মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

জামিন হলেও ছাড়া পায়নি ভারতীয় কারাগারে আটক ১৫ জেলে

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৫
  • বঙ্গোপসাগরে জলসীমা লঙ্ঘন

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ দেড় মাস পার হলেও বঙ্গোপসাগরে ঘন কুয়াশায় পথ ভুলে ভারতীয় জলসীমানায় প্রবেশ করা বাগেরহাটের শরণখোলার একটি ফিশিং ট্রলারসহ ১৫ জেলে আজও ফিরতে পারেননি। পশ্চিমবঙ্গের আলীপুর কারাগারে ঠাঁই পাওয়া ওই সব জেলেরা কাকদ্বীপ আদালত থেকে জামিনের আদেশ পেলেও আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় কারণে তারা এখনও মুক্তি পায়নি। হতদরিদ্র এ জেলেদের পরিবার মানবেতর জীবনযাপন করছে। হাইকমিশনের প্রয়োজনীয় সহায়তা না পাওয়ার কারণে এরা দেশে ফিরতে পারছেন না বলে তাদের উদ্বিগ্ন স্বজনরা অভিযোগ করেছেন।

জানা যায়, গত ২৩ নবেম্বর সাগরে মাছ ধরার সময় ঘন কুয়াশায় দিক হারিয়ে শরণখোলা উপজেলার খোন্তাকাটা গ্রামের হাতেম আলী মোল্লার মালিকানাধীন এফবি রাহিমা নামে একটি ফিশিং ট্রলার ১৫ জেলেসহ ভারতীয় জলসীমানার মধ্যে ঢুকে পড়ে। এ সময় ভারতীয় নৌবাহিনী ওই ট্রলারসহ ১৫ জেলেকে আটক করে পশ্চিমবঙ্গের আলীপুর কারাগারে পাঠায়। আটককৃতরা হচ্ছে শরণখোলা উপজেলার মাসুম গাজী, হাবিব হাওলাদার, ওবায়দুল কবির, নুরু ফকির, সাইদুল হাওলাদার, এমাদুল হাওলাদার, সোবাহান হাওলাদার, জহির হাওলাদার, বেলায়াত মোল্লা, মালেক মুন্সী, কামাল মোল্লা, সালাম মোল্লা, সফিকুল হাওলাদার, মোড়েলগঞ্জ উপজেলার আলম গাজী ও বরিশালের খোরশেদ আলম। কলকাতায় অবস্থানকারী ট্রলার মালিকের ছেলে জামাল মোল্লা মোবাইল ফোনে জানান, পশ্চিমবঙ্গের কাকদ্বীপ আদালত থেকে গত ২৩ ডিসেম্বর ১৫ জেলের জামিনের আদেশ হলেও আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় এখনও তারা মুক্তি পায়নি। তবে জেল থেকে তারা শীঘ্র বের হতে পারবে বলে তার মনে হচ্ছে না। আটককৃত ট্রলার ও জেলেদের ছাড় করানোর বিষয়ে তিনি হাইকমিশনের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা পাচ্ছেন না অভিযোগ করেছেন।

রাজশাহীতে অবরোধ প্রত্যাখ্যান, নগরীতে যানজট

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ ২০ দলীয় জোটের অবরোধ কর্মসূচী বুধবার রাজশাহীতে পুরোপুরি ফ্লপ হয়েছে। কথিত অবরোধ উপেক্ষা করে সকাল থেকে বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে রাস্তায় নেমে আসে মানুষ। তাই সকাল থেকেই নগরীর জীবনযাত্রা ছিল স্বাভাবিক। কোণঠাসা বিএনপি-জামায়াত জনরোষে মাঠে নামতে পারেনি। কোথাও কোন পিকেটিং হয়নি। এমনকি অন্যদিনের মতো ‘রুটিন মিছিলও’ করতে পারেনি অবরোধ সমর্থকরা। সকাল থেকে রাজশাহী নগরীর সাহেববাজার জিরো পয়েন্ট, গণকপাড়া, সোনাদীঘি মোড়ে ছিল মানুষের উপচেপড়া ভিড়।

সেই সঙ্গে চোখে পড়ে যানজট। শত শত রিক্সা, অটোরিকশাসহ সব ধরনের যানবাহন চলাচল করেছে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক ও অলিগলির পথেও। বেলা ১১টার দিকে নগরীর সাহেববাজার জিরো পয়েন্টে দেখা গেছে বিশাল যানজট। ট্রাফিক পুলিশকে যানজট নিয়ন্ত্রণে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয়েছে দিনভর।

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৫

০৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: