কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মেডিক্যাল শিক্ষার মান ঠিক রাখতে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত : ১১ জানুয়ারী ২০১৫
মেডিক্যাল শিক্ষার মান ঠিক রাখতে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
  • ১১ নতুন মেডিক্যাল কলেজের কার্যক্রম উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মেডিক্যাল শিক্ষার মান ঠিক রাখতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার নতুন ১১টি মেডিক্যাল কলেজের উদ্বোধনের সময় এ নির্দেশ দেন তিনি। মেডিক্যাল কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বেসরকারী খাতেও প্রচুর মেডিক্যাল কলেজ অনুমোদন দিয়েছি। আরও ৬টি বেসরকারী মেডিক্যাল কলেজ দিচ্ছি। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করব, এই মেডিক্যাল কলেজগুলোর মান যেন ঠিক থাকে। রোগী মারা ডাক্তার যেন না হয়, সেদিকে সবাইকে লক্ষ্য রাখতে হবে। মেডিক্যাল কলেজগুলোয় যথাযথভাবে শিক্ষা কার্যক্রম নিবিড়ভাবে পরিবেক্ষণ করতে হবে। সাতটি বিভাগীয় শহরেই মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে। মেডিক্যাল শিক্ষার্থীদের প্রতি ঠিকমতো লেখাপড়া করে সত্যিকারভাবে মানুষের সেবা করার উদ্দেশ্য নিয়ে বের হওয়ার জন্য আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

দেশ প্রযুক্তিতে কতটা উন্নত হয়েছে তার স্বাক্ষর রেখে ডিজিটাল মাল্টি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরাসরি গণভবন থেকে নব স্থাপিত ১১টি মেডিক্যাল কলেজের ২০১৪-২০১৫ শিক্ষাবর্ষের কার্যক্রম একযোগে উদ্বোধন করেন। নতুন প্রতিষ্ঠিত হওয়া ১১টি মেডিক্যাল কলেজের মধ্যে ছয়টি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে এবং পাঁচটি সেনাবাহিনীর অধীনে। এর ফলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে দেশে সরকারী মেডিক্যাল কলেজের সংখ্যা দাঁড়াল ২৯টিতে এবং সেনা সদরের অধীনে মেডিক্যাল কলেজের সংখ্যা দাঁড়াল ছয়টিতে। এছাড়া দেশে আরও ৬৩টি বেসরকারী মেডিক্যাল কলেজ রয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে কার্যক্রম শুরু করা মেডিক্যাল কলেজগুলো-টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, জামালপুর, পটুয়াখালী ও রাঙামাটিতে। সেনাবাহিনীর অধীনে মেডিক্যাল কলেজগুলো-চট্টগ্রাম, রংপুর, যশোর, বগুড়া ও কুমিল্লায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে এসব এলাকায় বের হয় আনন্দ মিছিল।

শেখ হাসিনা বলেন, চিকিৎসা সেবা মানুষের মৌলিক অধিকার। মানুষ ধুঁকে ধুঁকে মরবে-এটা স্বাধীন বাংলাদেশে হতে পারে না। আওয়ামী লীগ সরকারের সময় বাংলাদেশে প্রায় সাড়ে ১৪ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিক ও ইউনিয়ন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র গড়ে তোলার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ডাক্তারের সংখ্যা এত সীমিত যে, তাদের ওপর অনেক চাপ পড়ে। এজন্য আরও মেডিক্যাল কলেজ দরকার। শেখ হাসিনা বলেন, তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকাকালেই দেশের একমাত্র মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হয়। আরও দুটি মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে। পর্যায়ক্রমে সাতটি বিভাগীয় শহরেই মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে। পরবর্তীতে আরও একটি বিভাগ সসৃষ্ট করার ‘ইচ্ছা’ তার সরকারের রয়েছে বলেও জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্থানীয় পর্যায়ে উচ্চশিক্ষা ও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে প্রতিটি জেলায় একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় করবে সরকার। ৬৪ জেলায় যে পরিমাণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আমাদের প্রয়োজন সে পরিমাণ নেই। বিশেষ করে মেডিক্যাল কলেজ, এই দিকটা খুবই অবহেলিত। আমরা এটা অবহেলিত রাখতে চাই না বলে জানান প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমসহ সামরিক- বেসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্টাফ রিপোর্টার, সিরাজগঞ্জ থেকে জানান, সিরাজগঞ্জের শহীদ এম মনসুর আলী মেডিক্যাল কলেজের প্রথম বর্ষের একাডেমিক কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়েছে। সিরাজগঞ্জ সেবা ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, সিরাজগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য সেলিনা বেগম স্বপ্না, জেলা প্রশাসক বিল্লাল হোসেন, পুলিশ সুপার এস এম এমরান হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল লতিফ বিশ্বাস,সাধারণ সম্পাদক আবু মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া, সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শামসুদ্দিনসহ সরকারী কর্মকর্তা, আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ, মুক্তিযোদ্ধা, চিকিৎসক, নার্স ও সর্বস্তরের জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া থেকে জানান, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে প্রধানমন্ত্রী সংবিধানের মৌলিক অধিকারের ৫টির মধ্যে অন্যতম চিকিৎসা সেবাকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে চিকিৎসক ও নার্সের সংখ্যা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আরও ১১ টি মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষা কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। ভিডিও কনফারেন্সে বগুড়া সেনানিবাসের শহীদ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ আব্দুল বারী অডিটরিয়ামে বগুড়া আর্মি মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষা কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে ১১ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল এ কে এম আব্দুল্লাহিল বাকী প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানানোর পর বগুড়া-১ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল থেকে জানান, শনিবার টাঙ্গাইলবাসীর বহুপ্রতীক্ষিত টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকাল ১০টায় টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেন খাদ্যমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, এমপি।

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাঙ্গামাটি থেকে জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্যবাসীর উদ্দেশে বলেন. আমরা পার্বত্য অঞ্চলের সমস্যাকে রাজনৈতিক সমস্যা হিসাবে ধরে নিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি করে এই অঞ্চলে শান্তি ফিরে এনেছি। এখানে আমরা চোখে পড়ার মতো উন্নয়ন করেছি। তিনি শনিবার সকাল ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বহু প্রতীক্ষিত রাঙ্গামাটি মেডিক্যাল কলেজ উদ্বোধন শেষে পার্বত্যবাসীকে লক্ষ্য করে একথা বলেন। তিনি বলেন, পার্বত্যাঞ্চলের পরিবেশ অত্যন্ত চমৎকার। আমরা এখানে উন্নয়ন করতে চাই। আপনারা আমাদের সহোযোগিতা করুন। শিক্ষার উন্নয়নের জন্য আমরা আজ মেডিক্যাল কলেজ উদ্বোধন করেছি। আগামীতে আমরা বিশ্ববিদ্যালয় উদ্বোধন করব। মেডিক্যাল কলেজ হলরুমে অনুষ্ঠিত এই ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন পার্বত্যাঞ্চলের মহিলা সংসদ সদস্য জেএফ আনোয়ার চিনু। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে রাঙ্গামাটি মেডিক্যাল কলেজ উদ্বোধন করায় পার্বত্যবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান। এর পর পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদারকে রাজা সম্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী কিছু বলার জন্য বললে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, আপনি পার্বত্যাঞ্চলে শান্তি স্থাপন করে এখন উন্নয়ন করছেন। এজন্য আপনাকে ধন্যবাদ। পাহাড়ে উন্নয়নের যে ধারা সৃষ্টি হয়েছে তা আগামীতেও অব্যাহত রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানান দীপংকর তালুকদার । এর পর প্রধানমন্ত্রী আবার ধন্যবাদ জানিয়ে তার ভিডিও কনফারেন্স শেষ করেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা, পটুয়াখালী থেকে জানান, শনিবার সকাল ১০ টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এর মধ্য দিয়ে এ বছর ৫০ শিক্ষার্থী নিয়ে পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা হাসপাতালে প্রাথমিকভাবে মেডিক্যাল কলেজের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হলো।

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে জানান, রংপুর সেনানিবাসে রংপুর আর্মি মেডিক্যাল কলেজের ২০১৪-১৫ শিক্ষা বর্ষের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ উপলক্ষে রংপুর সেনা অডিটরিয়ামে আয়োজন করা হয় ভিডিও কনফারেন্সের। উদ্বোধন শেষে ১১টি জেলার জনপ্রতিনিধি এবং সেনাবাহিনীর বিভিন্ন ডিভিশনের এরিয়া কমান্ডারের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মধ্য দিয়ে কথা শোনেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী রংপুর ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মোঃ সালাউদ্দিন মিয়াজি, সিটি মেয়র শরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু এবং জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি রংপুর অঞ্চলের সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে সিটি কর্পোরেশন মেয়র ঝন্টুর সঙ্গে মতবিনিময় করেন। প্রধানমন্ত্রী রংপুরের উন্নয়নসহ গ্যাস সংযোগের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করবেন বলেও জানান।

রংপুর সেনাবিনাসের ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মোঃ সালাউদ্দিন মিয়াজি আর্মি মেডিক্যাল কলেজের সার্বিক পরিস্থিতি উপস্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে।

নিজস্ব সংবাদদাতা, জামালপুর থেকে জানান, শনিবার সকাল পৌনে ১১টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জামালপুর মেডিক্যাল কলেজের ১ম ব্যাচের ছাত্রছাত্রীদের ওরিয়েন্টশন ক্লাস উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জামালপুর শহরের বৈশাখী মেলা মাঠ প্রাঙ্গণে এক জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জামালপুর-৩(মেলান্দহ-মাদারগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য, বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম। তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ক্লাস উদ্বোধনে সরাসরি কথা বলেন।

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস থেকে জানান, শনিবার বেলা ১১টায় যশোরে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যশোর আর্মি মেডিক্যাল কলেজের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে প্রথমে কথা বলেন-যশোর সেনানিবাসের জিওসি মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমান, এরপর যশোর-৩ সদর আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ। এসময় তারা যশোরে আরও একটি মেডিক্যাল কলেজ উদ্বোধন করার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানে যশোর-২ আসনের এমপি এ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, যশোর-৪ আসনের এমপি রণজিৎ কুমার রায়, জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ূন কবিরসহ সেনাবাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রকাশিত : ১১ জানুয়ারী ২০১৫

১১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: