আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিচারপতি মোস্তফা কামাল আর নেই

প্রকাশিত : ৬ জানুয়ারী ২০১৫
বিচারপতি মোস্তফা কামাল আর নেই

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামাল আর নেই (ইন্নালিল্লাহি...রাজিউন)। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রবিবার রাত ৩টার দিকে রাজধানীর গুলশানে নিজের বাসায় তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮১ বছর। তিনি ৩ মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। সুপ্রীমকোর্ট ও গুলশানে দুই দফা জানাজা শেষে সোমবার বিকেলেই রাজধানীর আজিমপুর কবরস্থানে তাঁকে সমাহিত করা হয়েছে। বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের ঐতিহাসিক মাসদার হোসেন মামলার রায় তিনিই লিখেছিলেন।

মোস্তফা কামালের মৃত্যুর খবর সোমবার সকালে সুপ্রীমকোর্টে পৌঁছলে আপীল বিভাগের বিচারপতিরা তাঁর প্রতি সম্মান জানিয়ে এজলাস থেকে নেমে যান। সাবেক এই প্রধান বিচারপতির মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এছাড়া জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এবং ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এই সাবেক প্রধান বিচারপতির মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন।

প্রখ্যাত গায়ক আব্বাস উদ্দিনের ছেলে মোস্তফা কামাল ১৯৯৯ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতির দয়িত্ব পালন করেন। তাঁর জন্ম ১৯৩৫ সালে নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলায়। ১৯৫৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স করার পর যুক্তরাজ্যে আইন বিষয়ে লেখাপড়া করেন মোস্তফা কামাল।

সোমবার দুপুর দুইটার দিকে সুপ্রীমকোর্টের বাগানে তাঁর দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সাবেক প্রধান বিচারপতি রুহুল আমিন, বর্তমান প্রধান বিচারপতি মোঃ মোজাম্মেল হোসেনসহ আপীল বিভাগ, হাইকোর্ট বিভাগ এবং আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের বিচারপতিগণ জানাজায় অংশ নেন। এছাড়াও সুপ্রীমকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার আমীর-উল ইসলাম, সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেনসহ সমিতির নেতৃবৃন্দ এবং আইনজীবীগণ জানাজায় অংশ নেন। সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির মসজিদের ইমাম মাওলানা মজিবুল হক জানাজা পড়ান। জানাজা শেষে বিচারপতি মোস্তফা কামালের প্রতি ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে বিকেলে তাঁকে রাজধানীর আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হয় বলে জানিয়েছেন তাঁর ছোট মেয়ের জামাতা মঈনুদ্দিন মোনেম। এর আগে বাদ জোহর গুলশানের আজাদ মসজিদে তাঁর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

মাসদার হোসেন মামলার আইনজীবী ও বাহাত্তরের সংবিধান প্রণয়ন কমিটির সদস্য এম আমীর-উল ইসলাম বলেন, “আমাদের সময়ে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কীর্তিমান ছাত্র ছিলেন। ছাত্র-জীবনে তাঁর অপার স্নেহ ও বন্ধুত্বপূর্ণ সহাস্য সম্ভাষণ পেয়েছি। তিনি বলেন, তিনি ছিলেন উদার চিন্তার মানুষ। আইন জগত ও মাসদার হোসেন মামলার রায়ে তাঁর যে অবদান, তাতে তিনি অমরত্ব লাভ করবেন। আমীর-উল ইসলামের ভাষায়Ñ মোস্তফা কামালের ‘লেখনিশক্তি ও প্রতিভা’ ছিল ‘অসাধারণ’।

রাষ্ট্রপতির শোক ॥ সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামালের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ। এক শোকবার্তায় রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থার উন্নয়নে বিচারপতি মোস্তফা কামালের মূল্যবান অবদানের কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে বলেন, তাঁর মৃত্যুতে একটি বর্ণিল অধ্যায়ের সমাপ্তি ঘটল। রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সমুন্নত রাখার ব্যাপারে তিনি সব সময় সরব ছিলেন।’ রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

প্রধানমন্ত্রীর শোক ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামালের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের বিচার পদ্ধতিতে মোস্তফা কামালের অসামান্য অবদানের কথা স্মরণ করে বলেন, তাঁর মৃত্যুতে এ দেশের বিচারাঙ্গনের এক বর্ণাঢ্য অধ্যায়ের সমাপ্তি ঘটল। তিনি আরও বলেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা এবং বিচার বিভাগের স্বাধীনতা অক্ষুণœœ রাখার পক্ষে বিচারপতি মোস্তফা কামালের কণ্ঠ সবসময়ই ছিল সোচ্চার। শেখ হাসিনা তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

স্পীকারের শোক ॥ সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামালের মৃত্যুতে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, মোস্তফা কামাল ছিলেন একজন সুবিচারক। তাঁর প্রজ্ঞা ও কর্মনিষ্ঠা তাকে এক অনন্য উচ্চতায় প্রতিষ্ঠিত করেছে। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় তাঁর ভূমিকা দেশ ও জাতি চিরকাল মনে রাখবে। স্পীকার মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

বিরোধী দলীয় নেতার শোক ॥ জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ এমপি সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামালের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ এক শোক বার্তায় বলেন, প্রয়াত সাবেক প্রধান বিচারপতি তাঁর সততা, ন্যায়নিষ্ঠতা ও আদর্শনিষ্ঠ কর্মের মাধ্যমে বাংলাদেশের মানুষের কাছে শ্রদ্ধাভরে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। বিরোধীদলীয় নেতা মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

আইনমন্ত্রীর শোক ॥ সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামালের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। একই সঙ্গে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন তিনি। এক বিবৃতিতে তিনি এ শোক জানান। শোকবার্তায় আইনমন্ত্রী বলেন, বিচারপতি মোস্তফা কামালের মৃত্যুতে জাতি একজন অভিজ্ঞ ও আলোকিত মানুষকে হারিয়েছে। একই সঙ্গে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা জানান আইনমন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক।

ভূমিমন্ত্রীর শোক ॥ সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামালের মৃত্যুতে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোকবার্তায় ভূমিমন্ত্রী বলেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি মোস্তফা কামালের মৃত্যুতে বাংলাদেশের বিচারাঙ্গন একজন প্রাজ্ঞ বিচারককে হারাল। তিনি আইনের সুশাসন প্রতিষ্ঠা এবং বিচার বিভাগের স্বাধীনতা অক্ষুণœ রাখতে সব সময়ই অগ্রণী ভূমিকা রেখেছিলেন।

প্রকাশিত : ৬ জানুয়ারী ২০১৫

০৬/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: