটি ৪৪ লাখ ৪৭ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। সে হিসেবে সোমবার ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১০৮ কোটি ৫৭ লাখ ৪৬ হাজার টাকা বা ২৫.২০ শতাংশ।

সোমবার ডিএসইর টপ-২০ তালিকায় থাকা কোম্পানিগুলোর মোট ১৮১ কোটি ৫৫ লাখ ৩৭ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ৪৩.৫৩ শতাংশ। এ দিন ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি শেয়ার লেনদেন হয়েছে অগ্নি সিস্টেমসের। দিনভর এ কোম্পানির ৫১ লাখ ৪০ হাজার ২৭৫টি শেয়ার ১৮ কোটি ৮৮ লাখ ২১ হাজার টাকায় লেনদেন হয়েছে। যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ৪.৫২ শতাংশ। এছাড়া ডেসকোর ১৭ কোটি ৯৭ লাখ, সাইফ পাওয়ারটেকের ১৩ কোটি ৪ লাখ, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের ১০ কোটি ৩৭ লাখ, আরএসআরএম স্টিলের ১০ কোটি ২৪ লাখ, আইডিএলসির ১০ কোটি ১৬ লাখ, লাফার্জ সুরমা সিমেন্টের ১০ কোটি ১৪ লাখ, অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের ৯ কোটি ৯৬ লাখ, আমরা টেকনোলজিসের ৮ কোটি ৯৫ লাখ ও গ্রামীণফোনের ৭ কোটি ৭৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

বাজার সংশ্লিষ্টদের মতে, ডিসেম্বর মাসে বিনিয়োগ গুটিয়ে নিয়ে বর্তমানে নতুন করে বাজারে ফিরেছে প্রাতিষ্ঠানিক ও বড় পুঁজির বিনিয়োগকারীরা। এর ফলে বাজারে বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় মূল্য সূচক ও টাকার অংকে লেনদেন বেড়েছে।

দর বৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : খুলনা প্রিন্টিং এ্যান্ড প্যাকেজিং, নদার্ন জুটস, ঢাকা ডায়িং, দেশবন্ধু পলিমার, সাইফ পাওয়ার টেক, বিডি কম, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন, সুহৃদ ইন্ড্রাস্টিজ, ন্যাশনাল পলিমার, আরএসআরএম স্টিল।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ৭ম আইসিবি, ৪র্থ আইসিবি, সমাতা লেদার, প্রগেসিভ লাইফ, ৩য় আইসিবি, ৫ম আইসিবি, আজিজ পাইপস, ঝিল বাংলা ও এ্যাপেক্স ট্যানারি।

অন্যদিকে ঢাকার মতো চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক ২২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৯২১৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৪৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০৮টির, কমেছে ৯৮টির এবং দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৩টি কোম্পানির। সেখানে লেনদেন হয়েছে ৩০ কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়ার ফান্ডের ইউনিট। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ২৬ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। সেই হিসেবে সোমবার সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৩ কোটি ৯৫ লাখ টাকা।

সিএসইতে লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : অলটেক্স, অগ্নি সিস্টেম, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ, বেক্সিমকো, ঢাকা ডায়িং, সাইফ পাওয়ার টেক, খুলনা প্রিন্টিং এ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেড ও আরএসআরএম স্টিল।

প্রকাশিত : ১৩ জানুয়ারী ২০১৫

১৩/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: