কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কুড়িগ্রামে পাম্পগুলোতে তেল সংকট, দুর্ভোগে গাড়ির মালিকরা

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম ॥ টানা অবরোধের কারণে কুড়িগ্রামে তেলের পাম্পগুলোতে পেট্রোল ও ডিজেল না থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে গাড়ির মালিক ও কৃষকরা। জেলার ৯ উপজেলার ১৮টি তেলের পাম্পে এ সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কুড়িগ্রামে প্রতিদিন ১৮ হাজার লিটার পেট্রোল এবং ৪ লাখ ৫০ হাজার লিটার ডিজেলের প্রয়োজন হয়। তেলের পাম্প মালিকরা জানান, ২০ দলীয় জোটের লাগাতার অবরোধের কারণে বাঘাবাড়ী ডিপো থেকে পেট্রোল ও পার্বতীপুর থেকে ডিজেল আনা সম্ভব হচ্ছে না, ফলে এ সংকট দেখা দিয়েছে।

গাড়ির মালিকদের দাবি অবরোধের সুযোগে অনেক পাম্প মালিক বেশি দামে তেল বিক্রির জন্য রেখে দিয়েছে।

কুড়িগ্রাম পৌর-বাজারের শাহা ফিলিং স্টেশনের মালিক ফণীন্দ্র্র শাহা জানান, অবরোধে পর্যাপ্ত তেল মজুদ না রাখার ফলে সংকট শুরু হয়েছে। আমরা পাম্প মালিকরা জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি আমাদের পুলিশি প্রহরায় তেল আনার আশ্বাস দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক এবিএম আজাদ জানান, আমি এডিসি জেনারেলকে পাম্প মালিকদের সঙ্গে মিটিং করতে বলেছি। কোন পাম্পে কতটুকু চাহিদা তা জানার পর তেল আনার ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মহেশখালীতে যুবলীগ নেতার চোখ ও রগ কর্তন ছিল পরিকল্পিত

নিজস্ব সংবাদদাতা, মহেশখালী-৮ জানুয়ারি ॥ বড় মহেশখালী ইউনিয়নের যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক নুরুল আবচারকে (৩২) চোখ উৎপাটন ও দু’পায়ের রগ এবং জিহ্বা কর্তন ছিল পূর্ব পরিকল্পিত। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে মহেশখালী হাসপাতাল ও পরে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল চট্রগ্রাম মেডিক্যাল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানা গেছে, উপজেলার বড় মহেশখালী ইউনিয়ন বড় ডেইল এলাকার মোঃ হোছনের পুত্র ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক মোঃ আবছারের সঙ্গে বড় মহেশখালী ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান শরীফ বাদশার সঙ্গে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধে রেশ ধরে আবছারকে একবার অস্ত্রসহ পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছিল দেনদরবার ও আইনী লডাইয়ের মাধমে উচ্চ আদালত থেকে জামিনে বেরিয়ে আসে। আগামীতে আবচার বড় মহেশখালীর নেতৃত্ব আসতে পারে এবং পূর্বের বিরোধের ঘটনার প্রতিশোধ নিতে চেয়ারম্যানের পুত্র নিশানের নেতৃত্বে দুপুর ১২টার দিকে ৪টি মোটরসাইকেলযোগে বড় ডেইল এলাকার একটি সন্ত্রাসী গ্রুপে স্থানীয় মাহারপাড়া গ্রামের পার্শে অবস্থান নেয়। একটি গ্রুপ সকাল থেকে আবচার বাড়ি থেকে বের হওয়া গতিবিধি লক্ষ্য করে। একটি রিক্সাযোগে গোরকঘাটা আসার পথিমধ্যে আবচার মাহারপাড়া নামক স্থানে পৌঁছলে পূর্ব থেকে ওঁৎপেতে থাকা পরিকল্পনাকারী সন্ত্রাসীদের কবলে পড়ে।

প্রকাশিত : ৯ জানুয়ারী ২০১৫

০৯/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: