মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বেনাপোলে আটকা পড়েছেন বিশ্ব এজতেমার মেহমানরা

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৫
  • ২ দলীয় জোটের অবরোধের শিকার

স্টাফ রিপোর্টার, বেনাপোল ॥ বিএনপি তথা ২০ দলীয় জোটের ডাকা দ্বিতীয় দিনের অবরোধে যান চলাচল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন বিশ্ব এজতেমায় যোগ দিতে আসা বিদেশী ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা। সড়ক-মহাসড়কে নাশকতার আশঙ্কায় বেনাপোল থেকে দূরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ আছে। এর ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন বেনাপোল থেকে ঢাকামুখী ভারত ফেরত পাসপোর্টযাত্রী ও তবলীগ জামাতের বিদেশী মেহমানরা। মঙ্গলবার রাতে ২-১টি বাস বিশ্ব এজতেমার ব্যানার লাগিয়ে ছাড়লেও বুধবার কোন বাস ছাড়বে কিনা তা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। যদিও স্থানীয় পরিবহন কাউন্টার থেকে দাবি করা হচ্ছে এসব যাত্রীদের গাড়িতে করে রাতে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হবে। তবে সড়ক-মহাসড়কে গাড়ি ভাংচুর এবং অগ্নিসংযোগের কারণে চালকরা নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কায় গাড়ি চলাচল বন্ধ রেখেছে। তারা আরও বলেন, এই রুটে বুধবার সকাল থেকে দূরপাল্লার ও অভ্যন্তরীণ রুটের যান চলাচল এখনও পর্যন্ত পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি। আকস্মিক এ যানচলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শত শত ভারত ফেরত বাংলাদেশী পাসপোর্টযাত্রী ও বিশ্ব এজতেমায় যোগ দিতে আসা বিদেশী মেহমানরা বিপাকে পড়েছেন বেনাপোলে।

বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত (ওসি) আখতার হোসেন বলেন, ভারত বাংলাদেশ পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপার স্বাভাবিক রয়েছে। কিন্তু ভারতে যাওয়ার যাত্রীর সংখ্যা খুবই কম। বিশ্ব এজতেমার কারণে ভারতীয় ও ভারত হয়ে আসা বিভিন্ন দেশ থেকে যাত্রীর সংখ্যা অন্যান্য সময়ের তুলনায় বেশি। কিন্তু অবরোধের কারণে বিপাকে পড়েছে তারা। বেনাপোল চেকপোস্ট বাগ-এ-জান্নাত কওমি মাদ্রাসার এতিমখানায় বিশ্ব এজতেমায় যোগ দিতে আসা বিদেশীদের জন্য স্থানীয়ভাবে খোলা হয়েছে একটি ‘এজতেমা ক্যাম্প।’ সেখানে কথা হয় ভারতের নদীয়া জেলার আবুল হোসেন, দিল্লীর আবু নাসের, ইয়ামেনের মুহাম্মাদ জামসের এর সঙ্গে। তারা বলেন, তাদের নেতৃত্বে ১৭ জনের একটি প্রতিনিধি দল বিশ্ব এজতেমায় যোগ দিতে বুধবার সকালে বাংলাদেশে এসেছেন। কিন্তু অবরোধের কারণে তারা পড়েছে বিপাকে। দিল্লীর মারকাস মসজিদ থেকে আবু হানিফের নেতৃত্বে এসেছেন ১৩ জনের একটি দল। তিনি বলেন, ‘গত দশ বছর ধরে নিয়মিত একটি জামাত (দল) নিয়ে এজতেমায় আসি বেনাপোল দিয়ে কিন্তু কোন অসুবিধা হয় না। এবার এসে পড়েছি বেকায়দায়। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন জানেন, বিশ্ব এজতেমা ভাগ্যে আছে কি না আমাদের। আল্লাহ আমাদের আর বাংলাদেশকে কবুল করুন (আমিন)। তিনিই আমাদের পার করে দিবেন ইনশাল্লাহ।’ ঢাকা মারকাস মসজিদের তবলীগ জামাতের আমির কামাল হোসেনের নেতৃত্বে স্থানীয় একটি টিম বেনাপোলে আগত মেহমানদের তদারকির দায়িত্ব পালন করছেন। ওই টিমের সদস্য ঢাকার আব্দুর রহমান বলেন, গত তিনদিন ধরে মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ইয়ামেন, সৌদি আরব, থাইল্যান্ড থেকে তবলীগের প্রতিনিধিরা আসছেন। বুধবার বেশি আসছেন ভারতীয় মুসল্লিরা। স্থানীয়দের সহযোগিতায় চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের কার্যাদি সম্পন্ন করে ক্যাম্পে বিদেশী মেহমানদের বিশ্রামের ব্যবস্থা করেছি। অবরোধ থাকায় মেহমানরা ক্যাম্পেই থাকছেন। সন্ধ্যার পরে পরিবহন রিজার্ভ করে তাদের টঙ্গী বিশ্ব এজতেমা মাঠে পাঠানোর চেষ্টা করছি।

প্রকাশিত : ৮ জানুয়ারী ২০১৫

০৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: