আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তালা খুলে দিলেও বাসায় যাননি খালেদা জিয়া

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চারদিন ধরে খালেদা জিয়ার শ্বাস কষ্টের পাশাপাশি চোখ দিয়ে অনবরত পানি ঝরছে। এ ছাড়া পায়ের ব্যথা, কাশি ও শারীরিক দুর্বলতাসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছেন তিনি। তবুও তিনি হাসপাতালে যাচ্ছেন না। এমনকি বৃহস্পতিবার গুলশান কার্যালয়ের তালা খুলে দিলেও তিনি বাসায় যাচ্ছেন না। তবে নিজ বাসা ও আত্মীয় স্বজনের বাসা থেকে আনা খাবার খাচ্ছেন তিনি। কার্যালয়ে থাকা নেতাদের সঙ্গে, টেলিফোনে বিভিন্ন জনের সঙ্গে কথা বলে এবং মধ্যরাত থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘুমিয়ে সময় কাটান তিনি। আগের দিনের মতো বৃহস্পতিবারও গুলশান কার্যালয়ে বিভিন্নজনের সঙ্গে সাক্ষাত দিয়েছেন খালেদা জিয়া। বিকেলে গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছেন অবরোধ চলবে।

এদিকে আগের ৫ দিনের মত বৃহস্পতিবারও গুলশান কার্যালয়ের চারপাশে পুলিশের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। সেই সঙ্গে জলকামান, পিকআপভ্যান ও সাঁজোয়া যানও মোতায়েন ছিল। দুপুর সোয়া ১টায় খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ের সামনে থেকে তিতুমীর কলেজ শাখা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আঃ আউয়াল খানকে আটক করে পুলিশ।

অবরোধ চলবেÑ খালেদা জিয়া ॥ বৃহস্পতিবার বিকেলে গণমাধ্যমে প্রেরিত বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছেন, দুঃশাসনের অবসান ও বিপন্ন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত চলমান অবরোধ কর্মসূচী চলবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অবরুদ্ধ খালেদা জিয়া সর্বাত্মক অবরোধ কর্মসূচী অব্যাহতভাবে চালিয়ে যাওয়ার জন্য বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের সকল নেতাকর্মী ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি চলমান আন্দোলনে যারা সরকারী পেটোয়া বাহিনীর হাতে নির্মমভাবে নিহত হয়েছেন তাদের রূহের মাগফিরাত কামনা করে নির্যাতিত, আহত ও ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি সহানুভূতি ও সমবেদনা জানিয়েছেন। অবরোধ কর্মসূচী স্থগিত করা হচ্ছে মর্মে বিভিন্ন সরকারী অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হয়ে তা চালিয়ে যাওয়ার জন্য খালেদা জিয়া বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোট ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

বিকেলে গুলশান কার্যালয়ে গিয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন বিএনপির সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক গাজী মাজহারুল আনোয়ারের নেতৃত্বে জাসাসের একটি প্রতিনিধি দল। খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত শেষে গাজী মাজহারুল বলেন, খালেদা জিয়া যেন গণতন্ত্র রক্ষার আন্দোলনে জনগণের পাশে থাকতে পারেন সেজন্য দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া আরও বলেছেন, আমরা দেশের জনগণের হারানো অধিকার ফিরিয়ে আনার আন্দোলন করছি। গণতন্ত্র রক্ষার এ সংগ্রাম শুরু হয়েছে। এখন জনগণকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে কিভাবে তাঁরা তাঁদের হারানো অধিকার ফিরে পাবেন।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতে জাসাসের অন্য নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক আমজাদ হোসেন, চিত্রনায়ক আশরাফ উদ্দিন উজ্জ্বল প্রমুখ।

গুলশান কার্যালয়ের তালা খুলে দেয় পুলিশ ॥ ৫ জানুয়ারি দুপুর ১২টায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ের গেটে তালা লাগিয়ে দেয় পুলিশ। এ কারণে মহিলা দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে অনেক চেষ্টা করেও তিনি ওই কার্যালয় থেকে বের হতে পারেননি। এক পর্যায়ে তার সঙ্গে থাকা মহিলা দলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের নিয়ন্ত্রণ করতে সেখানে পিপার স্প্রে মারে পুলিশ। সন্ধ্যার পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসকরা পিপার স্প্রের প্রতিক্রিয়ায় তার শ্বাস কষ্ট, কাশি ও চোখ দিয়ে পানি পড়াসহ বিভিন্ন রোগ দেখা দিয়েছে বলে জানায়। খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের গেটে তালা লাগানোর বিষয়টি নিয়ে দেশে-বিদেশে ব্যাপক সমালোচনা হলে অবশেষ বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ১২টায় তালা খুলে দেয় পুলিশ।

মহিলা দলের নেতারা খাবার নিয়ে যান ॥ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মহিলা দলের সভাপতি নূরে আরা সাফা, মহানগর মহিলা দলের সভাপতি সুলতানা আহমেদ ও সাবেক সাংসদ বিলকিস জাহানসহ সংগঠনের ক’জন নেতা খালেদা জিয়াসহ অন্য নেতাকর্মীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের খাবার সামগ্রী ও কাঁচাবাজার নিয়ে গুলশান কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। তবে খাবার সামগ্রী ভেতরে প্রবেশ করতে দিলেও কাঁচাবাজার নিতে বাধা দেয় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ। পুলিশ তাদের সঙ্গে থাকা সবকিছু পরীক্ষ-নিরীক্ষা করে তৈরি খাবারগুলো ভেতরে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেয়। আর কাঁচাবাজারগুলো ফিরিয়ে দেয়া হয়। কাঁচাবাজারের মধ্যে ছিল দেশি মুরগি পাঁচটি, বড় রুই মাছ দুটি, ছোট মাছ, আপেল এক কার্টন, দশ প্যাকেট মিষ্টি, পাঁচ পাতিল দই এবং পাতাকপি, ফুলকপি, গাজর, পাকা কলা ও পাকা পেঁপে।

দুপুর একটার দিকে খালেদা জিয়ার কার্যালয় থেকে বের হয়ে এসে ঢাকা মহানগর মহিলা দলের সভানেত্রী সুলতানা আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, পুলিশ ম্যাডামের জন্য আনা মাছ, মাংস, শাকসবজি, দই, ফল ভেতরে ঢোকানোর অনুমতি দেয়নি। পুলিশ তাদের জানিয়েছে, খালেদা জিয়ার জন্য রান্না করা খাবার নিয়ে আসতে। সুলতানা আহমেদ আরও বলেন, খালেদা জিয়া এখানে অবরুদ্ধ হয়ে আছেন। তার সঙ্গে মহিলা দলের কয়েকজন নেত্রী অবরুদ্ধ আছেন। এখানে খাবার ও পানি নেই। তাঁরা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। সে কারণে আমরা কিছু ওষুধপত্র, দই, মিষ্টি, মাছ, মাংস, সবজি নিয়ে এসেছিলাম।

খালেদা জিয়ার চোখ দিয়ে পানি পড়ছে- ড্যাব ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা তুলে ধরতে দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপিপন্থী চিকিৎসক সংগঠন ডক্টরস এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)। এ সময় ড্যাব নেতারা বলেন, খালেদা জিয়া এখনও অসুস্থ। তাঁর শ্বাসকষ্ট ছাড়াও চোখ দিয়ে পানি পড়ছে। তিনি ঠিকমতো বসতে ও কথা বলতে পারছেন না। এছাড়া পিপার স্প্রের প্রতিক্রিয়ায় খালেদা জিয়ার ক্যান্সার হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে ড্যাবের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব ডা. এস এম রফিকুল ইসলাম বাচ্চু বলেন, হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার ওপর পুলিশ পিপার স্প্রে নিক্ষেপ করেছে। এছাড়া সরকার পুলিশ দিয়ে পিপার স্প্রে মেরে জাতিসংঘের সনদ লঙ্ঘন করেছে।

রফিকুল ইসলাম বাচ্চু বলেন, পিপার স্প্রে ব্যবহারে ২০১৩ সালের ২১ জানুয়ারি হাইকোর্ট নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এরপরও সরকার তার অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে পুলিশ দিয়ে পিপার স্প্রে ব্যবহার করিয়েছে। তিনি পিপার স্প্রের মতো ক্ষতিকর উপাদান নিক্ষেপের বিচার দাবি করে বলেন, সম্পূর্ণ অনৈতিক ও অমানবিক এই কর্মকা-ের বিচার করতে হবে। তবে আমরা সরকারের কাছে বিচার চাই না। জনগণকেই এর বিচার করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ড্যাব নেতা অধ্যাপক ডাঃ আব্দুল মান্নান, ডাঃ আব্দুল কুদ্দুস, অধ্যাপক সিরাজউদ্দিন আহমেদ, অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

খালেদার স্বাস্থ্যের খোঁজ নিলেন বিজেপি সভাপতি- সোহেল ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নিয়েছেন ভারতীয় জনতা দল (বিজেপি) সভাপতি অমিত শাহ। বুধবার রাতে তিনি ফোনে খালেদা জিয়ার সঙ্গের কথা বলে তার আশু সুস্থতা কামনা করেছেন বলে খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের জানান।

খালেদার সঙ্গে শাফিন আহমেদের সাক্ষাত ॥ বিকেল সাড়ে ৫টায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন মাইলস ব্যান্ডের প্রধান শিল্পী শাফিন আহমেদ। বিকেল সাড়ে পাঁচটায় তিনি গুলশান খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত শেষে বের হয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ম্যাডাম অসুস্থ। তিনি কথা বলতে পারছেন না। আমি তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নিয়েছি।

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

০৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: