রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

খানাখন্দে বেহাল রায়পুরের বেশির ভাগ সড়ক

প্রকাশিত : ১০ জানুয়ারী ২০১৫
  • যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী

সংবাদদাতা, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর, ৯ জানুয়ারি ॥ লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার সড়ক- মহাসড়কগুলোতে বিরাজ করছে বেহাল দশা। এরমধ্যে রায়পুর-লক্ষ্মীপুর (খুলনা-চট্টগ্রাম হাইওয়ে) ও রায়পুর-হায়দরগঞ্জ সড়কের বেশিরভাগ স্থানই খানাখন্দে ভরা। সড়কের বিভিন্ন স্থান যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। অনেক স্থানে রয়েছে অসংখ্য গর্ত ও অনেক স্থান দেবে গেছে। এছাড়া উপজেলার অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোর অবস্থাও বেহাল।

গত কয়েক বছরে কয়েকটি দুর্ঘটনায় মারা যান অর্ধশত যাত্রী। অনেকটা মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে এই সড়ক-মহাসড়কগুলো। দেবে যাওয়ার অংশগুলোর কয়েকটি স্থান দায়সারাভাবে মেরামত করলেও তা কোন কাজে আসছে না। মেরামতের কয়েক দিন পরই তা আবার দেবে যাচ্ছে।

রায়পুর-হায়দরগঞ্জ সড়ক এখন মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। সড়কের ১৫ কিলোমিটার দৈর্র্ঘ্যরে সড়কটির প্রায় পুরো অংশ বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। উপজেলা পরিষদ থেকে হায়দরগঞ্জ বাজার পর্যন্ত অংশের শোচনীয় অবস্থা। রাস্তার অধিকাংশ স্থানে খানাখন্দে ভরা। কোথাও কোথাও সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্ত। এসব গর্তের কোথাও হাঁটু আবার কোথায় ঊরু পর্যন্ত গভীর। দেখলে মনে হবে এটি রাস্তা নয়, যেন পুকুর। প্রায়ই এসব গর্তে পণ্যবাহী ট্রাক ও যাত্রীবাহী বাস-অটোরিকশা দেবে যায়। এই কারণে সৃষ্টি হয় যানজট। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই অঞ্চলের ফসল সয়াবিন, নারিকেলসহ বিভিন্ন শস্য পরিবহন করছে।

কাপিতুলি সড়কের কেএসপি উচ্চ বিদ্যালয়ের পেছনের রাস্তায় পুকুরের মতো গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এখনে প্রতিদিন দেবে যাচ্ছে যাত্রীবাহী বাস, আটোরিকশা ও পণ্যবাহী ট্রাক। এ সড়ক দিয়ে যাতায়াতের সময় জনপ্রতিনিধিদের এলাকাবাসীর রোষানলে পড়তে হয়। রায়পুর সড়ক থেকে গাজীনগর ও সাবেক এমপি হারুনুর রশিদ সড়কের বিভিন্ন স্থানে ভেঙ্গে গিয়ে বড় বড় গর্ত ও উঁচু-নিচু থাকায় যানবহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। মাঝেমধ্যে সড়কগুলো সংস্কারের নামে দায়সারাভাবে কাজ করা হয়।

রায়পুর-ফরিদগঞ্জ-পানপাড়া সড়কে গর্ত ও ফাটল দেখা দেয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় গত এক বছরে প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় ৩০ জন। পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন প্রায় অর্ধশতাধিক ব্যক্তি, আহত হয়েছেন প্রায় এক হাজারেরও অধিক। সড়ক-মহাসড়কের দুরবস্থা দেখা দিলেও কার্যত কোন ব্যবস্থা নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

রায়পুর-লক্ষ্মীপুর সড়কের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বৃহত্তম মৎস্য প্রজনন ও প্রশিক্ষণকেন্দ্র এবং জিনের মসজিদ ও অপরূপ সৌন্দর্য মেঘনার তীরবর্তী হওয়ায় এই সড়ক দিয়ে দেশের নানা প্রান্তের মানুষ চলাচল করছে।

লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর-সদরের একাংশ) আসনের এমপি মোহাম্মদ নোমান বলেন, সড়কগুলো সংস্কারের জন্য এলাকাবাসী ও ইউপি চেয়ারম্যানরা জানিয়েছেন। তিনি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

প্রকাশিত : ১০ জানুয়ারী ২০১৫

১০/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: