মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

তিন তারকার নৈপুণ্যে বার্সিলোনার গোলোৎসব

প্রকাশিত : ১০ জানুয়ারী ২০১৫
তিন তারকার নৈপুণ্যে বার্সিলোনার গোলোৎসব

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কিছুতেই জমে উঠছিল না তিন ত্রয়ীর বোঝাপড়া। যে কারণে ধুঁকতে হচ্ছিল বার্সিলোনাকে। অবশেষে এক সঙ্গে জ্বলে উঠলেন কাতালানদের তিন বড় ও প্রধান তারকা লিওনেল মেসি, নেইমার ও লুইস সুয়ারেজ। যার ফসল হিসেবে স্প্যানিশ কোপা ডেল রে ফুটবলের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচে বার্সিলোনা ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে অতিথি এলচেকে।

বৃহস্পতিবার রাতে ঘরের মাঠ ন্যুক্যাম্পে অনুষ্ঠিত ম্যাচে বার্সার হয়ে জোড়া গোল করেন ব্রাজিলিয়ান অধিনায়ক নেইমার। একটি করে গোল করেন মেসি ও সুয়ারেজ। অপর গোলদাতা আগের ম্যাচে লা লিগায় নিজেদের জালে বল জড়িয়ে দলকে হারানো জর্ডি এ্যালবা। এই জয়ে আসরের কোয়ার্টার ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখল লুইস এনরিকের দল। আগামী ১৫ জানুয়ারি এলচের মাঠে অনেকটা নিয়মরক্ষার ম্যাচে মাঠে নামবে বার্সিলোনা!

গত রবিবার স্প্যানিশ লা লিগার ম্যাচে রিয়াল সোসিয়েদাদের বিরুদ্ধে বার্সিলোনার শুরুর একাদশে ছিলেন না মেসি-নেইমার। ম্যাচটি হেরে যাওয়ায় সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন কোচ লুইস এনরিকে। যে কারণে পরশু রাতে আর ঝুঁকি নেননি তিনি। ম্যাচের শুরু থেকেই পুচকে এলচের উপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে স্বাগতিকরা। অবশ্য একের পর এক আক্রমণ শাণিয়েও প্রথম গোল পেতে বার্সাকে অপেক্ষা করতে হয় আধাঘণ্টারও বেশি। অবশেষে ৩৪ মিনিটে গোলের সূচনা করেন নেইমার। সুয়ারেজের দারুণ পাস থেকে গোল করেন ব্রাজিল তারকা। পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সুয়ারেজ নিজেই। বাঁ দিক থেকে বল নিয়ে এক ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে কাছের পোস্ট দিয়ে গোলরক্ষককে ফাঁকি দেন উরুগুয়ের ফরোয়ার্ড। ম্যাচের ৪৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে মেসি গোল করে বার্সাকে ৩-০ গোলে এগিয়ে নেন। ডি-বক্সে নেইমারকে ফাউল করা হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি।

বিরতির পর চার মিনিটের মধ্যে দুই গোলে বার্সিলোনার বড় জয় নিশ্চিত হয়ে যায়। ৫৫ মিনিটে মেসির দারুণ কোনাকুনি পাসে পা ছুঁইয়ে গোল করেন জর্ডি এ্যালবা। আর ৫৯ মিনিটে নেইমারের অসাধারণ এক শট ক্রসবারের নিচে লেগে জালে প্রবেশ করে। ম্যাচের শেষ ৩০ মিনিটে আর কোন গোল পায়নি বার্সিলোনা।

সম্প্রতি ন্যুক্যাম্পে অনেক ঘটনাই ঘটছে। বিশেষ করে কোচ এনরিকের সঙ্গে নাকি মেসির সম্পর্ক খারাপ এমনই খবরই বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছে। এ কারণেই কিনা ন্যুক্যাম্পের গ্যালারি থেকে বার বার ভেসে আসছিল এনরিকের নাম। ভক্ত-সমর্থকরা নানাভাবে বার্সা কোচকে খোঁচা দেন। ম্যাচ শেষে এ বিষয়ে এনরিকে বলেন, আমাকে যে ব্যাপার আগ্রহী করে, সেটি নিয়েই কেবল প্রতিক্রিয়া জানাতে পারি। খেলোয়াড়দের প্রতি সমর্থকদের এ সমর্থনকে আমি সম্মান জানাই। এ খেলার তারাই মূল চরিত্র। তারা আমাদের সমর্থন করছে, এটি খুব ভাল লাগে। ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার বলেন, সাজঘরে কি ঘটেছে, তা বলতে পারব না। ম্যাচটা যে দল জিতেছে তাতেই খুশি। অনেক ভাল লাগছে মেসি-সুয়ারেজের জন্যও। এখন রবিবার এ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিরুদ্ধেও আমাদের এভাবেই জ্বলে উঠতে হবে।

ব্রাজিলিয়ান অধিনায়ক বার্সিলোনার আক্রমণভাগ নিয়েও সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, আমাদের আক্রমণ ভাগে দুর্দান্ত সব ফুটবলার আছে। এটা ঠিক যে কিছুদিন আমরা ঠিকমতো নিজেদের মেলে ধারতে পারিনি। তবে আমি আশাবাদী এভাবেই আমরা খেলতে পারব। ম্যাচে আমরা দুর্দান্ত খেলেছি। সবাই নিজের জায়গা সম্পর্কে সচেতন ছিল। বিশেষ করে আমাদের আক্রমণ ভাগে অত্যন্ত শক্তিশালী। আমি বার্সার এ্যাটাককে স্যালুট করি।

প্রকাশিত : ১০ জানুয়ারী ২০১৫

১০/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: