কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ইয়াইয়া তোরে টানা চতুর্থবার আফ্রিকার বর্ষসেরা

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ রেকর্ড টানা চতুর্থবারের মতো আফ্রিকার বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছেন ইয়াইয়া তোরে। কনফেডারেশন অব আফ্রিকান ফুটবল এ্যাসোসিয়েশন (সিএএফ) ২০১৪ সালের সেরা হিসেবে ম্যানচেস্টার সিটির মিডফিল্ডারের নাম ঘোষণা করে বৃহস্পতিবার।

২০১১, ২০১২ ও ২০১৩ সালেও তোরে আফ্রিকার বর্ষসেরা খেলোয়াড় মনোনীত হয়েছিলেন। প্রথম ফুটবলার হিসেবে টানা চারবার আফ্রিকান সেরা হলেন তোরে। এর আগে ক্যামেরুনের স্ট্রাইকার স্যামুয়েল ইতোও চারবার সেরা হয়েছেন তবে টানা হতে পারেননি। আইভরিকোস্ট অধিনায়ক সেরা হওয়ার পথে পেছনে ফেলেন নাইজিরিয়া অধিনায়ক ভিনসেন্ট এনইয়ামা ও গ্যাবনের তারকা স্ট্রাইকার পিয়েরি-এমরিক-আউবামায়েংকে। কনফেডারেশন অব আফ্রিকান ফুটবলের সঙ্গে সম্পৃক্ত দেশের প্রধান কোচ ও টেকনিক্যাল পরিচালকদের ভোটে বর্ষসেরা নির্বাচন করা হয়। সাবেক বার্সিলোনা স্ট্রাইকার স্যামুয়েল ইতোও সর্বোচ্চ চারবার আফ্রিকান বর্ষসেরা হন। ২০০৪ সাল থেকে জাতীয় দলের হয়ে খেলা তোরে এখন পর্যন্ত ৮৫ ম্যাচে করেছেন ১৬ গোল। ২০১০ সাল থেকে ম্যানসিটির হয়ে করেছেন ১৫৩ ম্যাচে ৪৫ গোল। দুই মৌসুম আগে ম্যানসিটিকে ৪৪ বছর পর ইংলিশ লীগের শিরোপা পুনরুদ্ধারের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন তোরে। সিটির বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পেছনেও তার অনবদ্য ভূমিকা আছে।

এক সময় আফ্রিকান বর্ষসেরায় আধিপত্য ছিল দিদিয়ের দ্রগবার। কিন্তু গত কয়েক বছরে তাঁর সাম্রাজ্য হাতছাড়া হয়েছে। ২০১১ সালে প্রথমবারের মতো আফ্রিকার বর্ষসেরা ফুটবলার হয়েছিলেন ইয়াইয়া তোরে। সেবার দ্বিতীয় হয়েছিলেন মালির মিডফিল্ডার সেইদু কেইতা। তৃতীয় হয়েছিলেন ফ্রান্সের অলিম্পিকে ডি মার্সেইলির ঘানার মিডফিল্ডার আন্দ্রে আইয়ু। এর আগে ২০১০ সালে ক্যামেরুনের স্যামুয়েল ইতো ও ২০০৯ সালে গৌরবময় এ পুরস্কার বাজিমাত করেছিলেন আইভরিকোস্টের দিদিয়ের দ্রগবা।

১৯৯২ সাল থেকে আফ্রিকান বর্ষসেরার পুরস্কার প্রচলিত রয়েছে। ১৯৮৩ সালের ১৩ মে জন্ম নেয়া ইয়াইয়া তোরে এবার রেকর্ড গড়ে এ্যাওয়ার্ড জিতলেন।

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

০৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: