মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

নীলফামারীতে উপবৃত্তির টাকা ফেরত নিয়ে ধূম্রজাল

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ কিশোরীগঞ্জ উপজেলার গাড়াগ্রাম দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের উপবৃত্তির টাকা বাতিল নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। স্কুল কর্তৃপক্ষের অভিযোগ উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা উৎকোচ না পেয়ে ৯২ জন ছাত্রীর ২০১৪ সালের উপবৃত্তির প্রথম কিস্তির ৭০ হাজার টাকা বাতিল করে ফেরত পাঠিয়েছেন। অপর দিকে উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তার অভিযোগ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ভুয়া ছাত্রীর নাম দিয়ে উপবৃত্তির অর্থ আত্মসাত করার কারণে এটি বাতিল করা হয়। এ ঘটনায় ওই বিদ্যালয়ের উপবৃত্তির সুবিধাভোগী ছাত্রীরা সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে তাদের প্রাপ্ত উপবৃত্তির টাকা বিতরণের দাবি করেছে। ওই বিদ্যালয়ের এবার ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে সপ্তম শ্রেণীতে উঠেছে মেধাবী গরিব ছাত্রী মিশু আক্তার জানান, তার বাবা একজন কায়িক শ্রমিক। সংসারের ব্যয়ভার বহন করতেই হিমশিম খায়। সময় মতো তার কলম-খাতা কিংবা পোশাক কিনে দিতে পারে না। সে উপবৃত্তির টাকা দিয়েই কোন রকমে তার লেখাপড়া খরচ চালাত। কিন্তু সে ২০১৪ সালের প্রথম কিস্তির উপবৃত্তির টাকা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। নবম শ্রেণী থেকে দশম শ্রেণীতে উঠেছে মেধাবী ছাত্রী শামিমা আক্তার বলে, তার বাবা হাটবাজারে ফেরি করে ক্ষুদ্র ব্যবসা করেন। চার ভাই বোনের পড়ালেখার খরচ তাদের বাবার বহন করা অম্ভব। উপবৃত্তির টাকা না পাওয়ায় তার অনেক কষ্ট হচ্ছে। ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস ছাত্তার জানান, নিয়ম অনুযায়ী যে সব বিদ্যালয় উপবৃত্তি পাওয়ার অযোগ্য শিক্ষা কর্মকর্তা তাদের সঙ্গে আতাত করে ওই সব বিদ্যালয়ে উপবৃত্তি পাওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। আমার কাছ থেকে সুবিধা না পাওয়ায় তিনি আমার প্রতিষ্ঠানের উপবৃত্তি বন্ধ করে ছাত্রীদের বঞ্চিত করেছেন। এ ব্যাপারে কিশোরীগঞ্জ উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তারিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, গাড়াগ্রাম দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের ফলাফলের কোন রেজিস্টার নেই। ভুয়া ছাত্রীর নাম দিয়ে প্রধান শিক্ষক উপবৃত্তির টাকা আত্মসাত করে আসছেন। তাই ওই বিদ্যালয়ের উপবৃত্তি বন্ধ করে টাকা ফেরত পাঠানো হয়েছে।

পেট্রোল পাচার ॥ দিনাজপুরে লরিসহ আটক দুই

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ বাঘাবাড়ী তেল ডিপো থেকে সাড়ে ১৩ হাজার লিটার জ্বালানি তেল (পেট্রোল) পাচার করে নিয়ে যাওয়ার সময় মঙ্গলবার গভীর রাতে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে অয়েল ডিপোর সামনে একটি ট্যাঙ্কলরি জনতা আটক করে। তেল ও ট্যাঙ্কলরির মালিক অরুণ বাবু বলে ড্রাইভার জানিয়েছেন। জানা যায়, জ্বালানি তেল সরবরাহের দেশের বৃহত্তর বাঘাবাড়ী অয়েল ডিপো থেকে বিনা কাগজপত্রে ট্যাঙ্কলরি (ঢাকা মেট্রো-ঢ-৪৪-০২০১)তে সাড়ে ১৩ হাজার লিটার পেট্রোল তেল বিনা কাগজপত্রে ঠাকুরগাঁও জেলার রানীসংকইল জুঁই ফিলিং পাম্পে নিয়ে যাওয়ার সময় মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে পার্বতীপুরে অয়েল ডিপোর সামনে পার্বতীপুর-সৈয়দপুর মহাসড়কে ট্যাঙ্কলরিটি উঠার সময় এলাকাবাসী আটক করে।

ট্যাঙ্কলরির ড্রাইভারের নাম আকবর আলী। সে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার বাঘাবাড়ী নুকলী গ্রামের আবুল কাসেম মৃধার পুত্র। চালক আকবর তেলের কাগজপত্র দেখতে না পারায় জনতা গাড়িটি আটক করে পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশকে খবর দেয়।

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৫

০৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: