কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরি- সিডনি টেস্টে প্রথম দিন অস্ট্রেলিয়ার

প্রকাশিত : ৭ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরি (১০১) ও অপর ওপেনার ক্রিস রজার্সের প্রায় সেঞ্চুরির (৯৫) দুটি ইনিংসে ভর করে সিডনি টেস্টের প্রথম দিন নিজেদের করে নিয়েছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। সফরকারী ভারতের বিপক্ষে চতুর্থ ও শেষ টেস্টের প্রথম দিন শেষে প্রথম ইনিংসে ২ উইকেট হারিয়ে ৩৪৮ রান সংগ্রহ করেছে অসিরা। ৮২ রান নিয়ে ব্যাট করছেন অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ, ব্যক্তিগত ৬১ রানে তার সঙ্গে আছেন শেন ওয়াটসন। সেঞ্চুরি পূরণের পর শূন্যে লাফিয়ে, পিচে চুমু দিয়ে অকালপ্রয়াত সতীর্থ ফিলিপ হিউজেসকে স্মরণ করেন ওয়ার্নার। দিন শেষের সংবাদ সম্মেলনেরও বার বার ঘুরে ফিরে আসে সে প্রসঙ্গ। উল্লেখ্য গত নবেম্বরের শেষ সপ্তাহে এই সিডনিতেই পেসার শন এ্যাবোটের বল মাথায় লেগে মাত্র ২৫ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন হিউজেস। সিডনিতে চতুর্থ টেস্ট খেলতে এসে যেন হিউজেস-স্মৃতিতে উন্মাতাল হয়ে ওঠেন অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যানরা! চার টপঅর্ডার তারকার কার্যকর ব্যাটিংয়ে ভর করে বিশাল সংগ্রহের পথেই এগোচ্ছে ইতোমধ্যে ২-০তে ‘বোর্ডার গাভাস্কার ট্রফি’ নিশ্চিত করা অসিরা। ওয়ার্নার-রজার্স বেশ দ্রুততার সঙ্গেই গড়ে তোলেন ২০০ রানের ওপেনিং জুটি। রজার্স ৯৫ রানে আউট হলেও ৩৬তম টেস্টে ক্যারিয়ারের ১২ নম্বর সেঞ্চুরিটা ঠিকই তুলে নেন ফর্মের তুঙ্গে থাকা ওয়ার্নার। সিরিজে এটি তার চতুর্থ সেঞ্চুরি, ম্যাথু হেইডেনের পর যা কোন অস্ট্রেলিয়ানের দ্বিতীয় সর্বাধিক সেঞ্চুরির রেকর্ড। ‘আজ হিউজেসকে বেশি করে মনে পড়ছে। এই মাঠে ওর সঙ্গে কত স্মৃতি আমাদের।’ বলেন ওয়ার্নার। এই প্রথম দেশের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে একই সিরিজে অস্ট্রেলিয়া টপঅর্ডারের চার ব্যাটসম্যানই খেললেন পঞ্চাশোর্ধ রানের ইনিংস। সারাদিনে ভারতীয়দের সাফল্য বলতে এই দু’জনকে সাজঘরে ফেরানো। চা-বিরতির আগে ও পরে উইকেট থিতু হওয়া দুই তারকাকে ফিরিয়ে সফরকারী বোলাররা কিছুটা আশার সঞ্চার করলেও সেই আশায় গুড়ে বালি ঢেলে দেন স্মিথ-ওয়াটসন। দুজনে গড়েন ১৪৪ রানের জুটি। এই দুজনের অবিচ্ছিন্ন জুটিতেই সিডনি টেস্টের প্রথম দিনটা পুরোপুরি নিজেদের করে নেয় অস্ট্রেলিয়া। ভারতের হয়ে উইকেট দুটি ভাগাভাগি করে নেন পেসার মোহাম্মদ শামি ও স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। শামির বলেই সেঞ্চুরির ৫ রান দূরে থাকতে বোল্ড হন রজার্স। তবে এর মধ্য দিয়ে চতুর্থ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার হিসেবে টানা পাঁচ ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরির অনন্য নজির স্থাপন করেন তিনিÑ ৫৫, ৫৫, ৫৭, ৬৯ ও ৯৫। ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ের পর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ৪ টেস্টের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল ভারত। এবার তারুণ্য নির্ভর দল নিয়েও ভাল খেলছে তারা। প্রতিটি ম্যাচই হয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। তবে ব্যাটিং-বোলিং সব মিলিয়েই ভারতীয়দের টেস্ট-স্কিল নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন দেশটির সাবেক তারকারা।

স্কোর ॥ অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংস ৩৪৮/২ (৯০ ওভার; ওয়ার্নার ১০১, রজার্স ৯৫, স্মিত ৮২*, ওয়াটসন ৬১*; শামি ১/৫৮, অশ্বিন ১/৮৮) ** প্রথম দিন শেষে।

প্রকাশিত : ৭ জানুয়ারী ২০১৫

০৭/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: