কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

তবু সন্তুষ্ট বিরাট কোহলি

প্রকাশিত : ১২ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ১৯৪৭-২০১৫। ৬৮ বছরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টেস্ট সিরিজ জয়ের নজির নেই ভারতের! মহেন্দ্র সিং ধোনি, বিরাট কোহলিদের নেতৃত্বে এক ঝাঁক তরুণ ক্রিকেটার নিয়ে এবার ইতিহাস তৈরি করতে চেয়েছিল বর্তমান ক্রিকেটের মোড়ল দেশ। গত বারের (২০১২-১৩) ৪-০তে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা কমিয়ে ২-০ করেছে, তাতে ব্যর্থতার বৃত্ত ভাঙ্গেনি। তবু সন্তুষ্ট নতুন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। সন্তুষ্ট নিজেদের আগ্রাসী মেজাজ আর সুন্দর ভবিষ্যতের বার্তা দিতে পেরে।

‘প্রথম থেকেই আমাদের একটাই লক্ষ্য ছিল, ভাল ক্রিকেটে খেলা, ভাল ফাইট দেয়া। আমার মনে হয় ছেলেরা সেটা করতে পেরেছে। ইচ্ছার সঙ্গে ধৈর্যের মিশ্রণ দেখিয়েছি। ফল ২-০ হলেও সেদিক থেকে সন্তুষ্ট আমি।’ বলেন ধোনির হঠাৎ অবসরে পূর্ণাঙ্গ টেস্ট নেতৃত্ব পাওয়া কোহলি। সিরিজ হারলেও ৪৮ রানে প্রথম এবং ৪ উইকেটে হেরে যাওয়া দ্বিতীয় টেস্টে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে ভারত। শেষ দুই ম্যাচ ড্র করে প্রশংসা কুড়ায় তারুণ্য নির্ভর ভারতীয় দল। সদ্যসমাপ্ত সিরিজটি একেবারে অন্যরকম হয়েছে বলে মনে করেন ক্রেজি কোহলি। ‘গোটা সিরিজে কোন দলই কখনও ভাল জায়গায় ছিল না। যেমন শেষ টেস্টের শেষদিনে এমন একটা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল, যেখানে আমরাও জিততে পারতাম। তখনই আবার অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে ফিরে আসে! শুধু একবার নয়, গোটা সিরিজে অনেকবারই এমন হয়েছে, আমরা দারুণ লড়াই করেছি।’

ইতিবাচক ভাবনার পাশাপাশি দলের দুর্বলতা তুলে ধরে তিনি আরও বলেন, ‘এটা সত্যি যে বোলিং নিয়ে আমাদের অনেক বেশি মনোযোগ দিতে হবে। ব্যাটিংয়েও কিছু কিছু জায়গা নিয়ে ভাবার আছে। আমি বোলারদের বলেছি, ঠিক কোন জায়গায় উন্নতি দরকার। কারণ আমরা সেটা জানি।’ তবে সার্বিক চিত্রে উজ্জ্বল ভবিষ্যতই দেখছেন ভবিষ্যতের কর্ণধার। ‘সামনে খুব ভাল সময় অপেক্ষা করছে। লোকেস রাহুল শুরতেই ইমপ্রেসিভ, বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে। মুরলি বিজয়-অজিঙ্কা রাহানেও ভাল ব্যাটিং করেছে। আমি নিজেও অভিজ্ঞতা অর্জন করছি।’ এটা সত্য পুরো সিরিজে ব্যাট হাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন কোহলি। ৪ সেঞ্চুরি ১ হাফ সেঞ্চুরিতে সিরিজের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬৯২ রান তার। গড় ৮৭। একজন ভারতীয় হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে যা অবিশ্বাস্যই।

ক্রমশ কথা-বার্তায় পরিপক্বতা আসা কোহলি প্রশংসা করেছেন অস্ট্রেলিয়ার। তার বোলাররা ভাল বল করতে পারেনি, উইকেট পেতে ঘাম ছুটেছে, এ ব্যাপারে প্রতিপক্ষের কাছ থেকে শেখার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। ‘অসি বোলাররা জানে কখন-কিভাবে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানকে আউট করতে হয়। এ থেকে আমাদের শেখা উচিত।’

প্রকাশিত : ১২ জানুয়ারী ২০১৫

১২/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: