মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পেশোয়ারে আর্মি স্কুল এক মাস পর আবার খুলল

প্রকাশিত : ১৩ জানুয়ারী ২০১৫

দুঃসহ শোক কাটিয়ে প্রায় দীর্ঘ এক মাস পর খুলল পাকিস্তানে পেশোয়ারের আর্মি পাবলিক স্কুল। সোমবার আবারও খুলেছে স্কুলটি। একইসঙ্গে গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর গণহত্যার পর থেকে বন্ধ থাকা খাইবার পাখতুনখোয়ার সব স্কুলসহ দেশটির অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও খুলেছে। খবর ডননিউজ ও বিবিসির।

তালেবান বন্দুকধারীরা তাদের একশ’ ৫০ জন সহপাঠী ও শিক্ষককে হত্যা করে। ভয়াবহ এ হত্যাকান্ডের পর তারা সবুজ স্কুল ব্লেজার, সুপারম্যান লাঞ্চ বক্স নিয়ে এবং তাদের বাবা-মার হাত শক্ত করে আঁকড়ে ধরে স্কুলে আসে। প্রতিবছর নতুন বর্ষে আনন্দ নিয়ে ক্লাস শুরু করলেও আর্মি পাবলিক স্কুলের শিক্ষার্থীরা এবার শুরু করেছে একরাশ বেদনা নিয়ে। সহপাঠী হারানোর বেদনা ও হামলার ভীতি নিয়ে স্কুলে উপস্থিত হয়েছে শিক্ষার্থীরা। নিহত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের প্রতি সমবেদনা ও স্মরণানুষ্ঠানের মাধ্যমে স্কুলটি খোলা হয়। এ সময় স্মরণানুষ্ঠানে যোগ দেন দেশটির সেনাপ্রধান জেনারেল রাহিল শরীফ। এর আগে খাইবার পাখতুনখোয়া প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, কড়া নিরাপত্তার মধ্যে প্রদেশটির সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হয়েছে। ছাত্রছাত্রীরা সোমবার থেকে আবারও স্বাভাবিকভাবে পড়ালেখা শুরু করেছে। ১৬ ডিসেম্বর তালেবান হামলায় আর্মি পাবলিক স্কুলের ১৩২ শিক্ষার্থীসহ অন্তত ১৪১ জন নিহতের পর হামলার আশঙ্কায় খাইবার পাখতুনখোয়াসহ দেশটির অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়। পাশাপাশি নেয়া হয় অতিরিক্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা। ক্লাস শুরু হলেও অনেক অভিভাবকের মধ্যে এখনও ভীতি রয়ে গেছে। হামলায় এক ছেলে হারানো তুফাইল খাত্তাক জানান, তিনি তার অন্য সন্তানকে স্কুলে পাঠাবেন কিনা, সে ব্যাপারে এখনও সিদ্ধান্ত নেননি।

তালেবান হামলায় তুফাইলের বড় ছেলে দশম শ্রেণীর ছাত্র শেরশাহ (১৬) মারা যায়। তার ছোট ছেলে আহমেদ শাহ একই স্কুলে অষ্টম শ্রেণীতে পড়ে।

প্রকাশিত : ১৩ জানুয়ারী ২০১৫

১৩/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: