মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অনন্য স্মিথ অবিশ্বাস্য স্মিথ

প্রকাশিত : ১০ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মাইকেল ক্লার্ক ইনজুরিতে পড়ায় নেতৃত্বের রেসে এগিয়ে ছিলেন অভিজ্ঞ ব্র্যাড হ্যাডিন। ব্রিসবেনে দ্বিতীয় টেস্টের দল দেখে খোদ ক্লার্কেরও চোখ ছানাবড়া। নির্বাচকরা নতুন অধিনায়ক হিসেবে বেছে নিয়েছেন ২৫ বছরের তরুণ স্টিভেন স্মিথকে। মাঠের বাইরে থেকে উল্লাসে ফেটে পড়া ইয়ান চ্যাপেলের মূল্যায়ন, সম্প্রতি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) নেয়া সেরা সিদ্ধান্ত এটি। কে জানত সাবেক গ্রেটের ভবিষ্যদ্বাণী এভাবে ফলে যাবে? অভিষেকেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে, জয় তুলে নিয়ে ইয়ানের পাশে নাম লেখাবেন ‘বেবি ফেস’ স্মিথ, সিরিজে ক্রমশ যেন ইতিহাস গড়ার নেশা পেয়ে বসে নিউ সাউথ ওয়েলস প্রতিভাকে। সিডনিতে শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১১৭-এর পর কাল দ্বিতীয় ইনিংসে ৭১। সিরিজে স্মিথের মোট রান ৭৬৯, গড় ১২৮, সেঞ্চুরি ৪ ও হাফ সেঞ্চুরি ২টি- চার বা তার কম টেস্টের সিরিজে সবচেয়ে বেশি রানের নতুন রেকর্ড এটি।

কেবল তাই নয়, প্রায় ১৪০ বছরের টেস্ট ইতিহাসে যেকোন সংখ্যক ম্যাচের সিরিজে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের নজিরও এটি। এক্ষেত্রে স্মিথ নাম লিখিয়েছেন দুই সাবেক গ্রেট সুনিল গাভাস্কার ও ভিভ রিচার্ডসদের সাড়িতে। পেছনে বললে হয়ত প্রশ্ন থাকবে! মাত্র ৬ রানের জন্য গাভাস্কারকে ছাড়িয়ে যেতে পারেননি। ১৯৭১-এ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৭৭৪ রান করেছিলেন ভারতীয় কিংবদন্তি। ৮২৯ রান নিয়ে এ তলিকায় সবার ওপরে ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান গ্রেট স্যার ভিভ, ১৯৭৬-এ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। তবে দু’জনে ক্ষেত্রেই ছিল পাঁচ টেস্টের সিরিজ (খেলেছিলেন ৪টি করে)। দু’জন নিশ্চই মাত্র ২৫ বসন্তে অধিনায়কত্বের অভিষেকেই এমনটা করেননি! সেদিক থেকে গ্রেটদের ছাপিয়ে স্টিভেন পিটার ডেভেরেক্স স্মিথ, স্টিভ স্মিথ বা কেবলই স্মিথ। অবশ্য সাবেক প্রোটিয়া সেনাপতি গ্রায়েম স্মিথের সঙ্গে নামের মিল থাকায় অসিরা তাঁকে স্টিভেন স্মিথ ডাকতেই বেশি পছন্দ করেন।

এ্যাডিলেডের প্রথম টেস্ট হয়ে সিডনির শেষটি পর্যন্ত ব্যাট হাতে স্মিথীয় কা-ের নমুনা দেখুন- ১৬২*, ৫২*, ১৩৩, ২৮, ১৯২, ১৪, ১১৭ ও ৭১, সত্যি অবিশ্বাস্য বলে কিছু আর থাকল না! গাভাস্কার, ভিভের মতো মহিরুহরা যা পাঁচ টেস্টের সিরিজে করেন ব্যাট হাতে স্টিভেন স্মিথ তা চার ম্যাচেই করে দেখান!! কালও খেলছিলেন স্বভাবসুলভ স্টাইলে। হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করে যখন ব্যাট উঁচিয়ে দর্শক অভিনন্দনের দিচ্ছিলেন, মনে হচ্ছিল আরও এক সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে আরও এক ইতিহাস গড়া সময়ের ব্যাপার। ওয়ানডে স্টাইলে ৭০ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৭১ রান করে পেসার মোহাম্মদ শামির বলে লাইন মিস করে এলবিডব্লিউর শিকার হন। সেটিও অবশ্য জয়ের জন্য দলের স্ট্রাইকরেট বাড়িয়ে ইনিংস ঘোষণার চাপ থাকায়। মাত্র ৬ রানের জন্য হয়নি গাভাস্কারকে টপকানো, তাতে কী? আরেক দিক দিয়ে অস্ট্রেলীয়দের ক্রিকেট-ঈশ্বর ব্র্যাডম্যানকে ছাপিয়ে রচনা গড়েছেন নব-ইতিহাস!

ভারতের বিপক্ষে এক সিরিজে সবচেয়ে বেশি রান করা অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান এখন স্মিথই। যেটি আগে ছিল ব্র্যাডম্যানে দখলে। ১৯৪৭-৪৮ মৌসুমে ক্যারিয়ারে একবারই ভারতের বিপক্ষে খেলার সুযোগ পাওয়া স্যার ডনের রান ছিল ৭১৫। স্মিথের বাহুতে নেতৃত্বের বন্ধনী দেখে অবাক হওয়া ক্লার্কও তাই স্বীকার করছেন, ‘জানতাম ব্যাট হাতে ও এক বিরল প্রতিভা। এবার প্রমাণ করল নেতৃত্বেও অসাধারণ। অস্ট্রেলিয়ার ভবিষ্যতের ভার বহনে সক্ষম স্মিথ!’

প্রকাশিত : ১০ জানুয়ারী ২০১৫

১০/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: