রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

দুই সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড়ে অস্ট্রেলিয়া

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অবসরে ‘ক্যাপ্টেন কুল’ মহেন্দ্র সিং ধোনি, স্থায়ী নেতৃত্বের রোমাঞ্চ নিয়ে বিরাট কোহলি। তাতে বদলায়নি ভারতের মাঠের চিত্র। ২-০তে সিরিজ আগেই শেষ, সিডনিতে সম্মান রক্ষার শেষ টেস্টে মাত্র দুই দিনেই চাপের মুখে সফরকারীরা! প্রথম দিনে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার, কাল তাতে বাড়তি মাত্র যোগ করলেন স্টিভেন স্মিথ। তরুণ সেনাপতির আরও এক ট্রিপল ফিগারের সৌজন্যে ৭ উইকেটে ৫৭২ রানের পাহাড় গড়ে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। জবাবে দ্বিতীয়দিন শেষে ১ উইকেট হারিয়ে ভারতের সংগ্রহ ৭১। রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফিরেছেন ওপেনার মুরলি বিজয়। রোহিত শর্মা ৪০ ও নবীন লোকেশ রাহুল ব্যাটিং করছেন ৩১ রান নিয়ে। ক্রিস রজার্স, ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভেন স্মিথের পর শেন ওয়াটসন। শন মার্শ আর তরুণ জো বার্নসও কম যাননি। প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার শীর্ষ ছয় ব্যাটসম্যানই ভারতের বোলিং নিয়ে খেলেছেন। প্রথমবারের মতো টপঅর্ডারের ছয় উইলোবাজ হাফ সেঞ্চুরি বা ততোর্ধ রানের ইনিংস খেলে গড়েছেন টেস্ট ক্রিকেটে নিজেদের ইতিহাস। স্মিথ-ওয়াটসনের ১৪৮ রানের জুটি অবিচ্ছিন্ন জুটি দ্বিতীয় দিনে থামে ১৯৬ রান করে। ব্যক্তিগত ৮১ রানে পেসার মোহাম্মদ শামির বলে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের হাতে ধরা পড়েন দীর্ঘদিন পর ফর্মে ফেরা ওয়াটসন। কিন্তু স্মিথ থামেন আরও পরে, সিরিজে নিজের চতুর্থ সেঞ্চুরি পূর্ণ করে! ১৫ চারের সাহায্যে ১১৭ রানের অনবদ্য ইনিংস উপহার দেন ফর্মের তুঙ্গে থাকা তরুণ অধিনায়ক। অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে এক সিরিজে চার সেঞ্চুরির অনন্য নজির গড়ে গ্রেটদের কাতারে নাম লেখান স্মিথ। সাবেক প্রোটিয়া কিংবদন্তি জ্যাক ক্যালিসের পর দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে চার টেস্টের সিরিজে চার সেঞ্চুরির অনন্য নজির স্থাপন করলেন তিনি। দ্বিতীয় ইনিংসেও এ ধারা অব্যাহত থাকলে তৈরি হবে নব-ইতিহাস। ইতিহাসের দ্বিতীয় দল হিসেবে অস্ট্রেলিয়া সিরিজের প্রতি টেস্টেই ইনিংসে পাঁচ শ’র ওপরে রান তোলে!

ওয়াটসন-স্মিথ ফিরলেও তাতে ভারতের দুর্গতি কমেনি। এরপর রান উৎসবে যোগ দেন মার্শ-বার্নস। পঞ্চম উইকেটে ১১৫ রান যোগ করে দলের রান পর্বতসম উচ্চতায় নিয়ে যান। মার্শ ৭৩ ও বার্নস ৫৮ রান করে আউট হন। শেষদিকে ৯ বলে ৫ চারের সাহায্যে ২৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন রায়ান হ্যারিস। ১৫২.৩ ওভারে ৭ উইকেটে ৫৭২ রানের চ্যালেঞ্জ গড়ে ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া। ২৫ ওভার হাতে রেখে ইনিংস ঘোষণার উদ্দেশ্য দিনের শেষ সেশনে কয়েকটি উইকেট তুলে নিয়ে ভারতকে চাপে ফেলা। সেই পরিকল্পনা পুরোপুরি সফল হয়নি। মুরলি বিজয় শূন্য রানে ফিরলেও বাকি সময়টা বেশ সাবধানেই কাটিয়ে দেন রাহুল-রোহিত। ওয়ানডের ডেঞ্জারম্যান ৭৬ বলে ৪০ ও নবীন রাহুল ৭১ বলে ৩১ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৫

০৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: