মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

হরতাল অবরোধ পরিহারের অনুরোধ বিজিএমইএর

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ হরতাল-অবরোধ পরিহার করে বিকল্প পন্থা খুঁজে বের করার জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে বিজিএমইএ। একই সঙ্গে চলমান পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে রফতানিমুখী তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের এ শীর্ষ সংগঠনটি।

বৃহস্পতিবার বিজিএমইএর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, নতুন বছরের গত ৯ দিনের মধ্যে ২ দিন হরতাল পালন এবং ৬ জানুয়ারি থেকে টানা অবরোধ কর্মসূচী চলতে থাকায় উদ্যোক্তাদের মধ্যে গভীর হতাশার সৃষ্টি হয়েছে। জাতীয় অর্থনীতি, বিশেষ করে পোশাক শিল্পের স্বার্থে রাজনৈতিক কর্মসূচীর নামে হরতাল ও অবরোধ পরিহার করে এর বিকল্প পন্থা খুঁজে বের করার জন্য বিজিএমইএ রাজনৈতিক দলগুলোকে বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছে।

বিজিএমইএ কৃতজ্ঞ যে রাজনৈতিক দলগুলো পোশাক শিল্পকে হরতালমুক্ত রেখেছেন। একইভাবে তৈরি পোশাক শিল্প এবং পোশাক শিল্পের সব আমদানি ও রফতানি পণ্যকে অবরোধমুক্ত রাখার জন্য বিজিএমইএ রাজনৈতিক দলগুলোকে অনুরোধ জানাচ্ছে। বিশেষ করে যে কোন রাজনৈতিক কর্মসূচী চলাকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক এবং ঢাকা-বেনাপোল মহাসড়ক যাতে নির্বিঘœ রেখে পোশাক শিল্পের সরবরাহ লাইন অব্যাহত রাখা হয়, সে ব্যাপারে বিজিএমইএ রাজনৈতিক দলগুলোকে অনুরোধ জানিয়েছে।

বিজিএমইএ মনে করে, তৈরি পোশাক শিল্প এখন একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সময় অতিক্রম করছে। রানা প্লাজা ধসের পর কারখানাগুলো কর্মপরিবেশের উন্নয়নে সংস্কার কাজ করে যাচ্ছে। একটি ইতিবাচক বার্তা ক্রেতাদের কাছে পৌঁছেছে। এতে বাংলাদেশের রফতানিকারকদের ওপর ক্রেতাদের আস্থা বাড়ছে এবং কারখানাগুলোও বিগত দিনগুলোর তুলনায় বেশি বেশি রফতানি অর্ডার পাওয়া শুরু করেছে। এই পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক অস্থিরতা চলতে থাকলে আবারও ক্রেতাদের মধ্যে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হবে এবং তারা বাংলাদেশে আসতে নিরুৎসাহিত হবেন। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, একদিনের হরতালে পোশাক শিল্পে প্রায় ২৫০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়, উৎপাদন প্রায় ৩০-৩৫ শতাংশ হ্রাস পায়।

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

০৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: