মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তোমরাই পৃথিবী বদলে দেবে

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫
  • ...ইন্দ্রা নুই

ক্লান্ত শরীরে প্রশান্তির জন্য আমরা যে পানীয় থেকে তৃপ্ত হই তার একটি পেপসি। এই পেপসি ব্র্যান্ডের কোম্পানি পেপসিকোর চেয়ারপার্সন ও সিইও ইন্দ্রা কৃষ্ণামূর্তি নুই। একজন নারী, নিরন্তর পরিশ্রমী একজন পূর্ণাঙ্গ মানুষ। তাঁর পরিচয় সফল পেপসিকোর চেয়ারপার্সন ও সিইও।

নুই ভারতের তামিলনাড়ুর চেন্নাইতে এক সাধারণ তামিল পরিবারে ২৮ অক্টোবর, ১৯৫৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি চেন্নাইয়ের হোলি এ্যাঞ্জেলস বিদ্যালয় থেকে প্রথমিক শিক্ষা লাভ করেন। ১৯৭৪ সালে মাদ্রাজ খ্রীস্টান কলেজ থেকে রসায়ন শাস্ত্রে স্নাতক সম্পন্ন করেন এবং কলকাতার ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব ম্যানেজমেন্ট থেকে এমবিএ ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৭৮ সালে নুই যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল স্কুল অব ম্যানেজমেন্টে ভর্তি হন এবং ‘সরকারী ও বেসরকারী সংস্থার পরিচালনা ব্যবস্থাপনা’ বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন।

ভারতে ইন্দ্রা নুই জনসন এ্যান্ড জনসন এবং মেটুর বিয়র্ডশেলে প্রডাক্ট ম্যানেজার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৮০ সালে দ্য বস্টন কনসাল্টিং গ্রুপ, মটোরোলা, এশিয়া ব্রাইন প্রভৃতি সংস্থায় ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করেন। নুই ১৯৯৪ সালে পেপসিকোতে যোগদান করেন এবং ২০০৭ সালে পেপসিকোর ৪৪ বছরের ইতিহাসে তিনি পঞ্চম সিইও। তাঁর দায়িত্বে থাকা অবস্থাতেই তিনি পেপসিকোর বিভিন্ন সংস্থাকে একীভূত করেন, যা ছিল ব্যবসায়িক দিক দিয়ে চ্যালেঞ্জিং। তাঁর অপারেশনাল সময়ে ৭২ শতাংশ বার্ষিক রাজস্ব আয় বৃদ্ধি পায়, যা কিনা বিগত সময়ের দ্বিগুণের বেশি। হৃদয়বৃত্তি ও রসিকতা সহকারে তাঁর দৃঢ়তা সহকর্মীদের মাঝে অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে কাজ করে।

২০০৮ সালের ফোর্বস ম্যাগাজিনে পৃথিবীর ১০০ জন প্রভাবশালী নারীর তালিকায় তাঁকে তৃতীয় স্থানে রাখে। ফরচুন ম্যাগাজিন ২০০৬, ২০০৭ ও ২০০৮ সালের প্রভাবশালী ব্যবসায়ী নারী হিসেবে চিহ্নিত করে। ২০০৭ সালে ভারত সরকার কর্তৃক পদ্মভূষণ খেতাবে ভূষিত করে। নুই ইউএস-ইন্ডিয়া বিজনেস কাউন্সিলের সভাপতি। তিনি ইয়েল কর্পোরেশনের অংশীদার, আইসেনহাওয়ার ফেলোশিপ ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য।

২০১১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েক ফরেস্ট ইউনিভার্সিটিতে আমন্ত্রিত হয়ে তরুণ সমাজের উদ্দেশে বক্তৃতা দেন। সেখানে ইন্দ্রা নুই বলেন, নিজের সবটুকু উজাড় করে কাজ কর, সুযোগ তৈরি করে নাও। সবকিছুই ইতিবাচকভাবে নিতে শেখ। তুমি পৃথিবীকে যা দেবে তাই তুমি ফিরে পাবে। আমি গভীরভাবে বিশ্বাস করি, তোমরাই এ পৃথিবী বদলে দেবে।

রায়হান ফরাজী

সূত্র : ইন্টারনেট

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

০৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: